কলেজ আমার কাছে দ্বিতীয় পরিবার

 

আনাস মাহমুদ

এই তো সেদিন ২০১২ সালের শেষে দিকে এইচ,এস,সি তে ভর্তি হয়েছিলাম।এইচ,এস,সি শেষ করে অর্নাস টা প্রিয় কলেজে করতে বাধ্য করল সবার ভালোবাসায়।
অর্নাস ২০১৪-১৫ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী ছিলাম আজ চূড়ান্ত ভাইভার মাধ্যমে অর্নাস জীবনের পরিসমাপ্তি ঘটল।ইচ্ছে আছে মাস্টার্সটা প্রিয় কলেজে সম্পন্ন করবো।কিন্তু আজ যে বেদনাটুকু অনুভব করলাম তা বোধয় এই দীর্ঘ পথচলায় কখনও অনুভব করি নিই।
কেমন জানি মনে হলো কি যেন মহামূল্যবান কিছু জীবন থেকে হারিয়ে যাচ্ছে।সত্যি বলতে সেটায় হচ্ছে। যদিও মাস্টার্স করবো একই কলেজে সেই সুবাদে আরও বছর দুয়েক প্রিয় প্রতিষ্টানের ছাত্রত্বটা থাকবে কিন্তু আমরা জানি মাস্টার্স মানে কেমন জানি হয় ক্যাম্পাসের দুরন্তপনার অভাবে থাকা এক নিঃস্ব একা ছাত্র।
ক্যাম্পাসের মায়া কখনও ভুলে থাকা সম্ভব হবে আমার পক্ষে।সেই বটগাছের নিচে বসে আড্ডায় মশগুল হওয়া, শহিদ মিনারে পাদদেশে স্মৃতিময় সময়টুকু কখনও ভুলে থাকা সম্ভবপর না।
আনাস বলে সকল স্যারদের আদর করে ডাক দেওয়া,ছোট ভাইদের সম্মান তাদের প্রতি আদর,ভালোবাসা বার বার ডাক দিবে ফিরে আসো ক্যাম্পাসে আনাস তুমি সময়ে,অসময়ে।
সত্যি বলছি কলেজ আমার কাছে সবসময় দ্বিতীয় পরিবারের মত,সেই ভাবেই সময়টুকু ব্যয় করেছি।কখনও স্যারদের অবাধ্য হতে চেষ্টা করি নাই সবসময় তাদের আনুগত্য একজন আনাস হয়ে থাকার চেষ্টা করেছি।একজন দায়িত্ববান ছাত্র হিসেবে ক্যাম্পাসে যতটুকু পারি দায়িত্ববান হতে চেষ্টা করেছি।
আজ অনার্সের শেষটা ঠিক যেমনটা চেয়েছিলাম তার চেয়েও মুগ্ধকর ছিলো। প্রিয় প্রাঙ্গনের সকল মুহূর্তগুলো ব্যাগ ভর্তি করে নিয়েছি, নিয়েছি সকল মায়া। মনে হচ্ছে এই বুঝি আমি ভর্তি হয়েছিলাম! দেখতে দেখতে ৭ টা বছর পার হয়ে গেলো। বড়দের স্নেহ আর বন্ধুদের ভালোবাসা আর ছোটদের মায়াতে বেশ পার হলো জীবনের, ৭ টা বছর।
শেষ যখন ভাইবা দিতে যাচ্ছি,মনে হচ্ছিলো পুরো ক্যাম্পাসের বর্ণনা আজ বলেই দিই। জানি এটাতেই শেষ নয় আরো সময় পরে আছে। চাইবো সবসময় যেনো প্রিয় মানুষগুলোর কাছে ঠিক বর্তমানের স্থানটা নিয়ে বেঁচে থাকি।
প্রিয় তসলিমা মেমের বাবা আনাস এদিকে এসো,প্রিয় আকতার স্যারের বাবা কেমন আছো,প্রিয় গোপাল স্যারের আনাস কি খবর তোমার সহ সকল স্যারদের আদর মিস করবো ভীষণ।
যতটুকু সম্ভব চেষ্টা করবো ক্যাম্পাসে বার বার ছুটে আসতে।
কারণ ক্যাম্পাসের মায়া বার বার ডাক দিবে ফিরে আসতে।
প্রিয় ভাই,বোনদের বলবো তোমরা কলেজ কে সবসময় নিজের পরিবারের মত ভালোবাসবে সকল শিক্ষক,শিক্ষিকাদের নিজের মা,বাবা মনে করবে।
দায়িত্ববান ছাত্রছাত্রী হওয়ার চেষ্টা করবে।
শেষ বেলায় সবার কাছে মিনতি করছি, চলার পথে যদি কোনো ভুল, ভ্রান্তি হয়ে থাকে দয়া করে ক্ষমার দৃষ্টিকোণ থেকে বিবেচনা করবেন।
সবার জন্য দোয়া ও ভালোবাসা।

লেখক: আনাস মাহমুদ। অনার্স ফাইনাল ফলাফল প্রত্যাশী, অর্থনীতি বিভাগ,কক্সবাজার সিটি কলেজ। 

cbn

সর্বশেষ সংবাদ

উখিয়ায় সড়ক নির্মাণ কাজে অনিয়মের অভিযোগ, বালির পরিবর্তে দিচ্ছে রাবিস

আইএস-এর নতুন ঘাঁটি হচ্ছে কাশ্মির?

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন: চীন ও মিয়ানমারের প্রতিনিধি কক্সবাজারে

সহকারী কমিশনারের ড্রয়ার ভেঙে ইয়াবা চুরি : কারাগারে কনস্টেবল

টেকনাফে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ২ রোহিঙ্গা নিহত

মিয়ানমারে ভয়াবহ সংঘর্ষে ৩০ সেনা নিহত

প্রকাশ্যে অবৈধ অস্ত্রেরর মহড়া, অভিযানের দাবি ঢেমুশিয়া-কোনাখালীবাসীর

বঙ্গবন্ধুকে স্বপরিবারে হত্যার নেপথ্যে নায়ক ছিলেন জিয়াউর রহমান : রামুতে এমপি কমল

‘মুক্তি’ সভাপতি শিবুলালকে গ্রেফতার দাবি চকরিয়া উপজেলা ও পৌর পুজা উদযাপন পরিষদের

চৌফলদন্ডীতে পুলিশের উপর হামলা করে ইয়াবা ব্যবসায়ী ছিনতাই, আহত ২

আগরতলা-কক্সবাজার বাস চালুর পরিকল্পনা

টেকনাফের বর্ষীয়ান বিএনপি নেতা মাস্টার জাকের আর নেই, শাহজাহান চৌধুরীর শোক

সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকের দ্বন্দ্ব: হ-য-ব-র-ল টেকনাফ উপজেলা বিএনপি

মাতামুহুরী নদী থেকে দুই হাজার মিটার নিষিদ্ধ কারেন্ট জাল জব্দ

চট্টগ্রামে বিষাক্ত মদ পানে ৩ জনের মৃত্যুর রহস্য উদঘাটিত

পুলিশ সুপার বরাবরে আকুল আবেদন

শান্তিপূর্ণ ও নিরাপদ পরিবেশে জন্মাষ্টমী অনুষ্ঠানমালা করতে পুলিশ বদ্ধপরিকর : এসপি মাসুদ

চট্টগ্রামে ইয়াবাসহ ৩জন আটক

তারেক জিয়াই ২১ আগষ্ট গ্রেনেড হামলার মুল হোতা- এমপি আশেক  

কক্সবাজার সদর থানা পুলিশের অভিযানে গ্রেফতার- ১১