cbn  

শেফাইল উদ্দিন ,কক্সবাজার সদর :

কক্সবাজার সদর উপজেলার ঈদগাঁওতে শত বছরের রাস্তা দখল করে ঘেরা-বেড়া দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে । জনগন ও যান চলাচলে চরম দুর্ভোগ পোহাচ্ছে অএ গ্রামবাসী ও পার্শ্ববর্তীরা। অন্যদিকে জবরদখলকারীরা প্রতিবাদকারী নিরহ লোকজনের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দায়ের করায় রক্তক্ষয়ী সংঘর্ঘের আশংকা দেখা দিয়েছে। ইউনিয়নের পূর্ব মেহের ঘোনা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।
সরেজমিনে দেখা যায়, উক্ত এলাকার মৃত আমির হোছাইনের স্ত্রী আমিনা খাতুন ও তার সাঙ্গপাঙ্গরা পুর্ব মেহের ঘোনা এলাকায় তার বাড়ির পার্শ্ববর্তী হাজার হাজার জনগণের চলাচলের একমাত্র রাস্তাটির একপাশে ঘেরা দিয়ে দখল করে রেখেছে। এলাকার কোমলমতি শিক্ষার্থীসহ হাজার জনগণ ও যান চলাচলে বিঘ্ন সৃষ্টির পাশাপাশি বর্ষার পানি জমাট হয়ে কাদামাটিতে পরিনতন হয়েছে। এর প্রতিবাদ করতে গিয়ে একই এলাকার মৃত মোহাম্মদ হোছনের তিন ছেলে দেলোয়ার হোছন, মনজুর আলম, মনির হোছনকে আসামি করে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালত নং ৪ একটি মিথ্যা ও হয়রানি মুলক মামলা দায়ের করেছে রাস্তা জবরদখলকারী আমিনা খাতুন। এলাকার লোকজন স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান ও , মহিলা মেম্বার কাছে অভিযোগ দিলে ঐ মহিলা ক্ষিপ্ত হয়ে ২৬ জুলাই সকালে অভিযোগ কারীদের উদ্দেশ্যে করে গালিগালাজ করলে তারা তাৎক্ষণিক বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন। এবং প্রশাসনের কাছে চলাচলের রাস্তা খুলে দিয়ে জন ভোগান্তি দূর করাসহ মামলাবাজ, আমিনা খাতুনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে জোর দাবী জানান। জানতে চাইলে সমাজ সর্দার আবু তাহের,শোনা মিয়াসহ শত শত লোকজন
জানান, অভিযুক্ত দখলদার আমিনা খাতুন গাঁজা বিক্রির টাকা নিয়ে মিথ্যা মামলা করে এলাকাবাসীকে হয়রানি করে যাচ্ছে, দেশের প্রচলিত আইনকে তোয়াক্কা করে না। মাদ্রাসা পড়ুয়া এক মেয়েকে ভিকটিম সাজিয়ে আরো অহরহ মামলা করবে বলে এলাকায় হুমকি প্রদর্শন করে। অভিযোগউঠা আমিনা খাতুন সড়কটি দখলের করে নেয়ার সত্যতা স্বীকার করে বলেন জনগণের প্রয়োজন হলে ছেড়ে দেয়া হবে।স্থানীয় মহিলা মেম্বার জান্নাতুল ফেরদৌসের সাথে যোগাযোগ করা হলে জানান, স্থানীয়দের অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে ঘটনাস্থলে গিয়ে রাস্তা ছেড়ে দিতে বললে সে বিচার মানে না। এলাকাবাসী সড়কটি দখলমুক্ত করতে প্রশাসনের জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •