মুহাম্মদ আবু সিদ্দিক ওসমানী :

রোহিঙ্গা শরনার্থী ক্যাম্পে কর্মরত এনজিও ‘শেড’ এর অফিস কাম গোডাউন থেকে গত বৃহস্পতিবার ৫ আগস্ট বেলা ১ টার দিকে উদ্ধারকৃত বিপুল পরিমান মালামাল তাদেরকে ফেরত দেওয়া হয়েছে। বৃহস্পতিবার রাতে উখিয়ার ইউএনও মোঃ নিকারুজ্জামান এর কাছে (সোসাইটি ফর হেলথ এক্সটেনশন এন্ড ডেভেলপমেন্ট-SHED) শেড এর কক্সবাজারের নির্বাহী পরিচালক মোহাম্মদ ওমরা জব্দকৃত মালামাল গুলোর ব্যাখামূলক জবাব দিয়ে একটি আবেদন করেন। আবেদনে তিনি তিনটি পৃথক ওয়েবিলের মাধ্যমে আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থা (আইওএম) থেকে উখিয়া উপজেলার জালিয়া পালং ও রাজাপালং ইউনিয়নের স্থানীয় লোকজনকে বিতরণের জন্য তাদেরকে দেওয়া হয়। তবে আইওএম থেকে মালামাল গুলো গ্রহন, জমারাখা ও বিতরণের বিষয়ে উপজেলা প্রশাসনকে কোন ধরনের অবহিত করা হয়নি। তাই আবেদনে শেড কর্তৃপক্ষ তাদের এ ভূলের জন্য ক্ষমা চেয়ে দুঃখ প্রকাশ করেন। এ বিষয়ে আইনের ব্যত্যয় প্রমানিত হলে ইউএনও’র প্রদত্ত যেকোন সিদ্ধান্ত মেনে নেবেন বলে তারা আবেদনে উল্লেখ করেন। শেড এর নিজস্ব প্যাডে করা আবেদনে শেড কর্তৃপক্ষ প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে তাদের বিভিন্ন সেবামূলক কার্যক্রমের বর্ননা দীর্ঘ ফিরিস্তি দিয়ে তুলে ধরেন। আবেদনের সাথে মালামাল সংক্রান্ত প্রয়োজনীয় কাগজপত্রও দাখিল করেন। এই আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে “মালামাল গুলো স্থানীয় জনগোষ্ঠীর মধ্যে বিতরণের জন্য সংরক্ষণ করা হয়েছে। ভবিষ্যতে উপজেলা প্রশাসনকে অবহিত করে প্রকল্প বাস্তবায়নের জন্য নির্দেশনা প্রদান করা হউক। পেশ করুন ডিলিং এসিস্ট্যান্ট” মর্মে আবেদনের উপর উখিয়ার ইউএনও মোঃ নিকারুজ্জামান আদেশ প্রদান করেন। পরে আদেশটি যথাযথ প্রক্রিয়া হয়ে এনজিও শেড কর্তৃপক্ষককে জব্দকৃত মালামাল গুলো ফেরত দেওয়া হয়। বিষয়টি উখিয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয় সুত্র সিবিএন-কে নিশ্চিত করেছেন।
প্রসঙ্গত, উখিয়া উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ফখরুল ইসলাম বৃহস্পতিবার ৫ সেপ্টেম্বর বেলা ১ টার দিকে উখিয়া উপজেলা সদরের রাজাপালং ইউনিয়নের ৫ নম্বর ওয়ার্ডের মালভিটা পাড়ায় অবস্থিত শেড এর অফিসে অভিযান চালিয়ে দা, হন্তী, কোদাল, বেলচা, নিড়ানী, লাটি সহ বিভিন্ন মালামাল উদ্ধার করেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •