চকরিয়া সংবাদদাতা :
কক্সবাজারের চকরিয়ায় প্রতিপক্ষের স্বশস্ত্র সন্ত্রাসী হামলায় কলেজ পড়ুয়া ছাত্রীসহ একই পরিবারের মা-মেয়ে চার জনকে কুপিয়ে আহত করার ঘটনা নিয়ে মামলা করায় বাদীকে প্রাণনাশের হুমকি দেয়ার অভিযোগ উঠেছে। এ নিয়ে ভুক্তভোগী মামলার বাদী বৃহস্পতিবার রাত্রে আটজনকে অভিযুক্ত করে আরো ৪/৫ জনকে অজ্ঞাতনামা দেখিয়ে চকরিয়া থানায় সাধারণ দায়েরী রুজু করেন। বর্তমানে আসামীদের প্রাণনাশের হুমকিতে পরিবারের সদস্য নিয়ে চরম অাতঙ্কে ভুগছে বলে দাবী করেন তিনি।
অভিযোগ সূত্রে জানাগেছে, পারিবারিক ও পূর্ব শত্রুতার জেরে গত ৪ জুন (মঙ্গলবার) রাত সাড়ে ৭টার দিকে চকরিয়া পৌরসভাস্থ ৮নম্বর ওয়ার্ডের স্টেশন পাড়া এলাকার আবু ছালামের স্ত্রী কামরুন্নাহার সাথে একই এলাকার আবদুল গণির ছেলে আবুল কালামের পরিবারের সদস্যদের সাথে তুচ্ছ বিষয় নিয়ে তর্কে জড়িয়ে যায়। এতে দু’পক্ষের মধ্যে তর্কের একপর্যায়ে আবুল কালামের ছেলে হানিফ তার ভাই মিসকাত ও তাদের চাচাতো ভাই রিসাত ও আরিফ দেশীয় তৈরি ধারালে অস্ত্রনিয়ে অতর্কিত ভাবে কামরুন্নাহার উপর হামলা চালিয়ে মারধর করে কুপিয়ে গুরুতর আহত করা হয়। এতে হামলার শিকার কামরুন্নাহারকে বাঁচাতে গেলে প্রতিপক্ষের লোকজন তার কলেজ পড়ুয়া বড় মেয়ে উর্মি জন্নাত (১৯) তার বোন রুমি (১৭) ও রুম্পা (১৩) বেদড়ক মারধর করে আহত করা হয়েছে। স্থানীরা ঘটনাস্থল থেকে আহতদের উদ্ধার করে চকরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। এ ঘটনায় আহত কামরুন্নাহার বাদী হয়ে গত ৮জুন চকরিয়া থানায় ১৭/২৮৯ মামলা দায়ের করে। মামলা দায়ের করার পর থেকে অভিযুক্ত আসামীরা মামলার বাদী কামরুন্নাহার ও তার পরিবারের সদস্যদেরকে বাড়ির সামনে গিয়ে নিত্যদিন নানা ধরণের অশ্লীল গালি-গালাজ করে মামলা তুলে নিতে ভয়ভীতি প্রদর্শন করে যাচ্ছে বলে জানায়। সর্বশেষ ২৭ (জুন) বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার দিকে থানায় দায়েরকৃত মামলার অভিযুক্ত আসামীরা মামলা তুলে নেয়ার জন্য হাঁকাবাকা করে মামলার বাদী কামরুন্নাহারকে প্রকাশ্যে প্রাণনাশের হুমকির দেন। এমনকি মামলার বাদী দায়েরকৃত মামলা তুলে না নিলে তাদেরকে পুন:রায় মারধর করে কাটিবে ও তার পরিবারের সদস্যদের মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানী ও খুন করে লাশ গুম করার হুমকি দিয়ে যাচ্ছে বলে বাদী সাংবাদিকদের জানান। বর্তমানে আসামীদের প্রাণনাশের হুমকিতে পরিবারের সদস্য নিয়ে চরম অাতঙ্কে ভুগছে বলে দাবী করেন তিনি। এনিয়ে নিয়ে মামলার বাদী কামরুন্নাহার বৃহস্পতিবার রাত্রে আটজনকে অভিযুক্ত করে আরো ৪/৫ জনকে অজ্ঞাতনামা দেখিয়ে চকরিয়া থানায় সাধারণ দায়েরী নং-১২২৬/১৯রুজু করেছে।
চকরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. হাবিবুর রহমান বলেন, ঘটনার বিষয়ে থানায় সাধারণ ডায়েরী রুজু করা হয়। তদন্তে অভিযোগ প্রমাণিত হলেই আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে তিনি জানান।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •