প্রেস বিজ্ঞপ্তি:

সময়ের পালাবদলের সাথে সাথে সভাপতিরও পরিবর্তন ঘটেছে রোটারেক্ট ক্লাব অফ কক্সবাজার সৈকতে। নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট হলেন মোহাম্মদ সুমনুল হক সুমন।  ২০১৮-১৯ এর প্রেসিডেন্ট হেলাল মুরশেদ সোহাগ এর তত্বাবধানে তার রোটারেক্ট বর্ষের শেষ অধিবেশনে সকল রোটারেক্টর এবং অনেক পিপি এর উপস্থিতি এর মাধ্যমে আনুষ্ঠানিকভাবে  বে টাচ” এ মহা আনন্দের সাথে সম্পন্ন হল প্রেসিডেন্ট নির্বাচন এবং শেষ অধিবেশনের কার্যক্রম।  এই অনুষ্ঠানে রোটারেক্ট ক্লাব অফ কক্সবাজার সৈকত এর প্রেসিডেন্ট, পিপি, আইপিপি, সদস্য এবং বিভিন্ন পদে দায়িত্বরত সদস্য ছাড়াও ৩২৮২ এর অধিনের অনেক ক্লাবের উচ্চ পদস্থ অনেকে উপস্থিত ছিলেন।  পিপি, আইপিপি এবং সকলে রোটারেক্ট ক্লাব সম্পর্কে অনেক গুরুত্বপূর্ণ তথ্য শেয়ার করেছেন ভবিষ্যত কক্সবাজার সৈকত এর কর্ণধারদের মাঝে যা থেকে তারা নেতৃত্ব দানের একটা গুণাবলী শিখতে পারবে। সবচেয়ে বড় কথা হচ্ছে সেখানে ক্লাবের সদস্য ছাড়াও অনেক অতিথিও উপস্থিত ছিলেন।

রোটারেক্ট ক্লাব হলো বিশ্বব্যাপী সংগঠন।  ফলে সারাবিশ্বে একই নিয়মনীতি, একই রকম কাজ। একজন প্রেসিডেন্ট জুলাই মাসের ১ তারিখ ক্লাবের প্রেসিডেন্ট পদে দায়িত্ব গ্রহণ করবে এবং পরের বছর জুন মাসের ৩০ তারিখ তিনি স্বয়ংক্রিয়ভাবে প্রেসিডেন্ট পদ থেকে ক্ষমতা হারিয়ে ফেলবে। কারণ সারা বিশ্বের নিয়ম এরকম।  একইভাবে গতবছর জুলাই মাসের ১ তারিখ থেকে হেলাল মুরশেদ সোহাগ রোটারেক্ট ক্লাব অফ কক্সবাজার সৈকত এর প্রেসিডেন্ট পদে দায়িত্ব গ্রহণ করেন এব আগামী ৩০ তারিখ তার পদের মেয়াদ শেষ হবে। যার ফলে ক্লাবকে সামনে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য শেষ অধিবেশনে প্রেসিডেন্ট নির্বাচন করা হয়। এই নির্বাচনে প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী হিসেবে লড়াই করছিলেন রোটারেক্টর ইঞ্জিনিয়ার জাবেরুল গণি এবং মোহাম্মদ সুমনুল হক সুমন। অবশেষে নির্বাচনে জয়ের মালা অর্জন করলেন মোহাম্মদ সুমনুল হক সুমন।  রোটারেক্ট বর্ষ ২০১৯-২০ এর একবছরের নেতৃত্ব দেওয়ার ভার সুমনের হাতে অর্পন করলেন প্রেসিডেন্ট হেলাল এবং পিপিসহ সকলেই।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •