সিবিএন:
টেকনাফের শালবাগান রোহিঙ্গা ক্যাম্পে গোলাগুলির শব্দ শোনা গেছে।

শনিবার (১৪ সেপ্টেম্বর ) দিবাগত রাত সাড়ে টার দিকে গুলির শব্দে চারিদিকে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে।

তবে এই ঘটনার সঙ্গে কারা জড়িত তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

একাধিক সূত্রের দাবি- রঙ্গিখালী, আলীখালী, লেদা-মোচনী ও জাদিমোরা এলাকার চিহ্নিত ইয়াবা কারবারি এবং সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা রোহিঙ্গা অপরাধীদের সঙ্গে মিলে ইয়াবা চোরাচালান নিয়ন্ত্রণ, ছিনতাই, অবৈধ অস্ত্রের মজুদ, অপহরণ করে মুক্তিপণ আদায় বাণিজ্য চালিয়ে আসছে। তাদের মধ্যে গ্রুপিং হওয়ায় আধিপত্য বিস্তার নিয়ে প্রায় সময় এই ঘটনা ঘটছে।

নয়াপাড়া রোহিঙ্গা ক্যাম্পের পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই মোহাম্মদ মনির বলেন, ‘আমরা গুলির ঘটনার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়েছি। খোঁজখবর নিচ্ছি। সাধারণ রোহিঙ্গাদের শান্ত করেছি। তাদের ভীত না হওয়ার জন্য বলা হয়েছে।’

টেকনাফের শালবাগান রোহিঙ্গা ক্যাম্পের মাঝি সায়েদুল আমীন বলেন, ‘রাতে (৮টার পরে) ক্যাম্পের পশ্চিমে পাহাড়ে খুব বেশি গোলাগুলির শব্দ শুনেছি। বিষয়টি ক্যাম্প কর্তৃপক্ষকে অবহিত করা হয়েছে।’

রোহিঙ্গা নেতা বদলুল ইসলাম বলেন, ‘রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ব্যাপক গোলাগুলির শব্দ পাওয়া গেছে। তবে কে বা কাদের মধ্যে এই ঘটনা ঘটেছে তা বলা যাচ্ছে না। এছাড়া সশস্ত্র গ্রুপের কারণে আমরা সাধারণ রোহিঙ্গারা আতঙ্কে আছি।’

 

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •