এ কে এম ইকবাল ফারুক, চকরিয়া:
চকরিয়া পৌর সদরের চিরিংগায় ফুটপাত দখল করে ভাসমান দোকান বসিয়ে অবৈধ ব্যবসা পরিচালনা ও সড়ক দখল করে অবৈধ গাড়ি ষ্ট্যান্ড গড়ে তুলে জনদূর্ভোগ সৃষ্টিকারী বিরুদ্ধে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান চালানো হয়েছে। এ সময় জনতা মার্কেট থেকে সোসাইটি জামে মসজিদ পর্যন্ত সড়কের ফুটপাত দখল করে অবৈধভাবে বসা শতাধিক ভাসমান দোকান উচ্ছেদ ও জরিমানা আদায় করা হয়। স্থানীর সরকার (পৌরসভা) আইন ২০০৯ এর বিভিন্ন ধারার আলোকে ভ্রাম্যমাণ আদালতের নিবার্হী ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারি কমিশনার (ভূমি) তানভীর হোসেন সোমবার (১৬ সেপ্টেম্বর) বিকাল ৪টা থেকে সাড়ে ৫টা পর্যন্ত একটানা এ অভিযান চালায়। এ সময় ৫টি ভাসমান দোকান থেকে এক হাজার টাকা করে পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়।

ভ্রাম্যমাণ আদালতের নিবার্হী ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারি কমিশনার (ভূমি) তানভীর হোসেন বলেন, চকরিয়া পৌর সদরের চিরিংগায় ফুটপাত দখল করে ভাসমান দোকান বসিয়ে অবৈধ ব্যবসা পরিচালনা ও সড়ক দখল করে অবৈধ গাড়ি ষ্ট্যান্ড গড়ে তুলে জনদূর্ভোগ সৃষ্টি করায় ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান চালানো হয়। এ সময় শতাধিক ভাসমান দোকান উচ্ছেদ ও পাঁচটি ভাসমান ফলের দোকান থেকে এক হাজার টাকা করে পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়। ভবিষ্যতেও এ ধরণের অভিযান অব্যাহত থাকবে বলেও জানান তিনি।

চকরিয়া পৌর সভার মেয়র আলমগীর চৌধূরী বলেন, স্থানীর সরকার (পৌরসভা) আইন ২০০৯ এর বিভিন্ন ধারার আলোকে সোমবার বিকালে চকরিয়া পৌর সদরে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান চালানো হয়। এ সময় সড়কের ফুটপাত দখল করে অবৈধভাবে বসা শতাধিক ভাসমান দোকান, অবৈধ গাড়ি ষ্ট্যান্ড উচ্ছেদ ও জরিমানা আদায় করা হয়। পৌর মেয়র আরও বলেন, আগামীকাল মঙ্গলবারের মধ্যে সকল অবৈধ স্থাপনা নিজ দায়িত্বে সরিয়ে ফেলার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। অন্যথায় কাল বুধবার হতে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। পৌর শহরের সৌন্দর্য বর্ধনে এ ব্যাপারে সকলের সর্বাতœক সহযোগিতাও কামনা করেছেন পৌর মেয়র আলমগীর চৌধূরী।

ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযানের সময় চকরিয়া পৌর সচিব মাসউদ মোরশেদ, চকরিয়া থানার উপপরিদর্শক (এসআই) জাকির হোসেন, পৌর সভার স্যানিটারি ইন্সপেক্টর হায়দার আলী, টিকাদান সুপারভাইজার নাজিম উদ্দিন ও ভুমি অফিসের নাজির মিলন বড়ুয়াসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যগন উপস্থিত ছিলেন ।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •