জে.জাহেদ, চট্টগ্রাম :

চট্টগ্রাম কোতোয়ালী থানা পুলিশের হাতে আটক হয়েছে এক মোবাইল প্রতারক চক্রের সদস্য।

যিনি অভিনব পদ্ধতি’তে হোম সার্ভিসের নামে প্রথমে বাসায় পরে হোটেলে এমনকি বিকাশে পেমেন্ট করার কথা বলে নগরীর বিভিন্ন দোকান থেকে দামি দামি মোবাইল সেট হাতিয়ে নিতেন।

গ্রেপ্তারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কোতোয়ালি থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মুহাম্মদ মুহসীন।

গ্রেপ্তারকৃত আসামী হলেন – মোঃ রুবেল (২৭) সে হবিগঞ্জ জেলার বানিয়াচং থানার শাহাপুল গ্রামের মৃত তাইজুল ইসলামের পুত্র। যিনি বর্তমানে নগরীর হোটেল গার্ডেন সিটিতে থাকেন বলে জানা যায়।

এজাহারে ঘটনা ও পুলিশ সুত্রে জানা যায়, গত ৩১ জুলাই রাত ১০টার দিকে নতুন ষ্টেশনের নিউ এ্যাম্পোরিয়াম শো-রুম হতে মো. রুবেল নামে আসামী একটি মোবাইল সেট কিনতে আসে। পরে পছন্দ করেন ভিভো-ওয়াই-১৫ এবং সে সেটটি হোম ডেলিভারী সার্ভিস নিতে চান।

কথামতো মোবাইল সেটটি তার নিকট হস্তান্তর করার জন্য কথিত বাসা রিয়াজউদ্দিনের বাজারের উদ্দেশ্য পিছে পিছে রওয়ানা হন ব্যবসায়ি। পথিমধ্যে আসামি বাসায় যেতে হবে না বলে হোটেল রুমে মোবাইল বিল পরিশোধ করার কথা জানিয়ে নগরীর হোটেল গার্ডেন সিটি রুম নং-৪০৫ এ নিয়ে যান।

এরপর মোবাইল বিক্রেতা থেকে রুমে মোবাইলটি নেয় এবং টেস্ট করার জন্য প্রতারক আসামির একটি সীম মোবাইলে প্রবেশ করান। পরবর্তীতে বিকাশের মাধ্যমে পরিশোধ করিবে বলে বিক্রেতাকে রুমে অপেক্ষামান রেখে নিচে চলে যায়। দীর্ঘ সময় পর আসামী উপরে না আসায় কল করলে মোবাইল ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।

ফোন বন্ধ পাওয়ায় বিক্রেতা বুঝতে পারেন সে একজন চোর, প্রতারক চক্রের সদস্য। মোবাইল সেটটি কৌশলে প্রতারণার মাধ্যমে আত্মসাৎ হয়েছে।

একই পদ্ধতিতে ৬ আগষ্ট বিকাল ৪ টায় আসামী পুনরায় একই প্রক্রিয়ায় চকবাজারের ভিভো কোম্পানীর অপর একটি শো-রুমে মোবাইল ক্রয় করতে গেলে পুলিশকে খবর দিয়ে ব্যবসায়িরা তকে আটক করেন।

কোতোয়ালি থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মুহাম্মদ মুহসীন জানান, আসামি মোঃ রুবেল প্রতারণাপূর্বক মোবাইল ফোন আত্মসাৎ করার কথা স্বীকার করে ও ফোনটি উদ্ধার করে মামলা দায়ের করা হয়েছে।’

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •