জুমআর দিনের যে কাজগুলোর ফজিলত ও মর্যাদা বেশি

ধর্ম ডেস্ক:
মুসলমানদের সপ্তাহিক ইবাদতের দিন ইয়াওমুল জুমআ তথা শুক্রবার। এ দিন মুসলিম উম্মাহ জুমআর নামাজ আদায়ের জন্য নিজেদের আগে থেকেই প্রস্তুত করে নেয়। জুমআর দিন, আগেও ওপরে এমন কিছু কাজ রয়েছে যে গুলো মেনে চলা জরুরি। আর তাতে রয়েছে গুরুত্বপূর্ণ ফজিলত ও সাওয়াব।

মুসলিম উম্মাহ প্রত্যেক শুক্রবার জোহরের সময় জুমআর নামাজ আদায় করে থাকেন। জুমআর দিনের গুরুত্বপূর্ণ ফজিলত ও মর্যাদা লাভে যথাসময়ে এ কাজগুলো আদায় করা। আর তাহলো-

>> নখ-মোচ ও অযাচিত পশম কাটা
প্রত্যেক বৃহস্পতি কিংবা শুক্রবার জুমআর নামাজের আগে উভয় হাত-পা-এর নখ, মোচ, মাথর চুল (বড় হলে) বগল ও নাভীর নিচের অযাচিত লোকগুলো কেঁটে ফেলা।

>> সুরা কাহফ পড়া
জুমাআর দিন নামাজের আগে কিংবা পরে সুরা কাহফ তেলাওয়াত করা। এ নামাজ অনেক ফজিলতপূর্ণ। হাদিসে এসেছে-

– হজরত আবু সাঈদ খুদরি রাদিয়াল্লাহু আনহু রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম থেকে বর্ণনা করেন, যে ব্যক্তি জুমআর দিন সুরা কাহফ পাঠ করবে তার জন্য এক জুমআ থেকে পরবর্তী জুমআ পর্যন্ত নূর হবে।

– হজরত আলি রাদিয়াল্লাহু আনহু বর্ণনা করেন, রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, যে ব্যক্তি জুমার দিন সুরা কাহফ তেলাওয়াত করবে, সে আট দিন পর্যন্ত সব ধরণের ফেতনা থেকে মুক্ত থাকবে। যদি দাজ্জালও বের হয় তবে সে দাজ্জালের ফেতনা থেকেও মুক্ত থাকবে।

– অন্য বর্ণনায় এসেছে, ‘এক জুমআ থেকে পরবর্তী জুমআ পর্যন্ত তার সব গোনাহ মাফ হয়ে যাবে। তবে উল্লিখিত গোনাহ মাফ হওয়ার দ্বারা ছোট গোনাহ উদ্দেশ্য। কারণ ওলামায়ে কেরামের ঐকমত্য যে, কবিরা গোনাহ তওবাহ করা ছাড়া মাফ হয় না।’

>> দোয়া করা
জুমআর দিনের সুবর্ণ সুযোগ নষ্ট না করা। কেননা জুমআর দিন একটি সময় আছে যে সময়ের দোয়া আল্লাহ তাআলা কবুল করে নেন। এর মধ্যে অন্যতম সময় হলো আসর থেকে মাগরিব পর্যন্ত সময়।

>> গোসল করা
জামআর নামাজের জন্য উত্তমরূপে গোসল করা। প্রিয় নবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, তোমাদের মধ্যে যে জুমআর নামাজ পড়বে সে যেন গোসল করে নেয়।

>> মেসওয়াক করা
জুমআর দিন নামাজের আগে উত্তমরূপে মেসওয়াক করা। অর্থাৎ জামআর নামাজের উদ্দেশ্যে একটু সময় নিয়ে মেসওয়াক করা। যাতে মুখ থেকে কোনো দুর্গন্ধ বের না হয়।

>> পরিচ্ছন্ন পোশাক পড়া
জামআর নামাজ পড়তে উত্তম ও পরিচ্ছন্ন জামা-কাপড় পরা। জামা-কাপড় পরিপাটি হওয়া।

>> সুগন্ধি ব্যবহার
জুমআর নামাজের উদ্দেশ্যে গোসল করে উত্তম পোশাক পরে সুগন্ধি ব্যবহকার করা।

>> মসজিদে যাওয়া
জুমআর দিন আগে আগে মসজিদে যাওয়া আবশ্যক। কেননা যে যত আগে মসজিদে যাবে তার জন্য রয়েছে তত বড় ফজিলত। যা উট কুরবানির সাওয়াব দিয়ে শুরু হয়। যার শেষ হয় একটি ডিস সাদকার সাওয়াব দিয়ে।

>> জুমআর নামাজ
যথাসময়ে জুমআর নামাজ আদায় করা। আল্লাহ তাআলা ঘোষণা করেন, ‘হে ঈমানদাররা! যখন জুমআর দিন নামাজের জন্য আহ্বান করা। তখন তোমরা ব্যবসা-বাণিজ্য ছেড়ে দিয়ে আল্লাহর স্মরণে (দ্রুতগতিতে মসজিদের দিকে) ধাবিত হও।’

>> বেশি বেশি দরূদ পড়া
জুমআর দিন প্রিয় নবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের প্রতি বেশি বেশি দরূদ পড়া আবশ্যক। হাদিসে এসেছে-

হজরত আওস ইবনে আওস রাদিয়াল্লাহু আনহু বর্ণনা করেন, রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, তোমাদের সবদিন অপেক্ষা জুমআর দিনটিই হলো শ্রেষ্ঠ। এ দিনে হজরত আদম আলাইহিস সালামকে সৃষ্টি করা হয়েছে। এ দিনেই তাঁর মৃত্যু হয়েছে। এ দিনেই বিশ্ব ধ্বংসের জন্য শিঙ্গায় ফুঁক দেয়া হবে এবং এ দিনের পুনর্জীবিত করার জন্য দ্বিতীয়বার ফুঁক দেয়া হবে। আর এ দিন তোমরা আমার প্রতি বেশি বেশি দরূদ পাঠ কর।

তোমাদের দরূদ নিশ্চয় আমার কাছে উপস্থিত করা হবে। সাহাবাগণ জিজ্ঞাসা করলেন, হে আল্লাহর রাসুল! (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম) আমাদের দরূদ আপনার কাছে কেমন করে উপস্থিত করা হবে অথচ আপনি তখন মাটি হয়ে যাবেন?

রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উত্তরে বললেন, ‌আল্লাহ তাআলা নবিদের শরীর জমিনের জন্য হারাম করে দিয়েছেন।’ (আবু দাউদ, নাসাঈ, ইবনে মাজাহ, বায়হাকি)

>> মসজিদে হেঁটে যাওয়া
জুমআর দিন মসজিদে হেঁটে হেঁটে যাওয়া। বাড়ি থেকে মসজিদের দূরত্ব যতবেশি মসজিদে গমনকারী ওই ব্যক্তির জন্য ততবেশি ফজিলত। কেননা মসজিদের দিকে প্রতিটি পদক্ষেপে বান্দার গোনাহ ক্ষমা করা হয় এবং পদমর্যাদা বৃদ্ধি করা হয়। হাদিসে এসেছে-

>> ইমামের খোতবা শোনা
জুমআর দিন গুরুত্বসহকারে ইমামের খোতবা শোনা জরুরি। ইমামের খোতবার সময় নিশ্চুপ থেকে খোতবা শোনার কথা বলেছেন বিশ্বনবি। এমনকি কোনো ব্যক্তি যেন অন্যের কথার বলার সময় তাকে ‘চুপ করুন’ শব্দও না বলে।

আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে জুমআর দিনের ফজিলত ও সাওয়াব লাভে উল্লেখিত কাজগুলো যথাযথ আদায় করার তাওফিক দান করুন। আমিন।

সর্বশেষ সংবাদ

এস কে সিনহাসহ ১১ জনের বিরুদ্ধে চার্জশিট

রোহিঙ্গা গণহত্যার ১ম দিনের শুনানি শেষ, যা জানানো হলো আদালতকে

চট্টগ্রাম-৮ আসনে উপনির্বাচনে বিএনপির প্রার্থী আবু সুফিয়ান

টিসিবি’র পেঁয়াজে রাঙামাটির বাজারে স্বস্তি, ক্রেতাদের ভিড়

কক্সবাজার জেলা ফুটবল লীগ উদ্বোধন

সিএমপি’র ৪১তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপিত হবে ১১ ডিসেম্বর

খরুলিয়ায় প্রবাসীর স্ত্রীকে শ্লীলতাহানি ও মারধর করে দোকান দখল

লোহাগাড়ায় বিশ্ব মানবাধিকার দিবস পালিত

জনগণের ভ্যাটেই দেশ উন্নয়নে এগিয়ে যাবে -মেয়র নাছির

ঈদগাঁওতে দুই ছাত্রীকে যৌন নিপীড়নের অভিযোগে প্রধান শিক্ষক আটক

পেকুয়ায় আন্তর্জাতিক মানবাধিকার দিবস উদযাপন

শাপলাপুরে হবে ত্রিমূখী লড়াই

রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন করে মিয়ানমারে গণহত্যার প্রমাণ পেয়েছি-গাম্বিয়া

কক্সবাজারে উৎপাদিত পণ্যে ’মেড ইন কক্সবাজার’ নামে ব্রান্ডিং করার পরামর্শ ব্যবসায়ীদের

হেগের আন্তর্জাতিক আদালতে রোহিঙ্গা গণহত্যার শুনানি শুরু

মহেশখালীতে বিপুল পরিমাণ মালামালসহ অস্ত্র কারীগর গ্রেফতার

কক্সবাজারে ৬ লাখ ৩৫ হাজার জনকে দেয়া হচ্ছে কলেরা টিকা

মানবাধিকার বিড়ম্বনায় কেরামত আলী

পেকুয়ায় ভাই ও ছোট ভাইয়ের স্ত্রীকে পিটিয়ে জখম, বাড়ি ভাংচুর

ভিপি নুরের বিরুদ্ধে মানহানির মামলা