রোহিঙ্গা সমাবেশ-৪ : সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী দুলাল মল্লিক বললেন- আমি সেই দুলাল নই

মুহাম্মদ আবু সিদ্দিক ওসমানী :

সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মো. দুলাল মল্লিক রোহিঙ্গা শরনার্থী সমাবেশ ও মাষ্টার মুহিব উল্লাহ’র রোহিঙ্গা শরনার্থী সংগঠনের বিষয়ে কিছুই জানেননা এবং তিনি তদন্তে আসা সেই দুলাল মল্লিক নন বলে দাবি করেছেন।
গত ২৫ আগষ্ট উখিয়া মধুরছরা এক্সটেনশন-৪ রোহিঙ্গা শরনার্থী ক্যাম্পের মাঠে রোহিঙ্গা আগমনের দু’বছর পূর্তি উপলক্ষে অনুষ্ঠিত আলোচিত রোহিঙ্গা শরনার্থী সমাবেশে জড়িত থাকার অভিযোগ উঠেছে সুপ্রীম কোর্টের আইনজীবী এডভোকেট মো. দুলাল মল্লিকের বিরুদ্ধে। সমাবেশের পর প্রশাসনের প্রাথমিক তদন্তে এ অভিযোগ পাওয়া গেছে। এডভোকেট মো. দুলাল মল্লিকের বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ হচ্ছে-সমাবেশ আয়োজনকারী মাষ্টার মুহিব উল্লাহ’র নেতৃত্বাধীন আরকান রোহিঙ্গা সোসাইটি ফর পিচ এন্ড হিউমিনিটি রাইটার্স (এআরএসপিএইচ) নামক রোহিঙ্গা শরনার্থী সংগঠনটি’র অন্যান্যদের সাথে তিনিও একজন উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য। সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির ওয়েবসাইটে মেম্বার ডিরেক্টরীতে খোঁজ নিয়ে দেখা গেছে-এডভোকেট মো. দুলাল মল্লিক ২০১৫ সালের ১৫ এপ্রিল সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী হিসাবে তালিকাভুক্ত হন। তাঁর মেম্বার আইডি নম্বর ৬৬৩১, বর্তমান ঠিকানা-১৫১,পশ্চিম ধোলাইপাড়, শ্যামপুর, ঢাকা। তিনি সিবিএন-কে কক্সবাজার জেলার বাসিন্দা নয় বলে জানান। এডভোকেট মো. দুলাল মল্লিক সিবিএন-কে আরো জানিয়েছেন, তার গ্রামের বাড়ি বরগুনা জেলার বামনা উপজেলায়। সুপ্রিম কোর্টের সিনিয়র আইনজীবী ও সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির কয়েকবার নির্বাচিত সভাপতি এডভোকেট এডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেনের একই এলাকায় তাঁর বাড়ি বলে তিনি সিবিএন-কে জানান। এডভোকেট মো. দুলাল মল্লিক দৃঢ়তার সাথে সিবিএন-কে বলেন-তদন্তে এই নামে কারো নাম এসে থাকলেও সেটি আমি নই। তিনি বলেন-আমি দৈনিক ইত্তেফাকের সাথেও জড়িত। তবে নিজেকে তিনি এডভোকেট পরিচয় দিতেই স্বাচ্ছন্দবোধ করেন বলে জানান। এবিষয়ে বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতি প্রশাসনের একজন কর্মকর্তা সিবিএন-কে জানান, সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতিতে এডভোকেট মো. দুলাল মল্লিক নামক একজন আইনজীবীই রয়েছেন, সমিতিতে যাঁর আইডি নম্বর ৬৬৩১ এবং তিনি ২০১৬ সালের ৩০ মে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সদস্য পদ লাভ করেন। উক্ত কর্মকর্তার মতে, ওনি ছাড়া এডভোকেট মো. দুলাল মল্লিক নামে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতিতে আর কোন সদস্য নাই।
প্রসঙ্গত, রোহিঙ্গা শরনার্থী সমাবেশের বিষয়ে প্রাথমিক এই তদন্ত প্রতিবেদনটি উপজেলা প্রশাসন থেকে জেলা প্রশাসন হয়ে দেশের নীতিনির্ধারণী মহলের কাছে ইতিমধ্যে পৌঁছে গেছে। এ তদন্ত প্রতিবেদনের উপর ভিত্তি করে প্রিলিমিনারী এ্যাকশন শুরু হয়েছে। এ প্রতিবেদনের আবার অধিকতর তদন্তও শুরু হয়েছে।

সর্বশেষ সংবাদ

২য় বার বিপিএম পদক পাওয়ায় এসপি মাসুদ হোসেনকে মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সংবর্ধনা

কক্সবাজার আসলেন ভূমিমন্ত্রী, ‘অ্যাকশন’ দেখার অপেক্ষায় ভুক্তভোগীরা

রামুতে সত্যপ্রিয় মহাথের’র অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া’র সম্প্রীতি মেলা উদ্বোধন

বাঁচতে চায় ক্যান্সার আক্রান্ত তিন সন্তানের মা ‘জাহানারা’

ঈদগাঁও বাজার কমিটির নির্বাচনে প্রার্থীদের মুক্ত সংলাপ

ঈদগাঁহে ‘৯০ ব্যাচের বহিস্কৃতরা কথিত মিলনমেলা ষড়যন্ত্রে মত্ত’র অভিযোগ

কক্সবাজার ইউনাইটেড স্টুডেন্ট’স ক্লাব শহর কমিটি অনুমোদন

কক্সবাজার সিটি প্রেসক্লাবের সাধারণ সভা ২৯ ফেব্রুয়ারী

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে বেপরোয়া দালাল

একুশের দিনে কাপড়ের তৈরী শহীদ বেদিতে শ্রদ্ধা নিবেদন

ঘুষ দৌরাত্ম্য অভিযুক্ত ৩ সার্ভেয়ার চাকুরী থেকে বরখাস্ত হচ্ছেন রোববার

ব্রাকের ম্যালেরিয়া রোগ নির্মূল প্রকল্পের নামে অর্থ অপচয়ের অভিযোগ

ভাষার জন্য সংগ্রাম করে জীবন দিয়েছেন এমন নজীর পৃথিবীর কোথাও নেই

চকরিয়ায় উগ্রবাদ ও সহিংসতা নিরসনে প্রশিক্ষণ

অসাম্পদায়িক বাংলাদেশ গড়াই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার লক্ষ্য

চকরিয়ায় বিদ্যুৎ স্পৃষ্টে যুবকের মৃত্যু

ডুলাহাজারায় শালিসি বৈঠকে হামলা: মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে দু’সহোদর

সাতকানিয়া-লোহাগাড়ার সমিতির আজীবন সম্মাননাপত্র বিতরণ ও শোকরানা সভা

শেখ হাসিনা ছাত্রী নিবাসে বিদ্যুৎ সংযোগ প্রদানে দীর্ঘসূত্রিতা!

লবণের ন্যায্যমূল্য নিয়ে সরকার বড়ই উদাসীন, ভূমিকাও রহস্যজনক- শাহজাহান চৌধুরী