হাফিজুল ইসলাম চৌধুরী :
কক্সবাজারের রামুতে বিদ্যুৎ সরবরাহ কার্যালয়ে চুরির ঘটনা ঘটেছে। কার্যালয়ের উচ্চমান সহকারি নজরুল ইসলামের কক্ষের দরজার তালা ভেঙে চুরের দল মঙ্গলবার (১৬ জুলাই) ভোরে এই ঘটনা ঘটান। কিন্তু এ বিষয়ে দায়সারা ভাব দেখাচ্ছে কর্তৃপক্ষ। এ পর্যন্ত ঘটনার বিষয়ে থানায় জিডিও করা হয়নি।

এদিকে সীমানা প্রাচীর, তালা সংবলিত গেইট এবং সিসি ক্যামেরা থাকা স্বর্থেও গুরুত্বপূর্ণ কার্যালয়ে চুরির ঘটনা সংঘটিত হওয়ায় স্থানীয়রা কূরুচিপূর্ণ মন্তব্য করছেন। স্বর্ষের মধ্যে ভূত আছে কিনা? সেটাও বেশ আলোচনা হচ্ছে।

মঙ্গলবার বিকেলে সরেজমিনে দেখা যায়- উচ্চমান সহকারির কক্ষের দরজা এবং আলমারির তালা ভাঙ্গা। সরকারি কম্পিউটারটি নেই। লুট হয়েছে গুরুত্বপূর্ণ কাগজপত্র। যাছাই করে দেখা যায় কার্যালয়ের সিসি ক্যামেরা গুলোও নষ্ট হয়ে আছে।

জানতে চাইলে রামু বিদ্যুৎ বিতরণ বিভাগের আবাসিক প্রকৌশলি এস. এম. মঈনুল ইসলাম জানান তিনি প্রশিক্ষণে আছেন। কার্যালয়ের উপসহকারি প্রকৌশলি মেহেদি হাসান বিস্তারিত বলতে পারবেন। তবে মেহেদি হাসান জানালেন এ ব্যাপারে তিনিও কিছু বলতে পারবেন না।

দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে কক্সবাজার বিদ্যুৎ বিতরণ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলি আব্দুল কাদের গণি বলেন- মঙ্গলবার সন্ধ্যায় খবর পেয়ে এ ব্যাপারে থানায় জিডি করতে বলা হয়েছে।

রামু থানার ওসি মো. আবুল মনসুর বলেন- বিষয়টি পুলিশকে কেউ অবগত করেনি। লিখিত অভিযোগ পেলে তদন্ত পূর্বক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •