পেকুয়া প্রতিনিধি:

কক্সবাজারের পেকুয়ায় মাদ্রাসা হোস্টেলে বহিরাগত লোকজন ঢুকে শিক্ষার্থীদের উপর হামলার বিচারের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন করেছে আজগরীয়া মেহেরুল উলুম ইসলামীয়া দাখিল মাদ্রাসার শিক্ষক শিক্ষার্থীরা।

সোমবার (৫ আগস্ট) দুপুর ১২টার দিকে রাজাখালী ইউনিয়নের আমিন বাজার সড়কে এ বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। মিছিলে উপস্থিত শিক্ষক শিক্ষার্থীরা হামলার ঘটনার বিচার দাবীতে বিভিন্ন শ্লোগান দেন।

এ বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধনে আজগরীয়া মেহেরুল উলুম ইসলামীয়া দাখিল মাদ্রাসার সুপার মোহাম্মদ জাহেদ হোছাইন, সহকারী সুপার আব্দুল করিম, শিক্ষক মাওলানা নুরুল কবির, মাওলানা নুর মোহাম্মদ, সহকারী শিক্ষক শের আলম, সুজাউর রহমান, মাওলানা মোহাম্মদ হোছাইন, জাহাংগীর আলম, এস এম এরফান উদ্দিন ও হারুন অর রশিদসহ মাদ্রাসার বিভিন্ন শ্রেণীর তিন শতাধিক শিক্ষার্থী উপস্থিত ছিলেন।

প্রসঙ্গত ফুটবল খেলার তর্কের জের ধরে শনিবার (৩আগস্ট) রাত সাড়ে ১০টার দিকে মাদ্রাসার হোস্টেলের ঘুমন্ত শিক্ষার্থীদের উপর দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে হামলা চালায় স্থানীয় বাসিন্দা আনোয়ার, নুরুজামাল, ফোরকান, নজরুল ও আবছারের নেতৃত্বে একদল দুর্বৃত্ত। এসময় হামলাকারীরা শিক্ষার্থীদের বেধড়ক পিটিয়ে রক্তাক্ত জখম করে। এতে শিক্ষার্থীদের মাথা ও শরীরের বিভিন্ন জায়গায় গুরুতর জখম হয়। স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। বর্তমানে তারা সেখানে চিকিৎসাধীন আছে।

মানববন্ধনের সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে মাদ্রাসার সুপার জাহেদ হোছাইন বলেন, আমরা এই অবহেলিত এলাকার ছেলে মেয়েকে সুশিক্ষিত হিসাবে গড়ে তুলতে পরিশ্রম করে যাচ্ছি। এলাকার শিক্ষার মানোন্নয়নে ও শিক্ষার্থীদের মেধার বিকাশে আমরা ভূমিকা রেখে চলেছি। কিন্তু তুচ্ছ একটি ঘটনাকে কেন্দ্র করে বহিরাগত কিছু মানুষ মাদ্রাসার হোস্টেলে ঢুকে যে নারকীয় কায়দায় হামলা চালিয়ে চারজন আবাসিক শিক্ষার্থী ও এক শিক্ষককে আহত করেছে, তা কখনো মেনে নেয়া হবে না। আমরা মাদ্রাসার দরজা, জানালা, আসবাবপত্র ভাঙ্গা ও হামলায় জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই। দ্রুততম সময়ে তাদের আইনের আওতায় আনা না হলে, শিক্ষার্থীদের সাথে নিয়ে আমরা আরো কঠোরতম আন্দোলন করবো।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •