চকরিয়ায় হামিদের খুনিদের ফাঁসির দাবীতে মানববন্ধন

মো. মনজুর আলম, চকরিয়া:

চকরিয়ার আলোচিত প্রকাশ্যে আবদুল হামিদ হত্যাকান্ডের জট খুলতে শুরু করেছে। এ হত্যাকান্ডে জড়িত প্রধান আসামি আবদুস সালাম ও তার সহযোগি মো: এমরানকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গত ১৬ জুলাই মঙ্গলবার উপজেলা সিনিয়র জুড়িশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে তাদের বিরুদ্ধে রিমান্ডের আবেদন করেন তদনকারী কর্মকর্তা। পরে আদালত দু’দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

এদিকে গতকাল বুধবার বিকাল তিনটায় খুনিদের ফাঁসির দাবীতে বিক্ষোভ ও মানববন্ধন করেছে শতশত নারী-পুরুষ। উপজেলা জুড়িশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতের সামনে ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধন করে। মানববন্ধনে খুনিদের ফাঁসি ও বাকি আসামিদের দ্রুত গ্রেফতারের দাবী জানানো হয়।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ও চকরিয়া থানার ওসি (তদন্ত) আতিকুর রহমান বলেন, গত ১৬ জুলাই আবদুস সালাম তার সহযোগি মো: এমরানকে চকরিয়া উপজেলা জুড়িশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে হাজির করা হলে হাকিম দু’দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। রিমান্ডে তাদের কাছ থেকে অনেক গুরুত্বপূর্ন তথ্য পাওয়া গেছে। তদন্তের স্বার্থে এসব তথ্য গোপন রাখা হ”েছ।

গত ১৩ জুন আবদুল হামিদকে হত্যা করে সন্ত্রাসীরা। এঘটনায় তার ভাই আবদুল আজিজ সালাম বাহিনীর প্রধান আবদুস সালামসহ ১০-১২জনের বিরুদ্ধে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। এরপর খুনিদের গ্রেফতারে বিভিন্ন ¯’ানে অভিযান চালানো হয়।

তিনি আরও বলেন, গত ৪ জুন আবদুস সালাম ও তার সহযোগি মো: এমরানকে চন্দ্বনাইশ উপজেলার একটি ভাড়া বাসা থেকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারের পর আসামিদের স্বীকারোক্তিমতে চিরিঙ্গা ইউনিয়নের চরণদ্বীপ থেকে দেশীয় তৈরী দুটি এক নলা বন্দুক ও ৪টি তাজা কার্তুজ উদ্ধার করা হয়।

মামলার বাদি আবদুল আজিজ বলেন, তার ভাই আবদুল হামিদ মাছ ও কাকড়া বিক্রি করে জীবিকা নির্বাহ করতো। ঘটনার দিন সকাল সাড়ে দশটায় চিরিঙ্গা ইউনিয়নের চরণদ্বীপ এলাকায় একটি চায়ের দোকানে নাস্তা করতে যায়। নাস্তা করে ফেরার পথে চরণদ্বীপের সালাম বাহিনীর প্রধান আবদুস সালামের নেতৃত্বে ১০-১২জন সশস্ত্র সন্ত্রাসী প্রকাশ্যে আবদুল হামিদকে এলোপাতাড়ি গুলি করে। একপর্যায়ে খুনিরা কুপিয়ে তার ভাইকে মৃত্যু নিশ্চিত করে পালিয়ে যায়।

তিনি আরও বলেন, তার ভাইকে হত্যার পর আসামিরা আরও বেপরোয়া হয়ে উঠেছে। তারা মামলা তুলে নিতে হুমকি ধমকি দি”েছন। বিভিন্ন অপরাধে সালামের বিরুদ্ধে ১৬টি এবং এমরানের ৬টি মামলা রয়েছে। আসামিদের হুমকি ধমকিতে তার পরিবার চরম নিরাপত্তাহীনতায় রয়েছে। খুনিদের দুইজন গ্রেফতার হলেও এখনো ৮-৯জন আসামি বাইরে রয়েছে। তাদেরকে দ্রুত গ্রেফতারের দাবী জানান তিনি।

চকরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো: হাবিবুর রহমান বলেন, আবদুল হামিদ হত্যাকান্ডে জড়িত দুই আসামিকে গ্রেফতরা করা হয়েছে। তাদের স্বীকারোক্তী মতে দুটি এক নলা বন্দুক ও গুলি উদ্ধার করা হয়েছে। বাকি আসামিদের গ্রেফতারের জন্য অভিযান অব্যাহত রয়েছে বলে জানান তিনি।

cbn

সর্বশেষ সংবাদ

বঙ্গবন্ধুর খুনিদের ফিরিয়ে আনার দাবিতে মারুফ আদনানের নেতৃত্বে ছাত্রলীগের স্বারকলিপি

মোবাইল অ্যাপে বিমানের টিকিট অক্টোবর থেকে

দুর্নীতির অভিযোগে হাইকোর্টের তিন বিচারপতিকে দায়িত্ব থেকে বিরত

উখিয়ায় সড়ক নির্মাণ কাজে অনিয়মের অভিযোগ, বালির পরিবর্তে দিচ্ছে রাবিস

আইএস-এর নতুন ঘাঁটি হচ্ছে কাশ্মির?

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন: চীন ও মিয়ানমারের প্রতিনিধি কক্সবাজারে

সহকারী কমিশনারের ড্রয়ার ভেঙে ইয়াবা চুরি : কারাগারে কনস্টেবল

টেকনাফে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ২ রোহিঙ্গা নিহত

মিয়ানমারে ভয়াবহ সংঘর্ষে ৩০ সেনা নিহত

প্রকাশ্যে অবৈধ অস্ত্রেরর মহড়া, অভিযানের দাবি ঢেমুশিয়া-কোনাখালীবাসীর

বঙ্গবন্ধুকে স্বপরিবারে হত্যার নেপথ্যে নায়ক ছিলেন জিয়াউর রহমান : রামুতে এমপি কমল

‘মুক্তি’ সভাপতি শিবুলালকে গ্রেফতার দাবি চকরিয়া উপজেলা ও পৌর পুজা উদযাপন পরিষদের

চৌফলদন্ডীতে পুলিশের উপর হামলা করে ইয়াবা ব্যবসায়ী ছিনতাই, আহত ২

আগরতলা-কক্সবাজার বাস চালুর পরিকল্পনা

টেকনাফের বর্ষীয়ান বিএনপি নেতা মাস্টার জাকের আর নেই, শাহজাহান চৌধুরীর শোক

সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকের দ্বন্দ্ব: হ-য-ব-র-ল টেকনাফ উপজেলা বিএনপি

মাতামুহুরী নদী থেকে দুই হাজার মিটার নিষিদ্ধ কারেন্ট জাল জব্দ

চট্টগ্রামে বিষাক্ত মদ পানে ৩ জনের মৃত্যুর রহস্য উদঘাটিত

পুলিশ সুপার বরাবরে আকুল আবেদন

শান্তিপূর্ণ ও নিরাপদ পরিবেশে জন্মাষ্টমী অনুষ্ঠানমালা করতে পুলিশ বদ্ধপরিকর : এসপি মাসুদ