এ কে এম ইকবাল ফারুক,চকরিয়া
কক্সবাজারের চকরিয়া উপজেলা হারবাং ইউনিয়নের পাহাড়ী এলাকায় বখাটে কতর্ৃক স্কুলছাত্রী ধর্ষণের ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে। মামলায় এক জনের নাম উল্লেখ করে আরও অজ্ঞাতনামা ৪জনকে আসামী করা হয়েছে। যে ঘরে স্কুলছাত্রীটি ধর্ষণের শিকার হয়েছেন ওই ঘরের মালিক বিধবা আলেয়া বেগম বাদী হয়ে শনিবার রাতে চকরিয়া থানায় এ মামলাটি দায়ের করেন। এদিকে রবিবার (২১ জুলাই) কক্সবাজার সদর হাসপাতালে ধর্ষণের শিকার ওই স্কুলছাত্রীর ডাক্তারী পরীক্ষা সম্পন্ন করেছে পুলিশ।
চকরিয়া থানা পুলিশ সূত্র জানায়, গত ১৭ জুলাই রাতে মো. আসিফ নামের এক বখাটেই স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ করেছে। এসময় আসিফের সহযোগী অন্য চারজন বখাটে পাহারা দিয়ে তাকে সহযোগিতা করে। এজন্য ধর্ষক আসিফকে প্রধান আসামি করে আরও চারজনকে অজ্ঞাত আসামি দেখিয়ে শনিবার রাতে চকরিয়া থানায় মামলা দায়ের করা হয়। যে ঘরে স্কুলছাত্রীটি ধর্ষণের শিকার হয়েছেন ওই ঘরের মালিক বিধবা নারী মামলার বাদী হয়েছেন।
চকরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. হাবিবুর রহমান বলেন, হারবাংয়ে স্কুলছাত্রটি ধর্ষণের ঘটনায় একজনের নাম উল্লেখ করে আরও চারজনকে অজ্ঞাতনামা আসামী দেখিয়ে থানায় মামলা হয়েছে। যে ঘরে স্কুলছাত্রীটি ধর্ষণের শিকার হয়েছেন ওই ঘরের মালিক বিধবা নারীটিকেই এ মামলার বাদি করা হয়েছে। ওই রাতে স্কুলছাত্রী ছাড়া আর কেউ ধর্ষণের শিকার হয়নি দাবী করে ওসি আরও বলেন মো. আসিফ নামের একজনই স্কুলছাত্রীটিকে ধর্ষণ করেছে। এসময় অজ্ঞাত অন্য চারজন পাহারা দিয়ে তাকে সহযোগিতা করে। এ কারনেই আসিফের নাম উল্লেখ করে চারজনকে অজ্ঞাতনামা আসামী দেখিয়ে মামলা নেয়া হয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •