মোঃ ফারুক, পেকুয়াঃ

পেকুয়ায় পুকুরের পানিতে ডুবে বেলি আকতার রুছি নামের এক শিক্ষার্থীর মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে।
তিনি সদর ইউনিয়নের শেখের কিল্লা ঘোনা এলাকার মকসুদ আহমদের মেয়ে ও জিয়াউর রহমান কলেজের এইচএসসি ১ম বর্ষের শিক্ষার্থী। বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার দিকে পারিবারিক পুকুরে এ ঘটনা ঘটে।
আবুল কাশেম নামের এক প্রত্যক্ষদর্শী বলেন, মকসুদ আহমদের পুকুরটি একদম ছোট। পানিও বয়স্ক মানুষের গলা পর্যন্ত। আমি রাস্তা দিয়ে হেটে যাওয়ার সময় দেখতে পায় এক মেয়ে পুকুরে ডুব দিচ্ছে। মেয়ে গোসল করতেছে চিন্তা করে কিছুদূর হেটে যায়। পিছনে ফিরে থাকালে পানির উপর তার চুল গুলো দেখতে পায়।
দ্রুত আমি আনছারকে এ বিষয়ে অবগত করি।
তাকে মৃত অবস্থায় পুকুর থেকে উত্তোলন করা একই এলাকার আনছার উদ্দিন বলেন, স্থানীয় কয়েকজন ব্যক্তি আমাকে খবর দেন মকসুদ আহমদের মেয়ে পুকুরে ডুবে মারা যাচ্ছে। আমি দ্রুত গিয়ে তাকে পুকুর থেকে উত্তোলন করি। এ সময় তাদের বাড়ির কোন সদস্য ছিলনা। পরে ডাক্তারের কাছে নিয়ে গেলে তাকে মৃত ঘোষনা করা হয়।
পিতা মকসুদ আহমদ বলেন, আমার খুব আদরের মেয়ে ছিল বেলি আকতার রুছি।
প্রতিদিন মেয়েকে কলেজে আমি দিয়েও আসি আর নিয়েও আসি। সে সকালে কোচিং করতে চৌমহুনীতে যায়। কলেজে যাবেনা একথা বললে আমি বাড়িতে চলে যায়। তার মা মেয়ের জন্য একটি ওড়না কিনতে পেকুয়া বাজারে যায়। সবার অগোচরে মেয়ে পুকুরে গোসল করতে নামে। গোসল করতে নামল আর মৃত অবস্থায় স্থানীয়রা উদ্ধার করলো। পানিও কম ছিল তারপরও জানিনা কেন এমন হল।
এদিকে তার মর্মান্তিক মৃত্যুর খবরে তার সহপাঠি, শিক্ষক ও এলাকাবাসীর মাঝে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। সবার কান্নার শব্দে এলাকার পরিবেশ ভারি হয়ে ওঠেছে। এলাকাবাসীরা তার আত্মার মাগফেরাত কামনা করেছে। বৃহম্পতিবার সাড়ে ৫টায় পারিবারিক কবরস্থারে তার দাফন সম্পন্ন হবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •