মোহাঃ আবু সায়েম :

রোহিঙ্গার সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনা ও মাদকের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা বাস্তবায়নে বদ্ধপরিকর নবাগত ওসি আবুল মনসুরের। কক্সবাজারের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ সীমান্তবর্তী থানা উখিয়ায় অফিসার ইনচার্জ হিসেবে যোগদান করেছেন চৌকস ওসি আবুল মনসুর। বৃহস্পতিবার ১৮ জুলাই তিনি বিদায়ী ওসি আবুল খায়েরের কাছ থেকে দায়িত্বভার গ্রহণ করেন। এর আগে তিনি রামু থানা ও কক্সবাজার ডিবিতে সফতার সাথে দায়িত্ব পালন করেন। রামু থানায় থাকাকালে তিনি বিশেষ কৌশল প্রয়োগ করে সৃজনশীল কার্যক্রমের মাধ্যমে মাদক নির্মূল, ডাকাত প্রতিরোধে সহায়তা, অপরহনকারী চক্র দমনে ভূমিকা, অস্ত্র উদ্ধার এবং আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক পর্যায়ে রাখতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন।

উখিয়া থানার নবাগত ওসি আবুল মনসুর বলেন, আমাকে আমার উর্ধতন কর্তৃপক্ষ যে উদ্দেশ্যে পাঠিয়েছেন সে উদ্দেশ্য বাস্তবায়নে আমি কাজ করে যাবো একাগ্রচিত্তে । তিনি আরো বলেন, আমি দুটি চ্যালেঞ্জ বাস্তবায়নে বদ্ধপরিকর, রোহিঙ্গার সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনা, এবং মাদকের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা।

১২ লক্ষ রোহিঙ্গা বর্তমানে উখিয়া- টেকনাফে অবস্থান করছেন। রোহিঙ্গারা যাতে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি না ঘটান, এবং সুষ্ঠু ও সুন্দর ব্যবস্থাপনার মাধ্যমে তারা যাতে নিরাপত্তার সাথে প্রত্যাবাসন না হওয়া পর্যন্ত উখিয়ায় থাকতে পারেন সেজন্য আমাদের পুলিশী কার্যক্রম ও গোয়েন্দা বিভাগের নজরদারীসহ তীক্ষè দৃষ্টি অব্যাহত থাকবে। আরেকটা বিষয় বাস্তবায়নে আমি বদ্ধপরিকর সেটা হচ্ছে, সরকারের ষোষিত মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতি অনুসরণে মাদকের বিরুদ্ধে সাড়াঁশি অভিযান অব্যাহতসহ ও মাদক নির্মূল না হওয়া পর্যন্ত প্রাত্যহিক বিশেষ বিশেষ অভিযান পরিচালনা করা হবে। সার্বিক দায়িত্ব পালনে নবাগত ওসি উখিয়া থানা পুলিশের সদস্য, স্থানীয় জনসাধারণ সাংবাদিক ও রাজনৈতিক ব্যক্তিবর্গের আন্তরিক সহযোগিতা কামনা করেছেন।

উল্লেখ্য যে, তিনি এর আগে সফলতার সাথে চট্রগ্রাম ইপিজেড , বাকলিয়া , ডিবি, ও সর্বশেষ রামু থানায় কৃতিত্বের সাথে দায়িত্ব পালন করেন। এবং তিনি তারঁ সফল কার্যক্রমের জন্য বিভিন্ন পুরুস্কারে ভূষিত হন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •