cbn  

মুহাম্মদ আবু সিদ্দিক ওসমানী :

রামু উপজেলার দক্ষিণ মিঠাছড়ি নিবাসী, বর্তমানে কক্সবাজার পৌরসভার ৭ নম্বর ওয়ার্ডের উত্তর তারাবনিয়ার ছরা কবরস্থান রোড নিবাসী আলহাজ্ব রফিকুল আলম চৌধুরী ইন্তেকাল করেছেন (ইন্নালিল্লাহি–রাজেউন)। আলহাজ্ব রফিকুল আলম চৌধুরী (৮৪) চট্টগ্রাম ন্যাশনাল হাসপাতালে বৃহস্পতিবার ২৫ জুলাই বেলা সোয়া ২ টার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। বিষয়টি মরহুমের ঘনিষ্টজন ও বিশিষ্ঠ সমাজসেবক শাহাবুদ্দীন আহমদ চৌধুরী সিবিএন-কে নিশ্চিত করেছেন। মৃত্যুকালে আলহাজ্ব রফিকুল আলম চৌধুরী ২ পুত্র ও ১ কন্যা সন্তান রেখে যান। তার প্রথম সন্তানের নাম ডাঃ শাফাত মাহমুদ রিয়াদ (ইংল্যান্ড প্রবাসী), দ্বিতীয় সন্তান রাফাত মাহমুদ আয়াদ ও একমাত্র কন্যা ডাঃ নিহাদ রওনক খুকুমণি। মরহুম আলহাজ্ব রফিকুল আলম চৌধুরী হচ্ছেন-কক্সবাজার থেকে নির্বাচিত সাবেক এমএলএ ও চট্টগ্রাম জেলা পরিষদের সাবেক সদস্য মরহুম জাফর আলম চৌধুরী ও মরহুমা হাসিনা বেগম চৌধুরীর চতুর্থ পুত্র। মরহুম রফিকুল আলম চৌধুরী কক্সবাজার-৩ (সদর-রামু) আসনের ২ বারের সাবেক সংসদ সদস্য দিদারুল আলম চৌধুরী ও দক্ষিণ মিঠাছড়ি ইউনিয়ন পরিষদের ৫ বারের সাবেক চেয়ারম্যান মনিরুল আলম চৌধুরীর বড় ভাই ও মরহুম এডভোকেট এখলাসুল কবির চৌধুরীর জামাতা এবং বাংলাদেশ সরকারের সাবেক সচিব মাফরুহা সুলতানার বড় ভগ্নিপতি। তিনি দক্ষিণ মিঠাছড়ি নিজের পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা ও ফকিরামুরা ইসলামিয়া মাদ্রাসা পরিচালনা কমিটির সভাপতি ছিলেন। শুক্রবার ২৬ জুলাই সকাল ১১ টায় কক্সবাজার পৌরসভার দক্ষিণ তারাবনিয়ার ছরা কবরস্থান মাঠে মরহুমের প্রথম নামাজে জানাজা ও একইদিন জুমার নামাজের পর ফকিরামুরা ইসলামিয়া মাদ্রাসা মাঠে দ্বিতীয় নামাজে জানাজার পর ফকিরামুরা পারবারিক কবরস্থানে তাকে দাফন করা হবে বলে শাহাবুদ্দীন আহমদ চৌধুরী সিবিএন-কে জানিয়েছেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •