নিউইয়র্ক থেকে: নিউইয়র্কে উৎসবমুখর পরিবেশে অনুষ্ঠিত হয়েছে কক্সবাজার ইয়ং ফোরাম ইউএসএ’র বনভোজন। প্রাকৃতিক সোৗন্দর্যমন্ডিত ওয়েস্টচেষ্টার ক্রোটন পয়েন্ট পার্কে গত ৩০ জুন রোববার এ বনভোজন অনুষ্ঠিত হয়। নিউইয়র্কসহ যুক্তরাষ্ট্রে বসবাসরত কক্সবাজার জেলার নারী-পুরুষ-শিশু-কিশোররা দিনভর পার্কের খোলা মাঠে খেলাধুলাসহ নানান আনন্দে মেতে ওঠেন। বর্ণাঢ্য এ আয়োজনে কমিউনিটি নেতৃবৃন্দ সহ কক্সবাজার জেলার বিপুল সংখ্যক প্রবাসী যোগ দেন। কক্সবাজার প্রবাসীদের এই মিলন মেলায় ছিল বাংলাদেশী মজাদার খাবার-দাবার, খেলা-ধূলা, রাফেল ড্র ও মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক পরিবেশনা।

এদিন সকালে বাস ও কার যোগে কক্সবাজার জেলার প্রায় ৬২টি পরিবারের সমন্বয়ে তিন শতাধিক প্রবাসী অংশগ্রহন করে। চমৎকার আবহাওয়ায় দারুণভাবে জমে উঠেছিল উৎসবটি। পার্কের খোলা মাঠে খেলাধুলাসহ নানান আনন্দ মেতে ওঠেন যুক্তরাষ্ট্রে বসবাসরত কক্সবাজার জেলার শিশু-কিশোর সহ নানা বয়সি মানুষজন। স্বদেশীয় আবেগ, অনুভূতি ও উচ্ছ্বাসের মধ্য দিয়ে পার্কটি রূপ নেয় প্রবাসে একখন্ড কক্সবাজার।

কক্সবাজার ইয়ং ফোরাম ইউএসএ’র কার্যক্রমকে স্বাগত জানিয়ে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন কমিউনিটি এক্টিভিস্ট মাসুদ হোসেন সিরাজী, আবুল কালাম আজাদ, আলী হাসান চৌ:, হাসান চৌ:, মতিউর চৌ: প্রমুখ। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন মো: শাহজাহান, মো: ইউসুফ হারুন, আবদুল জলিল, শাহ আলম, জিসান, ফয়সাল, আরিফ, রহিম, কফিলসহ অনেক। সংগঠনের কর্মকর্তা মিজবাহ, ইরফান, মুহিব, বাহাদুর ধন্যবাদ জানিয়ে বক্তব্য রাখেন। সার্বিক সহযোগিতায় ছিলেন পিকনিক উদযাপন কমিটির আয়াছ, হামিদ, সানাউল্লাহ, মাহফুজ, সুহাশ, সিদুল, লিটন, আশফাক, ইসলাম, রাসেল, মামুন, সেলিম, সরওয়ার, শাহেদ, লিমন প্রমুখ।

এর আগে বনভোজন স্থলে সমবেত হওয়ার পর অতিথিদের এপিটাইজার পরিবেশন করা হয়। এরপর শুরু হয় বিভিন্ন ক্রীড়া প্রতিযোগিতা। ড্র ও খেলাধুলায় অংশগ্রহণকারিদের মাঝে পুরস্কার বিতরণের মধ্য দিয়ে বনভোজনের কার্যক্রম শেষ হয়।

উল্লেখ, গতানুগতিক সমিতির ভূলবোঝাবুঝির অবসানের লক্ষ্যে তরুনদের এই আয়োজনে আগত অতিথি ও কক্সবাজারবাসীর মধ্যে প্রশংসার বন্যা বয়ে যাচ্ছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •