আবদুল মজিদ, চকরিয়া:

কক্সবাজারের চকরিয়া থেকে সাগরে মাছ ধরতে যাওয়া একটি ফিশিং বোট ডুবে গিয়ে নিখোঁজ রয়েছে। তবে সাগরে যাওয়া অন্যান্য ফিশিং বোটের সহায়তায় ৩০ মাঝি-মাল্লা নিরাপদে ফিরেছে। ফিশিং বোট ডুবে যাওয়ার ঘটনায় বোট মালিকের অন্তত ৫০ লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি সাধন হয়েছে। ১১ সেপ্টেম্বর সকাল ১০টার দিকে কুতুবদিয়া চ্যানেলের দক্ষিণ পাশে সাগরে এ ঘটনাটি ঘটেছে। বোট মালিক সাগরের তলদেশে ডুবে যাওয়া ফিশিং বোট উদ্ধারে নৌ-বাহিনী এবং কোষ্ট গার্ডের সহায়তা চেয়েছেন।

চকরিয়া পৌরসভা ৪নং ওয়ার্ডের সবুজবাগ আবাসিক এলাকায় বসবাসরত মহেশখালী ধলঘাট এলাকার মুত নুরুল হকের পুত্র হাজী জাফর আলম জানিয়েছেন, তার মালিকানাধীন ৬৫ ইঞ্জিনের একটি ফিশিং বোট (এফবি নুর খতিজা) ভোর সকাল ৫টার দিকে ৩০জন মাঝি-মাল্লা নিয়ে চকরিয়ার বদরখালী হতে মাছ ধরতে যান।

সকাল ১০টার দিকে সাগরের কুতুবদিয়া চ্যানেলের দক্ষিণ পাশ্বে পৌছলে অসতকর্তা বশত ফিশিং বোটের বাইন ফেটে পানি ঢুকে সাগরের তলদেশে ডুবে যায়। বোটে থাকা ১৩টি বিহিঙ্গী জাল, ৬০টি তৈলের ড্রাম, রসি ও খাবার সামগ্রীসহ সব মালামালও সাগরে ডুবে গিয়ে অন্তত ৫০ লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি সাধন হয়েছে।

বোটের মাঝি মো: সাজু জানান, বোটটি ডুবে যাওয়ার সময় তাদের নিয়ন্ত্রন হারিয়ে ফেলায় সাগরে থাকা অন্যান্য ফিশিং বোটের সহায়তায় তারা ৩০জন মাঝি-মাল্লার প্রাণ রক্ষা পেয়েছেন। বোট মালিক বোটটি উদ্ধারের জন্য চট্টগ্রামস্থ নৌ-বাহিনী ও কোষ্ট গার্ডকে অবহিত পূর্বক আবেদন করেছেন।

  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •