এ কে এম ইকবাল ফারুক, চকরিয়া:
চকরিয়ায় বর্ণাঢ্য আয়োজনে উদ্বোধন করা হয়েছে জাতির শেখ মুজিবুর রহমান জাতীয় গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্ণামেন্ট বালক (অনুর্ধ-১৭)। বুধবার (৪ সেপ্টেম্বর) বিকালে পৌর সদরের মগবাজারস্থ শেখ রাসেল মিনি স্টেডিয়ামে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে এ টুর্ণামেন্টের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন কক্সবাজার-১ (চকরিয়া-পেকুয়া) আসনের সাংসদ আলহাজ্ব জাফর আলম। উদ্বোধনী খেলায় অংশ নেন ডুলাহাজারা ইউনিয়ন পরিষদ ও বদরখালী ইউনিয়ন পরিষদ টিম। এতে টাইব্রেকারে ৫-৩ গোলে হারিয়ে বিজয়ী হয় বদরখালী ইউনিয়ন পরিষদ টিম।

খেলা শুরুর পূর্বে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নুরুউদ্দিন মুহাম্মদ শিবলী নোমান এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উদ্বোধনীয় অন্ষ্ঠুানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন কক্সবাজার-১ (চকরিয়া-পেকুয়া) আসনের সাংসদ আলহাজ্ব জাফর আলম। এ সময় তিনি বলেন, চকরিয়ায় শেখ রাসেল মিনি ষ্টেডিয়ামে অচিরে একটি ভবন করা হবে। এছাড়া এখানে শেখ রাসেল প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করা হবে।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, চকরিয়া উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ্ব ফজলুল করিম সাঈদী, চকরিয়া পৌরসভার মেয়র আলমগীর চৌধুরী, উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) তানভির আহমদ, চকরিয়া প্রেসক্লাবের সভাপতি এম জাহেদ চৌধুরী, উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা হামিদ উল্লাহ মিয়া, চকরিয়া থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) এ কে এম সফিকুল আলম চৌধুরী ও চকরিয়া কেন্দ্রীয় হাই স্কুল পরিচালনা পরিষদের সভাপতি সিরাজ আহমদ। এছাড়া আরও বক্তব্য রাখেন, কাকারা ইউপি চেয়ারম্যান শওকত ওসমান, ডুলাহাজারা ইউপি চেয়ারম্যান নুরুল আমিন, বদরখালী ইউপি চেয়ারম্যান খাইরুল বশর ও উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি শওকত হোসেন প্রমুখ।

বুধবার শুরু হওয়া উদ্বোধনীয় খেলায় ডুলাহাজারা ও বদরখালী দলের মধ্যে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হয়। নির্ধারিত পঞ্চাশ মিনিটে কোন পক্ষই বল জালে পাঠাতে পারেনি। ফলে খেলা গড়ায় টাইব্রেকারে। এতে টাইব্রেকারে ৫-৩ গোলে হারিয়ে বিজয়ী হয় বদরখালী ইউনিয়ন পরিষদ টিম। খেলা শেষে ম্যাচ সেরার পুরস্কার পান বদরখালীর রবিউল হাসান আজগর। খেলা পরিচালনা করেন (রেফারি) শেখ আহমদ, এরফান উদ্দিন ও মো. মাসুম।

এ টুর্ণামেন্টে বৃহস্পতিবার থেকে তিনটি করে ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে। খেলার ফাইনাল ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে ১২ সেপ্টেম্বর। এছাড়া একই মাঠে বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব জাতীয় গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্ণামেন্ট বালিকা (অনুর্ধ ১৭) অনুষ্ঠিত হবে।

প্রসঙ্গত: উপজেলার একটি পৌরসভা ও ১৮টি ইউনিয়নে ১৯টি দল নিয়ে টুর্ণামেন্টটি অনুষ্ঠিত হচ্ছে। সরাসরি দ্বিতীয় পর্বে খেলবে তিনটি দল। নক আউট পদ্বতির এ খেলায় ১৬টি দল পরস্পরের বিরুদ্ধে মোকাবেলা করবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •