cbn  

শাহেদ মিজান, সিবিএন:
ভোট কারচুপি, জালভোট প্রদান, অবৈধভাবে ব্যালেটে সীল মারা এবং এজেন্টদের মারধরে অভিযোগ এনে টেকনাফের হ্নীলা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান পদের উপ-নির্র্বাচনে ভোট বর্জন করেছে স্বতন্ত্রপ্রার্থী মীর মোঃ জাহাঙ্গীর আলম (তার প্রতীক মোটরসাইকেল) ও জালাল উদ্দীন (আনারস)। এসব অভিযোগ এনে তারা বৃহস্পতিবার বিকাল সাড়ে তিনটার দিকে তাদের প্রধান নির্বাচনী কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে ভোট বর্জনের ঘোষণা দেন।

পৃথক সংবাদ সম্মেলনে স্বতন্ত্রপ্রার্থী মীর মোঃ জাহাঙ্গীর আলম ও জালাল উদ্দীন (আনারস)অভিযোগ করেন উপ-নির্বাচনের আওয়ামী লীগ মনোনিত চেয়ারম্যান প্রার্থী উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অধ্যাপক মোহাম্মদ আলীর পুত্র আওয়ামী লীগ মনোনিত প্রার্থী রাশেদ মোহাম্মদ আলীর লোকজন নৌকা প্রতীকে অবৈধভাবে সীল মেরে ব্যালট বাক্সভর্তি করে, জালভোট প্রদান এবং মোটরসাইকেল প্রতীক ও আনরাস প্রতীকের এজেন্টদের মারধর করে কেন্দ্র থেকে বের দেয়। কিন্তু দফায় দফায় অভিযোগ করেও প্রশাসন এর বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নেয়নি। তাই তারা ভোট বর্জন করেছেন। একই সাথে তারা পুন:ভোট গ্রহণের দাবি জানান।

এই দুই প্রার্থী অভিযোগ করে বলেন, আগে থেকেই নৌকার প্রতীকের প্রার্থী রাশেদ মোঃ আলী ও তার লোকজন দুই স্বতন্ত্রপ্রার্থী ও তাদের লোকজনকে নানাভাবে হুমকি দিয়ে আসছি। ভোটের দিন তিনি সে হুমকির প্রতিফলন ঘটিয়েছেন নির্লজ্জভাবে। এমনকি মৃত ব্যক্তি ও প্রবাসীর ভোটও তারা জালভোট আকারে কাস্ট করেছেন। কিন্তু দায়িত্বে নিয়োজিত প্রশাসন এতে নীরব ভূমিকাই পালন করেছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •