আমাকে ইয়াবা ব্যবসায়ী বানিয়ে এবং বাল্য বিয়ের জন্য কিশোরীকে অপহরণের অভিযোগ তুলে একটি অনলাইন পত্রিকায় প্রকাশিত সংবাদটি আমার দৃষ্টিগোচর হয়েছে। সংবাদটি সম্পূর্ণ মিথ্যা, বানোয়াট, ভিত্তিহীন, উদ্দেশ্যপ্রণোদিত ও ষড়যন্ত্রমূলক।
প্রকৃত ঘটনা হচ্ছে- আমি ছাত্র হলেও প্রাপ্ত বয়স্ক। তেমনিভাবে আমার স্ত্রীও প্রাপ্ত বয়স্ক। তার সাথে আমার প্রেমের সম্পর্ক ছিলো দীর্ঘদিনের। এতদিন সে প্রাপ্ত বয়স্ক না হওয়ায় আমরা বিয়ের পিঁড়িতে বসিনি। সে প্রাপ্ত বয়স্ক হওয়ার আমরা স্বজ্ঞানে ও কারো প্ররোচনা ছাড়া বিয়ের বন্ধনে আবদ্ধ হচ্ছি। আমাদের বিয়েতে দুই পরিবারের সম্মতিও আছে।

অন্যদিকে বিয়ের ঘটনার আঁড়ালে আমাকে ইয়াবা ব্যবসায়ী হিসেবেও সংবাদে উপস্থাপন করা হয়েছে। কিন্তু দৃঢ়তার সাথে বলছি, আমি কোনোভাবেই ইয়াবা ব্যবসার সাথে জড়িত নেই।

আমার জানা মতে, জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে আমার এলাকার একটি প্রতিপক্ষ দীর্ঘদিন ধরে আমাদের সাথে নানাভাবে ষড়যন্ত্রে লিপ্ত রয়েছে। শুধু তাই নয়; তারা আমার মা, দুইভাইয়ের উপর নির্মমভাবে হামলা করেছিল। হামলায় মারাত্মক আহত হয়ে তারা দীর্ঘদিন কক্সবাজার সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলো। সেই ঘটনার পর নতুন করে ষড়যন্ত্র চালিয়ে যাচ্ছে ওই প্রতিপক্ষ। এর অংশ হিসেবে সাংবাদিকদের মিথ্যা তথ্য সরবরাহ করেছে। সাংবাদিক ভাইদের কাছে আমার অনুরোধ- আপনারা যাচাই-বাছাই করে সঠিক সংবাদ প্রকাশ করবেন।

পরিশেষে আমি আমার বিরুদ্ধে প্রকাশিত সংবাদগুলোর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি এবং এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট কাউকে বিভ্রান্ত না হওয়ার অনুরোধ করছি।

প্রতিবাদকারী
জালাল উদ্দীন
পিতা- আবুল হোসেন, প্রকাশ আবু, বড়লেচুয়াপ্রাং, হ্নীলা, টেকনাফ।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •