প্রত্যাবাসনের জন্য কাউকে না পাওয়াটা দুঃখজনক : পররাষ্ট্রমন্ত্রী

নিউজ ডেস্ক:
পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন বলেছেন, প্রত্যাবাসনের জন্য কাউকে না পাওয়াটা দুঃখজনক, তবে প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়া বন্ধ হয়ে যায়নি, আগামীতেও চলবে। কাউকে পাওয়া গেলে পাঠানো হবে।

তিনি বলেন, আমরা আশা করেছিলাম আজ থেকে স্বল্প আকারে হলেও প্রত্যাবাসন শুরু হবে। তবে এখন পর্যন্ত রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন শুরু হয়নি। কিন্তু আমরা আশা ছাড়িনি। আমরা এখনো প্রত্যাবাসন ইস্যুতে আশায় বুক বেঁধে আছি। আজকের বিষয়টি দুঃখজনক। পরবর্তী সময়ে কী করব, আমরা বসে সিদ্ধান্ত নিয়ে জানাব।

বৃহস্পতিবার দুপুর আড়াইটার দিকে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন তিনি।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, যারা প্রত্যাবাসন ঠেকাতে প্রচার চালিয়েছে, তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। রোহিঙ্গাদের আরামের জীবন থেকে আরাম কমানো হবে, যাতে তারা ফিরতে রাজি হয়।

রোহিঙ্গা সমস্যা মিয়ানমারের সৃষ্টি এবং এ সংকটের সমাধান তাদের কাছেই উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, আমরা জোর করে কাউকে পাঠাব না। আমরা স্বেচ্ছায় নিরাপদ প্রত্যাবাসন চাই। রোহিঙ্গা সংকটের মূলে আস্থার অভাব রয়েছে। এজন্য আমরা সবশেষ চতুর্থ ওয়ার্কিং গ্রুপের বৈঠকে প্রস্তাব করেছিলাম, আস্থা তৈরির জন্য কক্সবাজারের একাধিক শিবিরে যেসব রোহিঙ্গা মাঝি বা নেতা রয়েছেন তাদের রাখাইন নিয়ে ঘুরিয়ে দেখানো হোক, যেন রোহিঙ্গাদের মধ্যে আস্থার যে অভাব আছে তা দূর হয়।

তিনি আরও বলেন, রোহিঙ্গাদের মিয়ানমারে ফিরে না যাওয়ার জন্য শিবিরগুলোতে অনেক বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা প্রচারণা চালাচ্ছে। চিহ্নিত করে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে ঢাকার পরবর্তী পদক্ষেপ সম্পর্কে মন্ত্রী আরও বলেন, আমরা এখন চিন্তা করেছি, রোহিঙ্গা সংকট সমাধানের জন্য একটি কমিশন গঠন করব, যেখানে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের প্রতিনিধিরা থাকবেন।

সর্বশেষ সংবাদ

মোদিকে দেওয়া রাষ্ট্রীয় আমন্ত্রণ বাতিলের দাবি আহমদ শফীর

একাদশে ভর্তির আবেদন শুধুই অনলাইনে, শুরু ১০ মে

চসিকে তিন মেয়র প্রার্থীর হলফনামায় যত সম্পদ!

জমি দখল করতে না পারায় ফাঁসানো হলো ভিন্ন মামলায়!

বিদ্যুতের দাম ৫ দশমিক ৩ শতাংশ বাড়লো

মুক্তিযোদ্ধা নূরুল আলম চেয়ারম্যানের তৃতীয় মৃত্যুবার্ষিকী ২৮ ফেব্রুয়ারি

চকরিয়ায় কলেজ ছাত্রীকে উত্যক্ত, বখাটের ছয় মাসের কারাদন্ড

কোনো শিশুকে যেন ঝুঁকিপূর্ণ কাজে নিয়োগ দেওয়া না হয়

ঈদগড় মেডিকেল সেন্টার এন্ড হাসপাতালে ফ্রি চিকিৎসাসেবা

দিল্লির সহিংসতা ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয়, মুসলিম বিশ্বের নাক না গলানোই ভাল : ট্রাম্প

ঈদগড়ে ইয়াবা সহ আটক-১

আওয়ামীলীগের মুখে গণতন্ত্র , মনে মনে স্বৈরতন্ত্র : লুৎফুর রহমান কাজল

রামুতে পন্ডিত সত্যপ্রিয় মহাথের’র জাতীয় অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া অনুষ্ঠান শুরু

তানযীমুল উম্মাহ হিফয মাদরাসায় ট্যালেন্টপুলে ১২ জনের বৃত্তিসহ শতভাগ পাশ

অভিনব পন্থায় চলছে মহেশখালী পল্লী বিদ্যুৎ অফিসের দুর্নীতি

কক্সবাজার সিটি কলেজ বন্ধু সভার পাঠচক্র অনুষ্ঠিত

`করোনাভাইরাস’- কল্পনা করতে গা শিউরে ওঠে!

কক্সবাজারের এলএ শাখার ৩০ কর্মকর্তাকে বদলী

শুদ্ধ সুরে জাতীয় সঙ্গীত গাইলো রাঙামাটির শিক্ষার্থীরা

বিদ্যুতের দাম আবার বাড়ল