ইমাম খাইর, সিবিএন (বরিশাল থেকে):

আজকালের ছেলেমেয়েদের প্রেমের ক্ষেত্রে একটা কথা খুবই প্রচলিত- প্রথম দিনে হাই, দ্বিতীয় দিনে হ্যালো, তৃতীয় দিনে দুষ্ট আর চতুর্থ দিনে অসভ্য!
ইঁচড়ে পাকা বাচ্চাদের এমন প্রেম প্রেম খেলার নানান কাহিনী বরিশালের যে বিদগ্ধ জায়গা নীরবে বুকে ধারণ করে আছে- তা হলো ‘৩০ গোডাউন।’
যেটি দেখার মতো জায়গা, একটি শুটিং স্পট হিসেবেও পরিচিত।
বরিশাল শহর থেকে অটোরিক্সাযোগে অতি অল্প সময়ে যাওয়া সম্ভব।
এখান থেকে কীর্তনখোলা নদীতে নৌকা ভ্রমনের সুবিধাও রয়েছে।
জলবায়ু ফোরামের তিনদিনের প্রশিক্ষণের দ্বিতীয় দিন শুক্রবার (২৩ আগস্ট) বিকেলের বিরতিতে আমরা কক্সবাজারের ৫ জন গেলাম ৩০ গোডাউন দেখতে। অটোরিকশাযোগে পৌঁছলাম বিকাল সাড়ে ৫ টার দিকে।
স্থানীয়দের সাথে কথা বলে যতটুকু জানলাম, ৩০ গোডাউন হলো বরিশালে কীর্তনখোলা নদীর পাড়ে বিরাট এক জায়গা, যেখানে অনেকগুলো গোডাউনে নানান পণ্য সংরক্ষণ করা হয়। তবে সেখানে আদৌ ৩০ টা গোডাউন আছে কিনা, নিশ্চিত কেউ জানাতে পারেনি।
গোডাউনের গেটের পাশ থেকে বামদিকে একটা রাস্তা নদীর পাড়ে গিয়ে শেষ হয়েছে। আরেকটা রাস্তা সোজা চলে গিয়েছে। চিন্তা করলাম যাই আগে সোজা রাস্তায় ঘুরে আসি। সোজা রাস্তা ধরে কিছুদূর এগোতেই দেখলাম একটা ছোট ব্রিজ।
নদীর পানি কিন্তু ময়লাক্ত। কক্সবাজার সমুদ্রের পানির স্বচ্ছতার তুলনায় মেলাতে পারলামনা। নদীর কচুরিপানা এলোমেলো ছুটে চলেছে। তার বুকের উত্তাল যৌবনে মাঝির ছোট নৌকাগুলো উপরে উঠছে আবার নিচে নামছে। এভাবে দেখতে দেখতে সন্ধ্যা নেমে এলো। ফিরলাম নির্ধারিত ভেন্যুতে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •