মুহাম্মদ আবু সিদ্দিক ওসমানী :

প্রতিজন শুধুমাত্র ১০৩ টাকা ব্যয় করে কক্সবাজার জেলায় ৩৮৬ জন ট্রেইনি রিক্রুট কনস্টেবল (টিআরসি) নিয়োগের জন্য চুড়ান্ত ফলাফল প্রকাশ করা হয়েছে। কক্সবাজারের পুলিশ সুপার ও টিআরসি নিয়োগ কমিটির প্রধান এ.বি.এম মাসুদ হোসেন বিপিএম বিষয়টি সিবিএন-কে নিশ্চিত করেছেন। মঙ্গলবার ২ জুলাই টিআরসি নিয়োগের জন্য এ চুড়ান্ত ফলাফল প্রকাশ করা হয়। নিয়োগের জন্য প্রকাশিত চুড়ান্ত ফলাফলের মধ্যে সাধারণ কোটা (পুরুষ) ৩৩৭ জন, মুক্তিযোদ্ধা কোটা (পুরুষ) ৪ জন, পুলিশ পোষ্য কোটা (পুরুষ) ২ জন, আনসার ভিডিপি কোটা (পুরুষ) ১ জন, ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্টি কোটা (পুরুষ) ২ জন, সাধারণ কোটা (নারী) ৩৯ জন, পুলিশ পোষ্য কোটা (নারী) ১ জন সহ সর্বমোট ৩৮৬ জন উত্তীর্ণ হয়েছেন। এছাড়া অপেক্ষামান তালিকায় আরো ৩৭ জনকে রাখা হয়েছে। অপেক্ষামানের মধ্যে সাধারণ কোটা (পুরুষ) ৩৬ জন ও ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্টী কোটা (পুরুষ) ১ জন। সোমবার ১ জুলাই অনুষ্ঠিত মনস্তাত্ত্বিক ও মৌখিক পরীক্ষা শেষে
মঙ্গলবার চুড়ান্ত ফলাফল প্রকাশিত হয়। সম্পূর্ণ স্বচ্ছ, নিরপেক্ষ, প্রভাবমুক্ত ও ঘুষমুক্ত থেকে এ নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা হয়েছে বলে এসপি এ.বি.এম মাসুদ হোসেন বিপিএম সিবিএন-কে জানান। প্রসঙ্গত, ৩৮৬ জন নিয়োগের অনুকূলে গত ২৬ জুন দেড় সহস্রাধিক প্রার্থী স্বাস্থ্য ও শরীরের মাপ পরীক্ষায় অংশ নিয়ে ৭৫৩ জন উত্তীর্ণ হয়। উত্তীর্ণ ৭৫১ জন প্রার্থী গত ২৭ জুন লিখিত পরীক্ষায় অংশ নেয়। লিখিতপরীক্ষায় ২ জন প্রার্থী অনুপস্থিত ছিল। লিখিত পরীক্ষায় ৬১৯ জন প্রার্থী উত্তীর্ণ হয়। সকল প্রক্রিয়ায় টিআরসি নিয়োগ কমিটির চেয়ারম্যান এসপি এ.বি.এম মাসুদ হোসেন বিপিএম, পুলিশ সদর দপ্তরের একজন এসপি, একজন এডিশনাল এসপি, ভিন্ন জেলার দু’জন এডিশনাল এসপি, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর) রেজওয়ান আহমেদ, চকরিয়া সার্কেলের সিনিয়র এএসপি কাজী মতিউল হক, এএসপি (ডিএসবি), মহেশখালী সার্কেলের এএসপি রতন কুমার দাশ সহ নিয়োগ কমিটি সকল সদস্য উপস্থিত ছিলেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •