মুহাম্মদ মনজুর আলম ,চকরিয়া :

কক্সবাজারের চকরিয়ায় উপজেলা প্রশাসনের দাপ্তরিক কাজের পাশাপাশি বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষকতা করছেন চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও ) নুরুদ্দীন মো. শিবলী নোমান। তিনি রুটিন করে উপজেলার ১৮টি ইউনিয়ন ও ১টি পৌরসভার প্রতিটি স্কুল-কলেজে ক্লাস নিচ্ছেন এখন। বর্তমানে চকরিয়াবাসির মুখে প্রচারিত হচ্ছে একটি উক্তি- “চকরিয়ার ইউএনও শুধু প্রশাসক নন, একজন শিক্ষকও।”

ইউএনও উপজেলা প্রশাসনের দাপ্তরিক কাজ শেষে সময় পেলেই ক্লাস নিতে ছুটে যান বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে। তিনি মনে প্রাণে বিশ্বাস করেন সুশিক্ষা ছাড়া কোনো জাতী কোথাও মাথা উঁচু করে দাঁড়াতে পারেন না। পাশাপাশি বর্তমান সরকারের শিক্ষানীতিকে জনগণের কাছে পৌঁছে দেয়ার জন্য সর্বোচ্চ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন তিনি। কারণ বর্তমান সরকার শিক্ষার আলো ছড়িয়ে দিচ্ছে গ্রামে-গঞ্জে। শিক্ষার গুরুত্বকে কাজে লাগিয়ে দেশকে এগিয়ে নিতে বদ্ধপরিকর বর্তমান সরকার। তার ধারাবাহিকতায় ইউএনও শিবলী নোমান শিক্ষার আলো নিয়ে ছুটে বেড়ান চকরিয়া উপজেলার প্রতিটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে।

নিজের ব্যক্তিগত পরিকল্পনায় প্রতিদিন একেকটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ক্লাস নেন তিনি। এর ধারাবাহিকতায় ২৮ আগস্ট বুধবার সকালে ছুটে যান চকরিয়া সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ে। ঐ বিদ্যালয়ে পৌঁছে শিক্ষকদের সাথে বিভিন্ন বিষয়ে কথা বলেন এবং বিভিন্ন শ্রেণিতে নিজেই ক্লাস নেন। পুরো ক্লাসে শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন অজানা বিষয়ের উপর পাট দান প্রদান করেন তিনি।

ইউএনও নুরুদ্দীন মো. শিবলী নোমান বলেন, আমি শিক্ষকতা পেশাকে সর্বোচ্চ সম্মান দিয়ে থাকি। তাই আমি প্রতিনিয়ত বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ক্লাস নিতে ছুটে যাই। প্রশাসনিক কাজের বাইরে রুটিন করে স্কুল-কলেজে নিয়মিত ক্লাস নিচ্ছি। অর্জিত জ্ঞান বিতরণ করে আমি মনেও শান্তি পাই।

তিনি আরো বলেন- পাঠ্যবইয়ের বাইরে বাল্যবিয়ে, ইভটিজিং ও মাদকের কুফল সম্পর্কে শিক্ষার্থীদের সচেতন করার চেষ্টা করি। এসময় স্কুলের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক এনামুল হক তাঁর সাথে ছিলেন। তিনি বলেন, স্কুল-কলেজে গিয়ে পাঠদান করা ইউএনও স্যারের একটি ব্যতিক্রমী উদ্যোগ। এতে শিক্ষার্থীরা অনেক বেশী উপকৃত হয় ।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •