মানব কল্যাণ ও সাংবাদিকতা!

আবুল হাসেম

মানুষ সৃষ্টির সেরা জীব । তাকে মানব কল্যাণের জন্য সৃষ্টি করা হয়েছে । অন্যথায় মানব জাতির ধ্বংস অনিবাযর্য। মানব কল্যাণের ধারাবাহিকথায় সাংবাদিকরাই পারে একটি জাতিকে সভ্য সুন্দর আগামীদিনের সম্ভাবনার বার্তা দিতে। সাংবাদিকতাকে মহান পেশা ও দায়িত্ব হিসেবে মনে করে কাজ করলে, তা দ্বারা দেশ, জাতি , সমাজ আলোকিত হয়। সমাজ হতে মাদক, ধর্ষণ ও অন্যান্য অপরাধ নির্মুল করা সম্ভব হয়। আমরা বিভিন্ন সময় দেখতে পায়, কোন অসহায় ব্যক্তির শেষ আশ্রয়স্থল হয় সৎ সাংবাদিক ও সত্য পত্রিকা। বিভিন্ন সময় যখন কোন ব্যক্তি, পরিবার, সমাজ, জাতি ন্যায় বিচার পায় না, তখন তাদের শেষ আশ্রয় স্থল হয় সৎ সাংবাদিক ও পত্রিকা। কোন গুরুত্বপূর্ণ খবর বা দাবি সংশ্লিষ্ট মহলকে অবহিত করতে সংবাদপত্র অবর্ণনীয় ভূমিকা পালন করে।
যেমন কোন নির্যাতিত ব্যাক্তি, ক্যান্সার বা জটিল রোগে আক্রান্ত ব্যাক্তি সংবাদ প্রচারের মাধ্যমে অন্যায় হতে পরিত্রাণ ও আর্থিক সহায়তা পায়। আমরা নিঃসন্দেহে বলতে পারি, মানব জীবনে সৎ সাংবাদিক ও পত্রিকার গুরুত্ব অপরিসীম। এটি বলে শেষ করা যাবে না । আর এসব জনকল্যাণমুখী খবর প্রচার করা মানে হল মানব কল্যাণ ও সাংবাদিকতা। আবার অনেক অসাধু সাংবাদিক এ মহান দায়িত্বকে সমাজে মাদক, ধর্ষণ ও অন্যান্য অপরাধের প্রশ্রয়দাতা চাদর হিসেবে ব্যাবহার করে। অনেকে এ পরিচয় ব্যাবহার করে নানা অপরাধ করতে দ্বিধা বোধ করে না ।
আমি নিজেও অসৎ সাংবাদিক ও পত্রিকার মাধ্যমে হয়রানির শিকার হয়েছিলাম। ঘটনাটি হলো ২৬/১/১৮ ইংরেজি সাপ্তাহের চাকরির খবর পত্রিকায়। ববাবরে সম্পাদক – একাত্তরের বাংলাদেশ, ২২৫ ফকিরাপুল, দ্বিতীয় তলা, ঢাকা -১০০০,মো: ০১৯০৫৮৯৮৫৭৭, সাংবাদিক নিয়োগ শিরোনামে একটি খবর প্রকাশিত হয়। তাতে বলা হয়, উপজেলা, জেলা পর্যায়ে কিছু সংখ্যক সাংবাদিক নিয়োগ দেওয়া হবে। পরবর্তীতে তাকে ক্যামেরা ও অন্যান্য সুযোগ-সুবিধা দেওয়া হবে। তাই আমি প্রয়োজনীয় কাগজপত্রসহ কর্তৃপক্ষের কাছে আবেদন পত্র পাঠাই। পত্রিকাটির নাম দৈনিক একাত্তরের বাংলাদেশ, ঠিকানা ছিল সম্পাদক-মো: জাকির হোসেন, সম্পাদক কর্তৃক বি.এস.প্রিন্টিং প্রেস ৫২/২ টুয়েনরি সার্কুলার রোড, সূত্রাপুর, ঢাকা থেকে মুদ্রিত এবং ২২৫/ সি ফকিরাপুল ,ঢাকা -১০০০ থেকে প্রকাশিত, নামে একটি খুবই ক্ষুদ্র নিউজপ্রিন্টের কাগজের পত্রিকাসহ , ২০ টাকা দামের একটি সাংবাদিক প্রশিক্ষণ গাইড ও আট টাকা দামের একটি খাতাসহ বাংলাদেশ সরকারের ডাক বিভাগ-পোস্ট অফিস যোগে ভি.পি.এল.নং-৬১৩,তা:৭/২/১৮ তে দৈনিক একাত্তরের বাংলাদেশ নামে ৭৩/১ সিদ্ধেশ্বরী ,ঢাকা-১২১৭ নামে সীলসহ আমার কাছে আসে। তাতে বলা হয় খামটি খোলার আগে ১০০০ টাকা বুঝিয়ে দিতে। বাধ্য হয়ে ১০০০ টাকা আমাকে দিতেই হয়। সাপ্তাহিক চাকরির খবর পত্রিকায় সম্পাদকের মো: নং টি ছিল ০১৯০৫৮৯৮৫৭৭ । পরে বিভিন্ন সময় এ নাম্বারে যোগাযোগ করা হলে আস্ত আস্তে সব পেয়ে যাবেন বলে আশ্বাস দেওয়া হয়। কিন্তু আজ অবধি আমার কাছে একটি কলও আসে নি । তাই আমি প্রশাসনসহ সবাইকে বলতে চাই এসব প্রতারকের বিরুদ্ধে অবস্থান নেওয়া দরকার।
মহামানব নবী করিম (স.) এ বিষয়ে বলেছেন ‘তোমাদের মধ্যে কেউ যদি অন্যায় কাজ করতে দেখে তবে সে যেন হাত দিয়ে তার বাঁধা দেয়, তাতেও যদি অক্ষম হয় মুখে বা সংবাদে বা প্রতিবাদ করে আর তাতেও যদি অক্ষম হয়, তবে নিজেকে যেন দুর্বল ইমানদার ভাবে (সহীহ বুখারী, মুসলিম)। এতে বলা হয়েছে যে খারাপ / মিথ্যা/অন্যায়ের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ মুখর সংবাদ প্রচার করতে । কিন্তু তাতে যদি সঠিক সংবাদ প্রচার করতে গিয়ে সম্মানহানি হয়, তা গুরুতর অপরাধ। কোন সভ্য জাতি সত্য সংবাদ প্রচার করতে গিয়ে মানহানি মেনে নিতে পারে না।
সম্প্রতি কক্সবাজারের আলোকিত সাংবাদিক, শ্রদ্ধেয় ব্যক্তি, উদার ও নিরহংকারি সাংবাদিক হাসানুর রশীদ ভাইকে জড়িয়ে অযথা হয়রানিমূলক মামলা দায়ের ও আদালতের সমন জারির বিষয়ে কক্সবাজারের প্রায় সাংবাদিক মহল, কলামিস্টগণ ও প্রায় বিভিন্ন শ্রেণী পেশার লোক সোচ্ছার হয়ে তার প্রতিবাদর ও লেখালেখি করতে দেখছি। বিষয়টি খুবই আশাব্যঞ্জক। সত্য মানুষের পক্ষে কথা বলার মানুষ এখনো এখনো আছে। আমি ওনাকে ব্যাক্তিগত ভাবে জানি, যিনি সব কিছুর উর্ধ্বে উঠে, সত্য সুন্দর ন্যায়ের পক্ষ হয়ে কাজ করেন। যার মধ্যে আমি অহংকারের লেশ মাত্র দেখিনি । যার চোখে, মুখে ও কর্মে আমি সব সময় দেশপ্রেম ও জনকল্যাণমুখী কাজ দেখেছি। তার-ই ফলশ্রুতিতে আমি দেখেছি পেইজবুক ও অনলাইন মিডিয়াতে অনেক সমাজ সংস্কারক, সমাজ সেবক, শিক্ষিত লোক, ছাত্রসমাজ এক কথায় সর্বশ্রেণীর লোক প্রতিবাদ শুরু করেছে। অনেকে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ মুখর সংবাদ প্রচার করেছে। এ ঘটনার মাধ্যমে কক্সবাজারবাসী ও প্রায় দেশের সাংবাদিকগণ সৎ মানুষকে মূল্যায়ন করতে গিয়ে আসল সত্য বের করতে সক্ষম হয়েছে। আমরা প্রতারক, ধোঁকাবাজ ও ধর্ষকের বিরুদ্ধে অবস্থান না নিয়ে ভাল মানুষ ও সাংবাদিকের বিরুদ্ধে অবস্থান নিতে শুরু করেছি। তাই আমাদের এ দিক পরিহার করা উচিত । আমাদের উচিত মানব কল্যাণমুখি সংবাদ প্রচার করা ও সাংবাদিকতা চালিয়ে যাওয়া । আমাদের উচিত মিথ্যা সংবাদ প্রচার না করা ও মিথ্যা মামলা দেওয়া ও নেওয়া হতে বিরত থাকা । ( সংক্ষেপিত)
লেখক: আবুল হাসেম, সেক্রেটারি জেনারেল: বাঁধন (সেচ্ছায় রক্তদাতাদের সংগঠন) কক্সবাজার।
প্রতিষ্ঠাতা ও সম্পাদক: মহররম তরুণ কমিটি, খুরুশকুল, কক্সবাজার, মহররম সাংস্কৃতিক সংসদ, খুরুশকুল, আমানুল উলুম পাবলিকেশন্স, খুরুশকুল, কক্সবাজার, বাংলাদেশ

সর্বশেষ সংবাদ

মিয়ানমার সফরে রোহিঙ্গা সমস্যা নিয়েও আলোচনা

ব্যারিস্টার হলেন খালেদা জিয়ার নাতনী জাইমা

আমি কি একটু বিষণ্ণও হতে পারবোনা?

মানুষ কষ্ট পাবে বলে ওয়ান ইলাভেনে কক্সবাজারের দায়িত্ব নিই নাই : ফোরকান আহমেদ

আত্মীয় ছাড়া অন্যরাও কিডনি দিতে পারবেন

বঙ্গবন্ধুকে স্মরণ করলেন জামায়াতের নতুন আমির, কিন্তু

দেশের সব স্বাস্থ্যকন্দ্রে দেওয়া হবে বিনামূল্যে স্যানিটারি ন্যাপকিন

রোহিঙ্গাদের সহায়তায় জাতিসংঘের স্বচ্ছতা নিয়ে প্রশ্ন টিআইবির

চকরিয়ায় দুইদিন ব্যাপী জাতীয় বিজ্ঞান মেলা ও বিজ্ঞান অলিম্পিয়াড উদ্বোধন

মাটি কেটে কদ্দাছড়ার শাখাখাল ভরাট কাজ বন্ধের নির্দেশ

রোহিঙ্গাদের হামলায় রক্ত ঝরলো স্থানীয় যুবকের

শহরে পণ্যের গুদামে আগুন, ১০ লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি

ডিসি কলেজের শিক্ষার্থীদের জীবনের গল্প শোনালেন সিএসপি হাসনাত আবদুল হাই

হিমছড়িতে গভীর রাতে কৃষকের ৫ লাখ টাকার গাছ ধ্বংস

স্থানীয় শিশুদের ১০ হাজার হাইজিন কিট দিয়েছে সেভ দ্য চিলড্রেন

ছাত্রদলের জালিয়াপালং উত্তর-দক্ষিণ, হলদিয়াপালং উত্তর ও পালংখালী কমিটি বিলুপ্ত 

বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে লেকচার দিতে ড. রাহমান নাসিরের অস্ট্রেলিয়া গমন

লোহাগাড়ায় ২ ফার্মেসীসহ ৫ দোকানীকে অর্থদন্ড

বীরঙ্গনা আলমাছকে পেয়ে আবেগাপ্লুত ডিসি, সরকারি সুবিধা দেয়ার আশ্বাস

টানা দ্বিতীয়বার মহেশখালীর শ্রেষ্ঠ প্রধান শিক্ষক শামীমা