অনলাইন ডেস্ক :   সম্প্রতি ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে ছোটপর্দার অভিনেত্রী মেহজাবিন চৌধুরীর নাম দিয়ে একটি আপত্তিকর ভিডিও। এতে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন জাতীয় পুরস্কার প্রাপ্ত এ টেলিভিশন তারকা। তিনি দাবি করেছেন, ওই ভিডিওটি তার নয়। মিথ্যা ভিডিওতে বিশ্বাস না করতে মেহজাবিন তার ভক্তদের অনুরোধও জানিয়েছেন।

মেহজাবিনের নামে ছড়ানো ৩৪ সেকেন্ডের ওই ভিডিওটি একটি সেক্স টেপ। ভিডিওটি মূলত একটি পর্ন সাইটের। যেটা নিয়ে বিব্রত মেহজাবিন ও তার পরিবার। ফলে নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক অ্যাকাউন্ট থেকে দেয়া এক স্ট্যাটাসে অভিনেত্রী এই অপপ্রচারের প্রতিবাদ জানিয়েছেন।

ইংরেজি ও বাংলা দুই ভাষাতে দেয়া স্ট্যাটাসে মেহজাবিন লিখেছেন, ‘সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে একটা আপত্তিকর ভিডিও ছড়িয়ে পড়েছে। এ নিয়ে কিছু অসাধু লোকজন বিভ্রান্তির সৃষ্টি করছেন। আমার সকল ফ্যান-ফলোয়ার এবং সমর্থকদের কাছে অনুরোধ, মিথ্যা খবর কিংবা ভিডিওতে বিশ্বাস করবেন না।’

A video has been circulating today on Facebook and unfortunately some people are confusing it to be me. I request my fans, followers and supporters to not believe any fake news or video . I have already talked to the Dhaka Metropolitan Police Cyber Crime Department, they will take actions against those who are spreading or helping to spread fake news/video.

Thanking You,
Mehazabien

অভিনেত্রী তার স্ট্যাটাসে আরও লিখেন, ‘আমি ইতোমধ্যে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের সাইবার ক্রাইম ডিপার্টমেন্টে অভিযোগ জানিয়েছি। যারা এসব বিভ্রান্তিকর তথ্য ও ভিডিও ছড়াচ্ছেন বা ছড়াতে সাহায্য করছেন তাদের বিরুদ্ধে আইনত ব্যবস্থা নেয়ার অনুরোধ করেছি। ধন্যবাদ, মেহজাবিন।’

এর আগে একই ঘটনার শিকার হয়েছিলেন অভিনেত্রী শাহনাজ সুমী। জুঁই নারিকেল তেলের একটি বিজ্ঞাপন করে যিনি তুমুল আলোচিত হয়েছিলেন। সুমীর নাম দিয়েও ইউটিউবে ছড়ানো হয়েছিল একটি আপত্তিকর ভিডিও। সেই ভিডিওর মেয়েটিকে দেখতে অনেকটা সুমীর মতো।

ভিডিওটি নিয়ে শোরগোল শুরু হলে মেহজাবিনের মতো সুমীও ছুটে গিয়েছিলেন পুলিশের সাইবার ক্রাইম ডিপার্টমেন্টে। জানিয়েছিলেন অভিযোগ। পরে তদন্ত করে পুলিশ জানায়, ভিডিওর মেয়েটি সুমী নয়, একজন ভারতীয়। কোনো একটি চক্র নিজেদের ইউটিউব চ্যানেলের ব্র্যান্ডিংয়ের জন্য এসব অপপ্রচার চালাচ্ছে।

– ঢাকাটাইমস

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •