সিবিএন ডেস্ক:
মালয়েশিয়ায় অবস্থানের বৈধ কাগজপত্র না থাকায় দেশটির স্থানীয় জঙ্গল ও পাম ওয়েল বাগানে লুকিয়ে মানবেতর জীবনযাপন করছেন বেশ কিছু বাংলাদেশি শ্রমিক।

শুক্রবার প্রকাশিত মালয়েশিয়ার স্থানীয় সংবাদমাধ্যম মালয়সিয়াকিনিকে উদ্ধৃত করে দেশটির সংবাদমাধ্যম মালয়মেইলে এ খবর জানানো হয়। এতে বলা হয়েছে, গত বছর কোম্পানি থেকে ছাঁটাই হওয়ার পর হাইওয়ের নিকট একটি পাম ওয়েল উপবনে পালিয়ে আছে ১৬ জনের অভিবাসী শ্রমিকের একটি দল। এরা সবাই বাংলাদেশি। রাজধানী কুয়ালালামপুরের নিকটে কোম্পানিটি অবস্থিত।

শ্রমিদের দাবি, শ্রমিক আন্দোলনে অংশ নেয়ার কারণে তাদেরকে চাকরি থেকে ছাঁটাই করা হয়েছে।

পালিয়ে থাকা বরিশালের নাগরিক আল-আমিন গণমাধ্যমকে বলেন, ‘বাংলাদেশে আমার বাড়ির গরুগুলো এর থেকে তুলনামূলক ভালো পরিবেশে আছে।’
কিশোরগঞ্জের মান্নান মিয়া বলেন, ‘দালালদের কারণে আমার স্বপ্ন টুকরো টুকরো হয়ে গেছে। আমি আমার জীবন নিয়ে ভীত। মনে হয় পরিবারকে আর সাহায্য করতে পারবো না। সারাদিন হাড়ভাঙা পরিশ্রমের পর রাতে জঙ্গলে ঘুমাই।’

এ বিষয়ে বাংলাদেশ হাইকমিশনের কর্মকর্তা মো. মুকছেদ আলি বলেন, ‘কোম্পানি কিছু শ্রমিককে তাদের ‘অপরাধের’ জন্য শাস্তি (চাকরি থেকে ছাঁটাই) দিয়েছে।’

২০০৫ সাল থেকে মালয়েশিয়ায় বসবাসরত এ পর্যন্ত ৪ হাজার ৩২১ জন বাংলাদেশি শ্রমিকের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। গত কয়েক বছরে এ সংখ্যা অনেক বৃদ্ধি পেয়েছে। অধিকাংশ মানুষের মৃত্যুর জন্য হৃদরোগ দায়ী।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •