ইমাম খাইর, সিবিএন:
কক্সবাজারে অনুষ্ঠিত হলো অর্থ আইন, ২০১৯-এ আয়কর আইনে আনীত সংশোধনী বিষয়ক প্রশিক্ষণ কর্মশালা।
কর অঞ্চল -৪ চট্টগ্রামের আয়োজনে বৃহস্পতিবার (১৮ জুলাই) রাতে শহরের কলাতলির একটি অভিজাত হোটেলের কনফারেন্স হলে প্রশিক্ষণ কর্মশালায় বক্তব্য রাখেন, কর অঞ্চল -৪ চট্টগ্রামের কর কমিশনার ব্যারিস্টার মোতাছিম বিল্লাহ ফারুকী।
তিনি বলেন, কক্সবাজারে অনেক করদাতা রয়েছে যাদের এখনো করের আওতায় আনা যায়নি। সবাই যে যার দায়িত্বে আরো সজাগ ও কঠোর হলে কক্সবাজার থেকে বছরে অন্তত ৫০০ কোটি টাকা কর আদায় সম্ভব। কক্সবাজারকে করদাতাবান্ধব রাজস্ব নগরী হিসেবে দেখতে চাই।
তিনি বলেন, কর্মে দক্ষতা বাড়ানোর জন্য প্রশিক্ষণের বিকল্প নেই। আপডেট ইনফরমেশন জানতে প্রথমবারের মতো এই প্রশিক্ষণ অনেক বেশি কাজে আসবে।
কর্মশালার শুরুতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন কক্সবাজার আয়কর আইনজীবী সমিতির সভাপতি এডভোকেট ছৈয়দুল হক।
বক্তব্য রাখেন কর অঞ্চল -৪ চট্টগ্রামের অতিরিক্ত কর কমিশনার মোহাম্মদ মুফিজ উল্যা।
প্রশিক্ষণ কর্মশালায় যৌথভাবে মাল্টিমিডিয়া প্রেজেন্টেশনের মাধ্যমে অর্থ আইন, ২০১৯-এ আয়কর আইনে আনীত সংশোধনী বিষয়ক বিভিন্ন তথ্য উপস্থাপন করেন অঞ্চল -৪ চট্টগ্রামের যুগ্ম কর কমিশনার ফরিদ আহমদ ও দুলাল চন্দ্র পান্ডে।
উপস্থিত ছিলেন -উপকর কমিশনের (সদর প্রশাসন) সারোয়ার মোর্শেদ, মিস. নাজমুন্নাহার (প্রায়োগিক), সাইফুল ইসলামসহ কর পরিদর্শকবৃন্দ। প্রশিক্ষণ কর্মশালায় আয়কর অফিসের বিভিন্ন স্তরের কর্মকর্তারা অংশ গ্রহণ করেন।
সহকারী কর কমিশনার নাদিম হোসেনের সঞ্চালনায় কর্মশালায় টার্গেট পূরণে সেরা কর্মকর্তা হিসেবে ‘এপ্রিসিয়েশন অব কালেকশন’ স্বীকৃতি দেয়া হয়েছে চার জনকে।
তারা হলেন- সহকারী কর কমিশনার নিপু চন্দ্র দে (সার্কেল ৮৪), মোঃ শামসুজ্জামান (সার্কেল -৮৮), অতিরিক্ত সহকারী কর কমিশনার রাজিব রানা মল্লিক (সার্কেল-৮৭) ও বিপিন চাকমা (সার্কেল-৮৬)। শেষে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশিত হয়।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •