অনলাইন ডেস্ক:

সৌদি আরবে প্রকাশ্য রাস্তায় বেরোতে হলে মেয়েদের কালো বোরকা পরা বাধ্যতামূলক। সেখানে সাদা টপের ওপরে কমলা জ্যাকেট, সাদা ট্রাউজার ও হাই হিল পরে রাস্তায় বেরোলেন মাশায়েল আল-জালৌদ। রিয়াদের শপিং মলে এই নারী চোখে পড়েন অনেকেরই।

৩৩ বছর বয়সী মাশায়েল একটি সংস্থার মানবসম্পদ বিভাগে কাজ করেন। পাশাপাশি নিজের মতো করে চালার লড়াই চালিয়ে যাচ্ছেন। গত সপ্তাহে বোরকা ছাড়া পশ্চিমি পোশাকে রিয়াদের মলে যাওয়া সেই আন্দোলনেরই ভাষা।

মাশায়েলকে এই পোশাকে দেখে অনেকে কৌতূহল চেপে রাখতে পারেননি। ভেবেছিলেন কোনো সেলিব্রিটি এসেছে। জিজ্ঞাসাও করে ফেলেছিলেন তারা, ‘‘আপনি কি বিখ্যাত কেউ? মডেল?’’

সম্প্রতি মাশায়েলের মতো বোরকা ছেড়েছেন ২৫ বছরের মানবাধিকার কর্মী মানাহেল আল-ওতাইবিও। তিনি জানান, চার মাস ধরে রিয়াদে রয়েছেন, বোরকা পরেন না। মানাহেল বলেন, ‘‘স্বাধীনভাবে বাঁচতে চাই।’’ এর জন্য তাকে অনেক কটু কথাও শুনতে হয়েছে। এমনকি সৌদি রাজপরিবারের থেকে বলা হয়, ‘‘মানাহেল বিখ্যাত হতে চান, তাই এই সব ছলচাতুরী।’’

সৌদি যুবরাজ মুহাম্মদ বিন সালমান নারী ক্ষমতায়ন নিয়ে সম্প্রতি একাধিকবার কথা বলেছেন। বছর খানেক আগে একটি টিভি চ্যানেলকে জানান, নারীদের পোশাক নিয়ে কড়াকড়ি কমানো হবে। ইসলাম ধর্মে বোরকা পরা বাধ্যতামূলক নয়। তবে সমাজে এর তেমন প্রভাব পড়েনি।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •