ফারুক আহমদ, উখিয়া:
  উখিয়ার মরিচ্যা গোরিয়া দ্বীপ রাস্তার মাথায় পরিকল্পিত ভাবে চুরিকাঘাত করে  এনজিও কর্মী   মাজহারুল ইসলাম  (৩২)  হত্যা কান্ডের ঘটনায় প্রধান হোতা আলা উদ্দিন কে পুলিশ গ্রেপ্তার করছে।
শুক্রবার বিকেলে জালিয়া পালংয়ের সোনাইছড়ি খালার বাসায় আত্মগোপন থাকা অবস্তায় পুলিশ তাকে আটক করেন। আটক আলা উদ্দিন ইনানীর মোহাম্মদ শফির বিল এলাকার জাফর আলমের পুত্র।
প্রত্যক্ষ্যদর্শীরা জানান,   বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে আটটার দিকে  উপজেলার হলুদিয়া পালং ইউনিয়নের পশ্চিম মরিচ্যা গোরিয়া দ্বীপ সড়কের চৌরাস্তার মাথায় দুর্বৃত্তরা  এনজিও কর্মী মাযহারুল ইসলাম কে এলোপাতাড়ি চুরিকাঘাত করে   রক্তাক্ত অবস্থায় ধান ক্ষেতে ফেলে পালিয়ে যায়।
 চিৎকার শুনে   স্থানীয় মেম্বার মনজুর আলম সহ লোকজনের ঘটনাস্থলে এসে আহত যুবককে উদ্ধার করে দ্রুত তাকে হাসপাতালে প্রেরণ করেন।
এদিকে হাসপাতাল সূত্রে জানা যায় এলোপাথাড়ি ছুরিকাঘাতে প্রচুর রক্তক্ষরণ হয়ে  যুবকটি মারা যায়।
থানা সূত্রে জানা যায়   নিহত যুবকের পকেটে থাকা আইডি কার্ডে তার নাম মাজহারুল ইসলাম । রংপুর পীরগঞ্জের কলোনি  তার বাড়ি।
তার ব্যাগে এনজিও সংস্থা ব্রাকের বেশ কিছু কাগজপত্র ও ফরম পাওয়া গেছে।
অপরদিকে দুর্বৃত্তরা চুরি দিয়ে এলোপাথাড়ি আঘাত করে পালিয়ে যাবার পর রক্তাক্ত ও  মুমূর্ষ অবস্থায় একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়। উক্ত  ভিডিওতে নিহত যুবক মৃত্যুর আগে ইনানীর আলা উদ্দিন  নামক এক যুবকের নাম বারবার বলতে শোনা গেছে। এদিকে  গ্রেপ্তারকৃত  আলাউদ্দিন  হত্যাকাণ্ডের  পরপরই  ছৈয়দ নূরের স্ত্রী খালা  নুর হাবার  বাড়ি সোনাইছড়িতে গ্রেফতার এড়ানোর জন্য আত্মগোপনে থাকে।  থানার অফিসার ইন ইনচার্জ  মোঃ আবুল মনসুর জানান গোপন সংবাদের ভিত্তিতে আত্মগোপনে থাকা বাড়িতে পুলিশ অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। এ সময় ব্যবহৃত মোটরসাইকেলটি জব্দ করে পুলিশ।
 হত্যাকাণ্ডের আসল ঘটনা উদঘাটন করার জন্য আটক যুবককে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।
 ইনানীর মোহাম্মদ শফিউল এলাকার বাসিন্দারা জানান পুলিশের হাতে আটক ঘাতক আলাউদ্দিন ইতিপূর্বে তার স্ত্রীকে  নির্মম নির্যাতন চালিয়ে হত্যা করেছিল।
খোঁজখবর নিয়ে জানা যায়, জালিয়াপালং পাইন্যাশিয়া গ্রামের এক গৃহবধূ বর্তমানে এনজিওতে কর্মরত  মহিলার সাথে খুন হওয়া মাজহারুল ইসলামের পরকীয়া সম্পর্ক ছিল। এই ঘটনার জের ধরে প্রতিশোধ পরায়ন হয়ে ওই মহিলা স্বামীসহ কয়েকজন যুবক পরিকল্পিতভাবে তাকে খুন করে।
মোটরসাইকেল যোগে এনজিও কর্মীকে  অপহরণ করে নির্জন জায়গায় নিয়ে খুন করেছে বলে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান।
এ ব্যাপারে থানায় হত্যা মামলা রয়েছে বলে পুলিশ জানিয়েছেন।
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •