সিবিএন ডেস্ক:
নোয়াখালী আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিস থেকে তিন রোহিঙ্গা তরুণের পাসপোর্ট নেওয়ার ঘটনায় দুজন সহকারী উপ-পুলিশ পরিদর্শককে (এএসআই) কারণ দর্শানোর নোটিশ দেওয়া হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১২ সেপ্টেম্বর) এসপি অফিস থেকে তাদের এ নোটিশ পাঠানো হয়। শুক্রবার (১৩ সেপ্টেম্বর) পুলিশ সুপার মো. আলমগীর হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

পুলিশ সুপার জানান, জেলা পুলিশের বিশেষ শাখায় (ডিএসবি) কর্মরত এএসআই আবুল কালাম আজাদ ও নুরুল হুদা তিন রোহিঙ্গা তরুণের পাসপোর্ট আবেদনে দেওয়া ঠিকানা যাচাইয়ের দায়িত্বে ছিলেন। বৃহস্পতিবার (১২ সেপ্টেম্বর) এসপি অফিস থেকে তাদের কারণ দর্শানোর নোটিশ পাঠানো হয়েছে। নোটিশে আগামী তিন দিনের মধ্যে তাদের এ বিষয়ে লিখিত জবাব দিতে বলা হয়েছে। জবাব পাওয়ার পর পরবর্তী পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

আলমগীর হোসেন আরও জানান, তিন রোহিঙ্গা তরুণের বাংলাদেশি পাসপোর্ট নেওয়ার পুরো ঘটনাটি জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অপরাধ) দীপক জ্যোতি খীসারের নেতৃত্বে তদন্ত হচ্ছে। তদন্তের মাধ্যমে এ ঘটনায় দায়িত্বপ্রাপ্ত ডিএসবি কর্মকর্তা, জাল সার্টিফিকেট তৈরির সঙ্গে জড়িত এবং যারা কাগজপত্র সত্যায়ন করেছে তাদের প্রত্যেককে চিহ্নিত করা হবে। দায়ীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’
উল্লেখ্য, গত ৫ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশি পাসপোর্টধারী তিন রোহিঙ্গা তরুণকে চট্টগ্রামের আকবরশাহ্ এলাকা থেকে গ্রেফতার করে পুলিশ। তারা দালাল ধরে নোয়াখালী আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিস থেকে পাসপোর্ট করিয়েছে বলে পুলিশের কাছে স্বীকার করে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •