এ কে এম ইকবাল ফারুক , চকরিয়া :

কক্সবাজারের চকরিয়া উপজেলার ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নের উপ-নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আ’লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী গিয়াস উদ্দিন চৌধূরীর বিরুদ্ধে নির্বাচনী নানা অনিয়মের অভিযোগ তুলে সংবাদ সম্মেলন করেছে অপর প্রতিদ্বন্ধী প্রার্থী ও আনরস প্রতীকের প্রার্থী প্রবীণ সাংবাদিক মাইন উদ্দিন মোহাম্মদ শাহেদ। শুক্রবার (১৯ জুলাই) বিকাল ৫টায় চকরিয়ার অভিজাত একটি রেষ্টুরেন্টে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ অভিযোগ তুলেন।

সংবাদ সম্মেলনে আনরস প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী ও প্রবীণ সাংবাদিক মাইন উদ্দিন মোহাম্মদ শাহেদ অভিযোগ করেন, আগামী ২৫ জুলাই অনুষ্ঠিতব্য ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান পদের উপ-নির্বাচনে আ’লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী গিয়াস উদ্দিন চৌধূরী নির্বাচনী আচরণবিধি লংঘন করে প্রচার প্রচারনা চালাচ্ছেন। গত ১৫, ১৬ ও ১৭ জুলাই বিকাল ৫টা থেকে রাত সাড়ে ৮টা পর্যন্ত নির্বাচনী আচরণবিধি লংঘন করে ২০টি মোটরসাইকেল ও ২৫টি মিনি ট্রাক নিয়ে শোভাযাত্রা বের করে নির্বাচনী প্রচার-প্রচারনা চালিয়েছেন। এছাড়া গিয়াস উদ্দিন চৌধূরীর কর্মী-সমর্থকরা ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকায় আনারস প্রতীকের পোষ্টার ছিঁড়ে ফেলে দিচ্ছেন।

চেয়ারম্যান প্রার্থী সাংবাদিক শাহেদ আরও অভিযোগ করেন, গত ১৮ জুলাই ইউনিয়নের ভেন্ডি বাজার এলাকায় আনারস প্রতীকের নির্বাচনী প্রচারনা চালানোর সময় আমার কর্মী মনছুর ও জসিম উদ্দিনকে শাররীকভাবে মারধর করেছে গিয়াস উদ্দিন চৌধূরীর লোকজন। শুধু তাই নয়, নৌকা প্রার্থীর লোকজন আমার নির্বাচনী প্রচারনায় জড়িত লোকজনকেও প্রচারনা বন্ধে নানাভাবে বাঁধা সৃষ্টির পাশাপাশি বাড়ি বাড়ি গিয়ে ভোটরদেরও ভয়ভীতি দেখাচ্ছেন। এসব বিষয় নিয়ে ইউপি উপ-নির্বাচনের দায়িত্বপ্রাপ্ত রিটার্ণীং কর্মকর্তার কাছে একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন বলেও জানান তিনি।

চেয়ারম্যান প্রার্থী সাংবাদিক শাহেদ বলেন, আমি চাই ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়ন পরিষদের উপ-নির্বাচন সুষ্ঠ, অবাদ, ও শান্তিপূর্ণভাবে অনুষ্ঠিত হউক। যে নির্বাচনে ভোটারা উৎসব মুখর পরিবেশে ও নির্ভয়ে তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারবেন। এ নির্বাচনে ভোটাররা যাকে ভোট নির্বাচিত করবে তাকেই আমরা সাধুবাদ জানাবো। নির্বাচন অবাদ, নিরপেক্ষ ও শান্তিপূর্ণভাবে অনুষ্ঠানের জন্য প্রশাসনের সর্বাতœক সহযোগীতাও চান আনরাস প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী প্রবীণ সাংবাদিক মাইন উদ্দিন মোহাম্মদ শাহেদ। সংবাদ সম্মেলনে বিভিন্ন জাতীয়, আঞ্চলিক ও স্থানীয় পত্রিকায় কর্মরত গনমাধ্যম কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •