জিপিএ-৫ পেয়েছে ৫৬ জন

কক্সবাজারে এইচএসসিতে পাসের হার ৫৪.৩৯%

শাহীন মাহমুদ রাসেল:
কক্সবাজার জেলায় এইসএসসি পরীক্ষায় ফলাফল বিপর্যয় হয়েছে। গত বছরের তুলনায় এবারের এইচএসসি পরীক্ষায় পাসের হার কমলেও জিপিএ-৫ বেড়েছে।
এবার জেলায় এইসএসসি তে পাসের হার ৫৪ দশমিক ৩৯ শতাংশ। যা গতবারের তুলনায় ৭ দশমিক ২৭ শতাংশ কম। আর জিপিএ-৫ পেয়েছে ৫৬ জন। যেখানে সারা দেশে এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় সার্বিক পাসের হার ৭৩.৯৩ শতাংশ। আর ২০১৮ সালে কক্সবাজারে ১০ হাজার ৪২৪ জন শিক্ষার্থী অংশ নিয়ে পাশ করেছিল ৬ হাজার ৪২৭ জন। পাসের হার ছিল ৬১ দশমিক ৬৬ শতাংশ। জিপিএ-৫ পেয়েছিল ৩৮ জন। তবে এবছর জিপিএ-৫ বেড়েছে।
চট্টগ্রাম শিক্ষাবোর্ড থেকে কক্সবাজার জেলা প্রশাসনের কাছে পাঠানো ফলাফল বিবরণীতে এসব তথ্য পাওয়া গেছে।
প্রাপ্ত তথ্য মতে, ২০১৯ সালে এইচএসসি পরীক্ষায় কক্সবাজার জেলায় মোট পরীক্ষার্থী সংখ্যা ছিল ১০ হাজার ৬৯৮ জন। এর মধ্যে পরীক্ষায় অংশগ্রহন করেছে ১০ হাজার ৬২০জন। এর মধ্যে পাস করেছে ৫ হাজার ৭শ ৭৬জন। পাশের হার ৫৪.৩৯ শতাংশ। আর জিপিএ-৫ পেয়েছে ৫৬ জন। এর মধ্যে ২৭জন ছেলে এবং ২৯ জন মেয়ে। জেলায় বেশি জিপিএ-৫ কক্সবাজার সরকারী কলেজ পেয়েছে ৫১ জন। ১জন করে পেয়েছে সরকারী মহিলা কলেজ, মহেশখালী কলেজ ও ঈদগাহ ফরিদ আহম্মদ কলেজ।
এবছর জেলায় বিজ্ঞান বিভাগ থেকে ১৪শ ৫২শিক্ষার্থীর মধ্যে পরীক্ষায় অংশ নেয় ১৪শ ৩৫ জন। যেখানে পাস করেছে ১ হাজার ৯৭ জন। পাশের হার ৭৬.৪৫ শতাংশ।গতবছর বিজ্ঞান বিভাগ থেকে মোট পাশ করেছিল ৮৯৭ জন এবং পাশের হার ছিল ৭০.৯৭%। জিপিএ-৫ পেয়েছিল ২৪ জন।
বাণিজ্য বিভাগ থেকে এবছর ৬হাজার ১২৯শিক্ষার্থীর মধ্যে পরীক্ষায় অংশ নেয় ৬ হাজার ৮৬ জন। যেখানে পাস করেছে ২ হাজার ৭৯৬ জন। পাশের হার ৪৫.৯৪ শতাংশ। গতবছর ৩ হাজার ৮৯ জন শিক্ষার্থীর মধ্যে পাস করেছিল ১হাজার ৯শ ২০জন। পাসের হার ছিল ৬২.১৬ শতাংশ। জিপিএ-৫ পেয়েছিল ১১ জন।
মানবিক বিভাগ থেকে এবছর ৩ হাজার ১১৭ শিক্ষার্থীর মধ্যে পরীক্ষায় অংশ নেয় ৩ হাজার ৯৯ জন। যেখানে পাস করেছে ১ হাজার ৮৮৩ জন। পাশের হার ৬০.৭৬ শতাংশ।গতবছর ৪ হাজার ৭শ ৭২জনের মধ্যে পাশ করেছিল ২ হাজার ২১৫ জন।পাশের হার ছিল ৪৬.৪২ শতাংশ।জিপিএ-৫ পেয়েছিল মাত্র ২ জন।
এবারে জেলার অধিকাংশ কলেজের সার্বিক ফলাফল নিম্নমানের হলেও প্রতিবারেরমত এবারও ঈর্ষনীয় সাফল্য পেয়েছে কক্সবাজার সরকারী বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ।
কক্সবাজার সরকারী কলেজের অধ্যক্ষ্য একেএম ফজলুল করিম চৌধূরী জানান, এবছর ৯৯৯ জন শিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেছে ৯৪০ জন এবং পাশের হার ৯৪.০৯ শতাংশ। আর জিপিএ-৫ পেয়েছে ৫১ জন। এর মধ্যে বিজ্ঞানে ৩৯ জন, ব্যবসায় শিক্ষায় ৬ জন এবং মানবিকে ৬ জন জিপিএ-৫ পেয়েছে। জিপিএ প্রাপ্তদের মধ্যে ২৪ জন ছেলে এবং ২৭ জন মেয়ে।
তিনি আরও জানান,বিজ্ঞান বিভাগে ৪০৪ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেছে ৩৯০ জন। পাশের হার ৯৬.৫৩ শতাংশ। জিপিএ-৫ পেয়েছে ৩৯ জন।
বণিজ্য বিভাগে ৩২৪ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেছে ৩১৪ জন। পাশের হার ৯৬.৯১ শতাংশ। জিপিএ-৫ পেয়েছে ৬ জন।
আর মানবিক বিভাগে ২৭১ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেছে ২৩৬ জন। পাশের হার ৮৭.০৮ শতাংশ। জিপিএ-৫ পেয়েছে ৬ জন।

সর্বশেষ সংবাদ

মিয়ানমার সফরে রোহিঙ্গা সমস্যা নিয়েও আলোচনা

ব্যারিস্টার হলেন খালেদা জিয়ার নাতনী জাইমা

আমি কি একটু বিষণ্ণও হতে পারবোনা?

মানুষ কষ্ট পাবে বলে ওয়ান ইলাভেনে কক্সবাজারের দায়িত্ব নিই নাই : ফোরকান আহমেদ

আত্মীয় ছাড়া অন্যরাও কিডনি দিতে পারবেন

বঙ্গবন্ধুকে স্মরণ করলেন জামায়াতের নতুন আমির, কিন্তু

দেশের সব স্বাস্থ্যকন্দ্রে দেওয়া হবে বিনামূল্যে স্যানিটারি ন্যাপকিন

রোহিঙ্গাদের সহায়তায় জাতিসংঘের স্বচ্ছতা নিয়ে প্রশ্ন টিআইবির

চকরিয়ায় দুইদিন ব্যাপী জাতীয় বিজ্ঞান মেলা ও বিজ্ঞান অলিম্পিয়াড উদ্বোধন

মাটি কেটে কদ্দাছড়ার শাখাখাল ভরাট কাজ বন্ধের নির্দেশ

রোহিঙ্গাদের হামলায় রক্ত ঝরলো স্থানীয় যুবকের

শহরে পণ্যের গুদামে আগুন, ১০ লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি

ডিসি কলেজের শিক্ষার্থীদের জীবনের গল্প শোনালেন সিএসপি হাসনাত আবদুল হাই

হিমছড়িতে গভীর রাতে কৃষকের ৫ লাখ টাকার গাছ ধ্বংস

স্থানীয় শিশুদের ১০ হাজার হাইজিন কিট দিয়েছে সেভ দ্য চিলড্রেন

ছাত্রদলের জালিয়াপালং উত্তর-দক্ষিণ, হলদিয়াপালং উত্তর ও পালংখালী কমিটি বিলুপ্ত 

বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে লেকচার দিতে ড. রাহমান নাসিরের অস্ট্রেলিয়া গমন

লোহাগাড়ায় ২ ফার্মেসীসহ ৫ দোকানীকে অর্থদন্ড

বীরঙ্গনা আলমাছকে পেয়ে আবেগাপ্লুত ডিসি, সরকারি সুবিধা দেয়ার আশ্বাস

টানা দ্বিতীয়বার মহেশখালীর শ্রেষ্ঠ প্রধান শিক্ষক শামীমা