লোহাগাড়া প্রতিনিধি:

চট্টগ্রামের লোহাগাড়ার পুটিবিলা সরাইয়া নলুয়া এলাকায় নিজের মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগে পিতা নুরুল আলম (৩৭) কে আটক করেছে পুলিশ।
বুধবার (৩ জুলাই) দিবাগত রাত ৯টায় লোহাগাড়া থানা পুলিশ তাকে আটক করে। সে ওই এলাকার ফয়েজ আহমদের ছেলে।
জানা যায়, দীর্ঘ ৬ মাস ধরে নিজের মেয়েকে ধর্ষণ করে আসছে নুরুল আলম। ভিকটিম এখন প্রায় ৬ মাসের অন্তঃসত্ত্বা। এতদিন গোপন থাকার পর ঘটনাটি লোকেমুখে জানাজানি হলে স্থানীয়রা তাকে আটক করে পুলিশে দেয়।
ধর্ষিতা জানিয়েছে, ছোটকালে তার মা মারা যাওয়ায় সে নানার বাড়ি চুনতি পান্ত্রিশা গ্রামে বড় হয়। তার বাবা আরো একটি বিয়ে করে। সে সংসারে একটি ছেলে সন্তান হয়। এরপর সৎ মা মারা যায়। আবারো বিয়ে করে তার বাবা। সেই সংসারে ২ ছেলে রয়েছে। গত ৬/৭ মাস আগে সে নানার বাড়ি থেকে সে বাবার বাড়িতে যায়। ওই সময় তার সৎ মা বাপের বাড়ি যায়।
সৎ মার বাপের বাড়ি যাওয়ার কয়েকদিন পর বাড়িতে রাতে ঘুমানোর সময় মূখ চেপে ধরে হুমকি দিয়ে জোর করে ধর্ষন করে। ঘটনাটি বাড়ির পার্শ্বের লোকদের বললে তারা কেও বিশ্বাস করেনি। এর কয়েকদিন পর আবারো রাতে ঘুমানোর সময় জোর করে ধর্ষণ করলে পরদিন নানার বাড়ি চলে যায়। নানার বাড়ি থেকে আবারো বাপের বাড়ি যায়। সেবারও ধর্ষণ করে।
লামা উপেজলা সরই ইউনিয়নের সদস্য মো: নাছির উদ্দিন জানান, পিতা কর্তৃক কন্যাকে ধর্ষণ লোহমর্ষক ঘটনা।
অভিযানকারী পুলিশ উপ-পরিদর্শক (এসআই) পীযূষ চন্দ্র সিংহ জানান, ধর্ষণের অভিযোগে পিতাকে আটক করা হয়েছে।
লোহাগাড়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ সাইফুল ইসলাম জানান, নিজ মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগে পিতাকে আটক করা হয়েছে। তবে, মেডিকের রিপোর্ট না পাওয়া পর্যন্ত কিছু বলা যাচ্ছে না।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •