cbn  

এম.মনছুর আলম, চকরিয়া :
চকরিয়ায় কিশোরীকে ধর্ষণ ও পরে সন্তান প্রসবের ঘটনায় আবদু ছফুর (৩০)নামের এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।
বুধবার (৩১জুলাই) দুপুর দেড়টার দিকে লক্ষ্যারচর ইউনিয়নের ছিকলঘাট স’মিল এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।
আবদু ছফুর উপজেলার কৈয়ারবিল ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ডস্থ ডিককুল এলাকার এজাহার আহমদের ছেলে।
পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, আবদু ছফুর পার্শ্ববর্তী এক কিশোরীকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে তার সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলে। তাকে বিয়ের আশ্বাস দিয়ে কয়েকবার দৈহিক সম্পর্কে লিপ্ত হয়। একপর্যায়ে কিশোরিটি গর্ভবতী হয়ে পড়ে।
কিশোরী তার গর্ভবতীর বিষয়টি আবদু ছফুরকে জানালে সে তাকে তার সঙ্গে কালক্ষেপন করতে থাকে। এরই মধ্যে কিশোরী এক মাস পূর্বে তার নিজ বাড়ীতে এক ছেলে সন্তান প্রসব করে। কিশোরি কুমারীর ঘরে সন্তান হওয়ায় এলাকায় আলোচনা ও সমালোচনা ঝড় বইতে থাকে।
ওই সময়ে ঘটনাটি ধামাচাপা দিতে আবদু ছফুর তার এলাকার জনপ্রতিনিধি ও কিছু ব্যাক্তিকে নিয়ে সালিশ বৈঠকের চেষ্টা করে ব্যর্থ হন। সালিশ বৈঠক না করে স্ত্রী ও সন্তানকে স্বীকৃতি না দিয়ে কিছু টাকা পয়সা দিয়ে ঘটনাটি ধামাচাপা দিতে চেষ্টা করে ধর্ষক ও তার পরিবার। পরে কিশোরী এঘটনায় বাদী হয়ে কক্সবাজার শিশু ও নারী নির্যাতন দমন ট্রাইবুন্যাল অভিযুক্ত ব্যক্তিকে আসামীকে মামলা দায়ের করেন। মামলা দায়েরের পাঁচ মাস পর বুধবার দুপুরের দিকে পুলিশ গোপন সংবাদের ভিত্তিতে থানার উপ-পরিদর্শক (এস আই) আবদুল বাতেনের নেতৃত্বে পুলিশের একটি টিম ধর্ষক আবদু ছফুরকে গ্রেফতার করে।
চকরিয়া থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) এ.কে.এম সফিকুল আলম চৌধুরী জানান, পুলিশ গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে ধর্ষণ মামলার এক আসামীকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয়েছে। তবে গ্রেফতারকৃত ধর্ষণকারী ওই সন্তানের পিতা কিনা তা পরীক্ষা-নিরীক্ষার জন্য ডিএন এ টেষ্টের একটি আবেদন পাঠানো হবে। ধৃত আসামীকে বৃহস্পতিবার আদালতে প্রেরণ করা হবে বলে তিনি জানান।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •