cbn  

প্রেস বিজ্ঞপ্তি
কক্সবাজার সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এ এইচ এম মাহফুজুর রহমান বলেছেন-পদ্মা সেতু, কল্লা কাটা ও ছেলে ধরা সবই গুজব, জঘন্য মিথ্যাচার। অহেতুক গুজব ছড়িয়ে গণপিটুনি দিয়ে নিরীহ মানুষ হত্যা যে কোন ধর্মে মহাপাপ। আমরা এ ধরনের দেশদ্রোহী কোনো কর্মকান্ড সহ্য করব না। কিছু মানুষ নিজেদের স্বার্থ হাসিল করতে এ ধরনের গুজব ছড়াচ্ছে। তিনি গতকাল ৩০ জুলাই বিকেলে পিএমখালী ইউনিয়ন পর্ষদ কার্যালয় চত্বরে অনুষ্ঠিত ছেলে ধরা গুজব, গণপিটুনি, মানব পাচার, বল্য বিবাহ ও মাদকের বিরুদ্ধে জনসচেতনতামূলক এবং সার্বিক আইন শৃংখলা পরিস্থিতি বিষয়ক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। পিএমখালী ইউনিয়ন পরিষদ আয়োজিত এ জনসচেতনতামূলক সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্যে-কক্সবাজার সদর মডেল থানার ওসি মোঃ ফরিদ উদ্দিন খন্দকার পিপিএম বলেছেন- যে কোন ধরনের মাদক ও মানব পাচারের বিরুদ্ধে সরকার জিরো টলারেন্স নীতি গ্রহণ করেছে। সুতরাং অন্যায় করে এখন বেঁচে থাকার দিন শেষ। তিনি ছেলে ধরা সন্দেহভাজন ও গুজব সৃষ্টিকারীদের আইনের কাছে সোর্পদ করার জন্য সর্বসাধারণের প্রতি আহ্বান জানান।
পিএমখালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মাষ্টার আবদুর রহিমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় বক্তব্য রাখেন- সরদ মডেল থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মোঃ খাইরুজ্জামান, প্যানেল চেয়ারম্যান তাজ উদ্দিন সিকদার তাজমহল, এম ইউপি যথাক্রমে মোস্তাক আহমদ, রওশন আক্তার রেখা, আরিফ উল্লাহ, নুরুল হুদা, আহমদ কবির, আব্বাস উদ্দিন, সচিব মোঃ শিহাব উদ্দিন, পিএমখালী কমিউনিটি পুলিশের সভাপতি নাছির উদ্দিন, রাজনীতিবিদ বাহাদুর ইসলাম বাহাদুর, শিক্ষক মাহাবুব উল্লাহ, জয়নাল আবেদীন হাজারী, কেফায়েত উল্লাহ প্রমূখ। সভায় মাদক ও বাল্য বিবাহকে না বলতে উপস্থিত সবাইকে প্রতিজ্ঞা করা হয়। সভায় পিএমখালীর প্রত্যন্ত এলাকা থেকে আগত প্রায় সহস্রাধিক নারী পুরুষ অংশ নেয়।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •