হারুনর রশিদ, মহেশখালী :

মহেশখালী থানার পুলিশের অভিযানে কালামারছড়ার ত্রাস ৭ মামলার আসামী মীর কাশেম গ্রেপ্তার এবং অস্ত্র ও গুলি উদ্ধার করা হয়েছে। সে কালামারছড়া ইউপির উত্তর ঝাপুয়া এলাকার মোঃ ইসলামের ছেলে।
মহেশখালী থানার এসআই সৈয়দ ছানাউল্লাহ সঙ্গীয় এএসআই মোঃ জাহাঙ্গীর আলম ও ফোর্সসহ অভিযান চালিয়ে ২৬শে সেপ্টেম্বর রাত ১টার সময় কালারমারছড়া উত্তর ঝাপুয়া গ্রামের দূর্ধর্ষ ডাকাত মীর কাশেম(৩০)কে গ্রেপ্তার করে। তাকে গ্রেপ্তারের পর পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে একপর্যায়ে তার নিকট অস্ত্র ও গুলি আছে বলে স্বীকারোক্তি প্রদান করে। তার অস্ত্র ও গুলি গুলো শাপলাপুর ইউপির দীনেশপুর সাকিনস্থ গোরকঘাটা টু জনতা বাজার সড়কের চিতার ঝিরি ব্রীজের নিচের মাটির নিচে রয়েছে পুলিশ কে জানান।
স্থানীয় লোকজনের উপস্থিতিতে তার স্বীকারোক্তি মোতাবেক তার দেখানো ও সনাক্ত মোতাবেক ১টি দেশীয় তৈরী এলজি ও ২ রাউন্ড তাজা
কার্তুজ উদ্ধার করা হয় ।
মহেশখালী থানা সুত্রে জানাগেছে তার বিরুদ্ধে ৪টি অস্ত্র মামলা , ১টি সরকারী কর্মচারীকে আক্রমণের মামলা, ১টি দস্যুতার মামলাসহ
মানব পাচার ও অন্যান্য ধারায় মোট ৭টি মামলা রয়েছে। সাগরে ট্রলার ডাকাতি, মানুষের ঘর ডাকাতি ও দস্যুতা করা তার নেশা ও পেশা বলে এলাকায় জনশ্রুতি রয়েছে।
এ ব্যাপারে মহেশখালী থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি প্রভাষ চন্দ্র ধর জানান গ্রেপ্তারকৃত ডাকাত মীর কাশেম একজন চিহ্নত অপরাধী। বিভিন্ন ভাবে অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। তার বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট আইনে মামলা রুজু করে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়।

 

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •