মোঃ নিজাম উদ্দিন, চকরিয়া:
‘শেখ হাসিনার বাংলাদেশ, ক্ষুধা হবে নিরুদ্দেশ’ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার নির্বাচনী প্রতিশ্রুতির ঘোষণা অনুযায়ী খাদ্য অধিদপ্তর পরিচালিত হত-দরিদ্রদের জন্য সরকারের নির্ধারিত ১০ টাকা মূল্যের চাল বিতরণ শুরু করেন।
চকরিয়া উপজেলার ১৮টি ইউনিয়নে মোট ৩৯৩.৭৫০ মেট্রিকটন খাদ্যবান্ধব কর্মসূচীর চাল বিতরন করা হচ্ছে বলে সংশ্লিষ্ট সুত্রে জানায়।
সোমবার (১৬ সেপ্টেম্বর) সকাল থেকেই প্রতিটি ডিলার কার্ডের মাধ্যমে এ চাল বিতরণ করছে। সপ্তাহের সোম, মঙ্গল ও বুধবার করে আগামী ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত বিতরণ কার্যক্রম চলবে বলে সংশ্লিষ্ট সুত্রে জানান।
উপজেলার ডুলাহাজারা ইউনিয়নের মজিবুল হোছাইন পরিচালিত ডিলার মুজিব এন্টারপ্রাইজ, জাগের এন্টারপ্রাইজ ও মন্জুর এন্টারপ্রাইজ সোমবার সকাল থেকে খাদ্যবান্ধব কর্মসূচীর চাল বিতরণ করছে। এ তিন ডিলার ১৪০১ কার্ডধারী হত-দরিদ্রদের ৩০ কেজি করে মোট ৪২০৩০ কেজি চাল বিতরণ করা হচ্ছে। এবারের বিতরণকৃত চাল অনেক মানসম্মত বলে জানায় সুবিধাভোগীরা। প্রতিবছর খড়া মৌসুমে খেটে খাওয়া মানুষের হাতে কোন কাজ না থাকায় বেকার হয়ে পড়ে। তারা পরিবার পরিজন নিয়ে অর্ধহারে অনাহারে দিনাতিপাত করে। খেটে খাওয়া মানুষের কথা চিন্তা করেই প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা ১০ টাকা দরে চাল বিতরণের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেন।
মজিব এন্টারপ্রাইজ ডিলার পরিচালক মজিবুল হোছাইন বলেন, আমি যথাযথ নিয়মে হত-দরিদ্রদের মাঝে চাল বিতরণ করছি। কেউ যাতে কোন প্রকার হয়রানির শিকার না হয় সেদিকে সার্বক্ষণিক লক্ষ্য রাখছি।
জাগের এন্টারপ্রাইজের ডিলার জাগের হোসেন বলেন, সোমবার সকাল থেকে সুন্দর ভাবে চাল বিতরণ চলছে। কোনপ্রকার যাতে বিশৃঙ্খলা না হয় সেদিকে গুরুত্ব সহকারে খেয়াল রাখা হচ্ছে।
চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নূরুদ্দীন মুহাম্মদ শিবলী নোমান জানান, খাদ্যবান্ধব কর্মসূচীর আওতায় উপজেলার প্রতিটি ইউনিয়নে সরকার নির্ধারিত কেজি ১০ টাকা মূল্যের চাল বিতরণ করা হচ্ছে। কার্ডের মাধ্যমে হতদরিদ্র মানুষের মাঝে চাল বিতরণ করবে। কোনপ্রকার অনিয়মের আশ্রয় না নিতে ডিলারদের তাগিদ দেওয়া হয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •