প্রেস বিজ্ঞপ্তি:
কক্সবাজারের নিম্ন ও মধ্যবিত্ত শ্রেণির মাতৃ ও শিশু স্বাস্থ্যসেবায় অগ্রণী অবদান রেখে যাচ্ছে হোপ ফাউন্ডেশন। দীর্ঘদিন ২০টি বছর এই সেবা কার্যক্রম অব্যাহত রেখে কক্সবাজার জেলার স্বাস্থ্য ক্ষেত্রে ব্যাপক সুনাম ও গ্রহণযোগ্যতা অর্জন করেছে স্বাস্থসেবার এই প্রতিষ্ঠানটি। এর ধারাবাহিকায় রামু উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা নিতে আসা দুস্থ গর্ভবতী মায়েদের জন্য গর্ভকালীন সেব্য ভিটামিন ট্যাবলেট ও চর্মরোগের প্রতিষেধক ভ্যাসেলিন দিয়েছে হোপ ফাউন্ডেশন কর্তৃপক্ষ।

শনিবার দুপুরে বেশ পরিমাণ ভিটামিন ট্যাবলেট ও ভ্যাসেলিন উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা মিজবাহ উদ্দীনের
হাতে হস্তান্তর করেন হোপ ফাউন্ডেশনের কান্ট্রি ডিরেক্টর কেএম জাহিদুজামান। এসময় উপস্থিত ছিলেন হোপ হাসপাতালের প্রধান মেডিকেল কর্মকর্তা মোঃ ইসমাঈল ইদ্রিস।

এ ব্যাপারে হোপ ফাউন্ডেশনের কান্ট্রি ডিরেক্টর কেএম জাহিদুজামান বলেন, ‘হোপ মাতৃ ও শিশুদের স্বাস্থ্যসেবায় হোপ ফাউন্ডেশন সব সময় সহযোগিতা দিতে প্রস্তুত রয়েছে। এর অংশ হিসেবে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে এক হাজার বোতল ভিটামিন ট্যাবলেট দেয়া হয়েছিলো। এবার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে দেয়া হলো। এক বোতল ভিটামিন একজন গর্ভবতী ছয়মাস সেবন করতে পারবে। অন্যদিকে চর্মরোগের প্রতিষেধকের ভ্যাসেলিন ক্রিম দেয়া হয়েছে।’

উল্লেখ্য, কক্সবাজারের কৃতিসন্তান আমেরিকা প্রবাসী চিকিৎসক ইফতিখার মাহমুদ মিনারের প্রতিষ্ঠিত হোপ ফাউন্ডেশন কক্সবাজারের মা ও শিশু স্বাস্থ্য সেবায় ২০ বছর ধরে কাজ করে যাচ্ছে। এই প্রতিষ্ঠানের রামুর চেইন্দায় অবস্থিত হোফ হসপিটাল এবং জেলার বিভিন্ন দুর্গম এলাকায় অবস্থিত হোপ বার্থ সেন্টারগুলো দুস্থ নারী ও শিশুদের সেবায় অগ্রণী ভূমিকা রেখে যাচ্ছে। এই সেবার মাধ্যমে ইতোমধ্যে হোপ ফাউন্ডেশন সরকারি ও বেসরকারি মহলে বেশ সাড়া ও সুনাম অর্জন করেছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •