বৈরী আবহাওয়া উপেক্ষা করে কক্সবাজার সৈকতে পর্যটকের ঢল

সরওয়ার আজম মানিক:
সতর্ক সংকেত,লঘুচাপ, বৃষ্টি, উত্তাল সাগর ও বৈরী আবহাওয়া উপেক্ষা করে কক্সবাজার সৈকতে নেমেছে পর্যটকের ঢল। সৈকত ছাড়াও পর্যটন স্পটগুলোতে পর্যটকরা ভিড় জমিয়েছে। নেয়া হয়েছে নিরাপত্তা ব্যবস্থা। খুশি পর্যটন ব্যবসায়ীরা।
জানা গেছে,ক বছর আগেও শীতের মৌসুম ছাড়া কক্সবাজারে পর্যটকদের তেমন আগমন ঘটতো না। কিন্তু এখন সে পরিস্থিতি নেই ,বদলে গেছে সবকিছু। পর্যটকদের নিরাপত্তা সহ নানা সুযোগ সুবিধা বৃদ্ধির কারণে সারা বছরই এখন কক্সবাজারে পর্যটক থাকে। এখন বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট লঘুচাপের প্রভাবে সাগর উত্তাল রয়েছে। কক্সবাজার,চটগ্রাম,মংলা ও পায়রা সমুদ্র বন্দরকে দেওয়া হয়েছে ৩ নাম্বার স্থানীয় সতর্কতা সংকেত। ঝড়-বৃষ্টির পাশাপাশি সাগরের ঢেউয়ের পরিমাণ বেড়েছে। বিশাল আকারের বড় ঢেউ এসে আছড়ে পড়ছে সৈকতে । এসব কিছু উপেক্ষা করে কক্সবাজারে নেমেছে পর্যটক এর ঢল। সেখানে গিয়ে দেখা যায়, সাগরের বড় ঢেউ গুলোর সাথে খেলা করছে আগত পর্যটকরা। সাগরের নীল জলরাশির ছোঁয়া পেয়ে বাঁধভাঙ্গা উৎসবে মেতেছে পর্যটকরা।
সৈকতের লাবণী পয়েন্টে কথা হয় নারায়ণগঞ্জ থেকে আসা পর্যটক দম্পতি রনি ও শামিমার সাথে। তারা বলেন, বৃষ্টিতে সৈকতের ভিন্ন রূপ উপভোগ করতে কক্সবাজার এসেছি। এখানে আসার পর বৈরী আবহাওয়া তাদের দমিয়ে রাখতে পারছে না।
মৌলভীবাজার থেকে আসা পর্যটক রফিকুল ইসলাম বলেন,বৈরী আবহাওয়া তে সাগর কেমন হয় তা দেখার জন্য এবার কক্সবাজার আসলাম। আমার কাছে সাগরের এই রূপটি বেশ উপভোগ্য।
চট্টগ্রামের রাউজান থেকে আসা পর্যটক রহিমা আফরোজ, শাহানা আক্তার মুক্তা বলেন, সাগর উত্তাল রয়েছে, তাই একটু করে পানিতে নেমে উঠে গেছি। কিন্তু বৃষ্টিতে খুবই ভালো লাগছে এখানে এসে।
তবে লাইফগার্ড সদস্য জহিরুল ইসলাম জানালেন ভিন্ন কথা। তার মতে তিন নম্বর স্থানীয় সতর্কতা সংকেত এর কারণে লাল পতাকা দেয়া হয়েছে, কিন্তু পর্যটকরা এসব কিছু মানছে না। লাল পতাকা উপেক্ষা করে তারা সাগরে নেমে পড়ছে। কোনভাবেই তাদের বন্ধ করে রাখতে পারছেনা।
লাইফগার্ড কর্মী ইয়াসিন বলেন, আমরা সাগরে না নামতে বললে তারা আমাদের মারতে চলে আসে। তারপরও আমরা মাথা ঠাণ্ডা রেখে কাজ করে যাচ্ছি।
সারা বছর পর্যটক থাকায় খুশি পর্যটন ব্যবসায়ীরা। হোটেল প্রাসাদ প্যারাডাইস এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ড. শাহাদাত হোসেন বলেন, বৈরী আবহাওয়া বৃষ্টির মাঝেও আমাদের ভালো বুকিং রয়েছে। সাপ্তাহিক ছুটির দিনগুলোতে প্রায়ই গ্রুপ বুকিং থাকে। অন্যদিনগুলোতে পর্যটকের সংখ্যা ভালো থাকে।
হোটেল দ্যা কক্স টুডে এর ম্যানেজার আবু তালেব শাহ বলেন, পুরো সপ্তাহ জুড়েই আমাদের পর্যটকে ঠাসা থাকে। এখন আর মৌসুম নন মৌসুম বলে কোন কথা নেই। সব সময় থাকে পর্যটক।
কক্সবাজার জেলা রেস্টুরেন্ট মালিক সমিতির সহ-সভাপতি কাসেম আলী বলেন, গত ১০ বছরে পর্যটন শিল্পের অনেক বিকাশ ঘটেছে। কক্সবাজার শহরে দেড়শতাধিক রেস্টুরেন্ট এখন খুব ভালো ব্যবসা করছে।
কক্সবাজারের ভারপ্রাপ্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ইকবাল হোসাইন বলেন, টুরিস্ট পুলিশের পাশাপাশি জেলা পুলিশ ও পর্যটকদের নিরাপত্তায় কাজ করছে। হোটেল মোটেল জোনে সার্বক্ষণিক নজরদারি বাড়ানো হয়েছে। সিসি ক্যামেরার মাধ্যমে পর্যটকদের বাড়তি নিরাপত্তা দেওয়া হচ্ছে।
টুরিস্ট পুলিশের পুলিশ সুপার জিল্লুর রহমান বলেন, কক্সবাজার সৈকত ছাড়াও ইনানী হিমছড়ি সহ পর্যটন স্পটগুলোতে পর্যটকদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে অতিরিক্ত টহলের ব্যবস্থা করা হয়েছে।
কক্সবাজারের জেলা প্রশাসক মোঃ কামাল হোসেন বলেন, সরকার দেশের পর্যটনের উন্নয়নে অনেক কাজ করছে। পর্যটকদের জন্য নানা সুযোগ-সুবিধা বৃদ্ধি করা হয়েছে কক্সবাজারে। বীচ ম্যানেজমেন্ট কমিটির পক্ষ থেকে সমুদ্রসৈকতে লাইটিং পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতার আঁকা সহ নানা পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে। ফলে পর্যটকরা এখানে আসতে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করছে। আগত পর্যটকদের জন্য আরো সুযোগ-সুবিধা বৃদ্ধির কাজ চলছে।
কক্সবাজার আবহাওয়া অফিসের সহকারী আবহাওয়াবিদ আবদুর রহমান জানিয়েছেন, বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট লঘুচাপের প্রভাবে সাগর উত্তাল রয়েছে।কক্সবাজার,চট্টগ্রাম, মংলা , ও পায়রা সমুদ্র বন্দরকে ৩ নাম্বার স্থানীয় সতর্কতা সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় কক্সবাজার আবহাওয়া অফিস ১১৫ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করেছে।

সর্বশেষ সংবাদ

২য় বার বিপিএম পদক পাওয়ায় এসপি মাসুদ হোসেনকে মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সংবর্ধনা

কক্সবাজার আসলেন ভূমিমন্ত্রী, ‘অ্যাকশন’ দেখার অপেক্ষায় ভুক্তভোগীরা

রামুতে সত্যপ্রিয় মহাথের’র অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া’র সম্প্রীতি মেলা উদ্বোধন

বাঁচতে চায় ক্যান্সার আক্রান্ত তিন সন্তানের মা ‘জাহানারা’

ঈদগাঁও বাজার কমিটির নির্বাচনে প্রার্থীদের মুক্ত সংলাপ

ঈদগাঁহে ‘৯০ ব্যাচের বহিস্কৃতরা কথিত মিলনমেলা ষড়যন্ত্রে মত্ত’র অভিযোগ

কক্সবাজার ইউনাইটেড স্টুডেন্ট’স ক্লাব শহর কমিটি অনুমোদন

কক্সবাজার সিটি প্রেসক্লাবের সাধারণ সভা ২৯ ফেব্রুয়ারী

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে বেপরোয়া দালাল

একুশের দিনে কাপড়ের তৈরী শহীদ বেদিতে শ্রদ্ধা নিবেদন

ঘুষ দৌরাত্ম্য অভিযুক্ত ৩ সার্ভেয়ার চাকুরী থেকে বরখাস্ত হচ্ছেন রোববার

ব্রাকের ম্যালেরিয়া রোগ নির্মূল প্রকল্পের নামে অর্থ অপচয়ের অভিযোগ

ভাষার জন্য সংগ্রাম করে জীবন দিয়েছেন এমন নজীর পৃথিবীর কোথাও নেই

চকরিয়ায় উগ্রবাদ ও সহিংসতা নিরসনে প্রশিক্ষণ

অসাম্পদায়িক বাংলাদেশ গড়াই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার লক্ষ্য

চকরিয়ায় বিদ্যুৎ স্পৃষ্টে যুবকের মৃত্যু

ডুলাহাজারায় শালিসি বৈঠকে হামলা: মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে দু’সহোদর

সাতকানিয়া-লোহাগাড়ার সমিতির আজীবন সম্মাননাপত্র বিতরণ ও শোকরানা সভা

শেখ হাসিনা ছাত্রী নিবাসে বিদ্যুৎ সংযোগ প্রদানে দীর্ঘসূত্রিতা!

লবণের ন্যায্যমূল্য নিয়ে সরকার বড়ই উদাসীন, ভূমিকাও রহস্যজনক- শাহজাহান চৌধুরী