মুহাম্মদ আবু সিদ্দিক ওসমানী :

রোহিঙ্গা শরনার্থী ক্যাম্পে কর্মরত কক্সবাজার জেলা পুলিশের স্পেশাল ব্রাঞ্চের (এসবি) এসআই মোঃ বোরহান উদ্দিন গত ২৫ আগষ্ট উখিয়া রোহিঙ্গা শরনার্থী ক্যাম্পে রোহিঙ্গা আগমনের দু’বছর পূর্তি উপলক্ষে অনুষ্ঠিত আলোচিত রোহিঙ্গা শরনার্থী সমাবেশে জড়িত থাকার অভিযোগ প্রাথমিক তদন্তে পাওয়া গেছে। মোঃ বোরহান উদ্দিনের বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগের মধ্যে অন্যতম হচ্ছে-সমাবেশ আয়োজনকারীরা তাদের বিভিন্ন কাজে তার মটর সাইকেল ব্যবহার করেছে। এ ছাড়াও তদন্তে তার বিরদ্ধে আরো কিছু অভিযোগ আনা হয়েছে। প্রাথমিক এই তদন্ত প্রতিবেদন উপজেলা প্রশাসন থেকে জেলা প্রশাসন হয়ে দেশের নীতিনির্ধারণী মহলের কাছে ইতিমধ্যে পৌঁছে গেছে। এ তদন্ত প্রতিবেদনের উপর ভিত্তি করে প্রিলিমিনারী এ্যাকশন শুরু হয়েছে। এ প্রতিবেদনের আবার অধিকতর তদন্তও শুরু হয়েছে। পুলিশের স্পেশাল ব্রাঞ্চের এসআই মোঃ বোরহান উদ্দিনের বিষয়ে আনীত অভিযোগের বিষয়ে জেলা স্পেশাল ব্রাঞ্চের সহকারী পুলিশ সুপার (ডিএসবি) মোহাম্মদ শহীদুল ইসলাম সিবিএন-কে বলেন-আমরা তার বিরুদ্ধে উত্থাপিত অভিযোগের বিষয়ে তদন্ত করছি। তদন্তে যদি এসআই মোঃ বোরহান উদ্দিনের বিরুদ্ধে কোন অভিযোগ প্রমানিত হয়, তাহলে অবশ্যই তার বিরদ্ধে অফিসিয়ালি ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তিনি বলেন, অভিযোগের বিষয় সুনিশ্চিত নাহয়ে কাউকে শাস্তি দেয়া সঠিক হবেনা। এএসপি মোহাম্মদ শহীদুল ইসলাম সিবিএন-কে আরো বলেন-আমার চাই, কোন নির্দোষ ব্যক্তির শাস্তি না হউক এবং আবার প্রকৃত দোষী ব্যক্তি শাস্তির আওতায় আসুক। তিনি সিবিএন-কে আরো বলেন-এসআই মোঃ বোরহান উদ্দিন একজন দক্ষ ও দায়িত্বশীল পুলিশ কর্মকর্তা। সে ঝুঁকি নিয়ে জেলা পুলিশকে অনেক সার্ভিস দিয়েছে। দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে অনেকের স্বার্থে আঘাত হতে পারে। সেজন্য হয়তোবা অনেকে শত্রুতামি করে তদন্ত কমিটির প্রতিবেদনে তার নামটা ঢুকিয়ে দিতে পারে। তাই এসআই মোঃ বোরহান উদ্দিনের কার্যাকলাপ আমরা খতিয়ে দেখছি।

এ বিষয়ে উখিয়া থানার ওসি আবুল মনসুরের কাছে জানতে চাইলে তিনি সিবিএন-কে বলেন, এসআই মোঃ বোরহান উদ্দিন যেহেতু এসবি’র আওতাধীন একজন পুলিশ অফিসার, তাই এ বিষয়ে আমি কিছু জানিনা বলে তিনি জানান।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •