লোহাগাড়া প্রতিনিধি:

চট্টগ্রামের লোহাগাড়া উপজেলার পশ্চিম কলাউজান (বাংলা-বাজার)’র দক্ষিণে মালিপাড়া ও বাহাদুরপাড়া এলাকায় (কেবিকে) নামক ইটভাটার কার্যক্রম স্থায়ীভাবে কেন বন্ধ হবে না জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন মহামান্য হাইকোর্ট।

বিচারপতি এফ.আর.এম নাজমুল আহসান ও বিচারপতি কে.এম কামরুল কাদের সমন্বিত বেঞ্চ এ আদেশ দেন। বিবাদীদেরকে ৪ (চার) সপ্তাহের মধ্যে এ রুল নিশির জবাব দিতে বলেছেন হাইকোর্ট।

বিভিন্ন পত্রপত্রিকায় প্রকাশিত সংবাদের জের ধরে এ রিট দায়ের করেন এডভোকেট রাশেদা চৌধুরী নিলু।

বিবাদী তথা উত্তরদাতারা হলেন বাংলাদেশ সরকারের সচিব, পরিবেশ বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়. বাংলাদেশ সচিবালয়. রমনা, ঢাকা।

মহাপরিচালক, পরিবেশ অধিদপ্তর, ঢাকা। উপ-পরিচালক, পরিবেশ অধিদপ্তর, চট্টগ্রাম জোন। ডেপুটি কমিশনার, চট্টগ্রাম জেলা ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার, লোহাগাড়া, চট্টগ্রাম।

জানা যায়, ইট প্রস্তুত ও ভাটা স্থাপন (নিয়ন্ত্রণ) আইন, ২০১৩ অমান্য করে লোহাগাড়া উপজেলার পশ্চিম কলাউজান (বাংলা বাজারের) দক্ষিণে মালিপাড়া ও বাহাদুর পাড়া বিলে ফসলী জমি ও লোকালয়ে (কেবিকে) নামে একটি ইটভাটা গড়ে উঠছিল। পরিবেশ ধ্বংসকারী ইটভাটার কার্যক্রম কেন স্থায়ীভাবে বন্ধ ঘোষণা করা হবে না জানতে চেয়ে মহামান্য হাইকোর্ট এ রুল জারি করেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •