cbn  

প্রেস বিজ্ঞপ্তি:
আশেক উল্লাহ রফিক এমপি বলেছেন, দেশে একটি মহল গুজব সৃষ্টি করে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টি করার চেষ্টা চালাচ্ছে। তারা মুলত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশের ইতিহাসের সেরা প্রকল্প পদ্মা সেতু নির্মাণ প্রকল্প বাস্তবায়নে জঠিলতা সৃষ্টি করতেই এমন গুজবের আশ্রয় নিয়েছে। তাই গুজবে কান দিবেন না, গুজব ছড়াবেন না, আইন নিজের হাতে তুলে নিবেন না। গুজব ছড়ানো যেমন অপরাধ একই সাথে আইন নিজের হালে তুলে নেওয়াও একই অপরাধ। তাই আমাদের সবাইকে সচেতন হতে হবে, কেউ গুজব ছড়ালে তাৎক্ষণিক আইন শৃংখলা বাহিনীকে অবহিত করতে হবে। তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে প্রশাসনকে সহযোগীতা করতে হবে। তিনি আরো বলেন উন্নয়নের মাধ্যমে দেশ যখন এগিয়ে যাচ্ছে তখন দেশের উন্নয়ন বিরোধী একটি চক্র সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এসব অপপ্রচার চালাচ্ছে।
তিনি ৩০ জুলাই মহেশখালী উপজেলা প্রশাসন আয়োজিত গুজব প্রতিরোধে সচেতনামুলক র‌্যালী শেষে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি’র বক্তব্যে এ কথা বলেন। মহেশখালী উপজেলার ভারপ্রাপ্ত নির্বাহী কর্মকর্তা অং জুয়া জাই এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় বক্তব্য রাখেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ শরীফ বাদশা, মহেশখালী থানার অফিসার ইনচার্জ প্রবাস চন্দ্র ধর, জেলা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা ডাঃ নুরুল আমিন, মহেশখালীর পৌর মেয়র মকছুদ মিয়া, কুতুবজুমের চেয়ারম্যান মোশারফ হোসেন খোকন ও মুক্তিযোদ্ধা ছালেহ আহমদ। এ সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মিনুয়ারা ছৈয়দ, উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ব্রজ গোপাল ঘোষ, মাতারবাড়ির চেয়ারম্যান মাস্টার মোহাম্মদ উল্লাহ, হোয়ানকের চেয়ারম্যান মোস্তফা কামাল, মির কাসেম, জেলা ছাত্রলীগের সহসভাপতি আশহাদ উল্লাহ সায়েম ও উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি হালিমুর রশিদ।

আলোচনা সভা শেষে আগামি ১৫ আগষ্ট জাতীয় শোক দিবস পালনের জন্য কর্মসূচী গ্রহন করা হয়। এ সময় আশেক উল্লাহ রফিক এমপি বলেন, আগামি কাল থেকে শুরু হবে জাতির শোকের মাস। এই দিনেই আমরা হারিয়েছি হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানসহ পরিবারের সদস্যদের। ওই শোকের দিনটি যথাযোগ্য মর্যদায় পালন করতে সকলের প্রতি আহবান জানান। এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা সাবেক চেয়ারম্যান শামসুল আলম ও এনামুল করিম।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •