হেলাল উদ্দিন, টেকনাফ :
টেকনাফে পুলিশের হাতে আটক হত্যা মামলার আসমী ও সন্ত্রাসীদের নিয়ে অস্ত্র উদ্ধার অভিযানে সন্ত্রাসী দলের সাথে বন্দুকযুদ্ধে দুই সহোদয় নিহত হয়েছে। শুক্রবার (২৮জুন) মধ্যরাতে উপজেলার হ্নীলা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের পশ্চিমে পাহাড়ে বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে।
ঘটনাস্থাল থেকে অস্ত্র-গুলি, কিরিচ ও ছাঁকু উদ্ধার করা হয়েছে।
নিহতরা উপজেলার হ্নীলা পশ্চিম সিকদার পাড়া এলাকার মৃত মাহমুদুর রহমান প্রকাশ বাইট্টা মাদুর দু’পুত্র আব্দুর রহমান (২৮) ও আব্দুস সালাম (২৬)।
টেকনাফ মডেল থানা ওসি (তদন্ত) এবি এস দোহা সিবিএনকে জানান, আটক দুই সহদোয় সন্ত্রাসী ও ইয়াবা কারবারীকে নিয়ে শুক্রবার ভোররাতে অবৈধ অস্ত্র উদ্ধারে যায় পুলিশ। এসময় উপস্থিতি টের পেয়ে সন্ত্রাসীরা পুলিশকে লক্ষ করে গুলি চালায়। পুলিশও আত্মরক্ষার্থে গুলি চালালে এক পর্যয়ে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়। পরে ঘটনাস্থাল তল্লাসী চালিয়ে ২টি দেশীয় তৈরী এলজি, ৭ রাউন্ড তাজা কার্তুজ, ১২ রাউন্ড খালি খোসা, ২টি কিরিচ ও ২টি ছাঁকু গুলিবিদ্ধ অবস্থায় আব্দুর রহমান ও আব্দুস সালমকে উদ্ধার করা হয়। গুলিবিদ্ধদের চিকিৎসার জন্য জেলা সদর হাসপাতালে নেওয়ার পথে উক্ত সহোদর মারা যায়। তাদের মৃতদেহ উদ্ধার করে মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। এই ব্যাপারে তদন্ত স্বাপেক্ষে জড়িতদের বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের প্রক্রিয়া চলছে।
নিহত দু’ভাই গত ২১জুন সকালে তারা পশ্চিম পানখালীর ইদ্রিসের পুত্র দুই সন্তানের জনক মোঃ ইসমাঈলকে (২৫) ছুরিকাঘাত করে হত্যা করে। এছাড়া গত দেড় মাস পূর্বে একই এলাকার মৃত আব্দুল জাব্বারের পুত্র জাহেদ হোছনকে (৬৫) কথা কাটাকাটির জেরধরে বেধড়ক পিটিয়ে পঙ্গু করে দেয়। চলতি বছরের গত ৪ ফেব্রুয়ারী স্থানীয় ইব্রাহীম নামের এক যুবককে ছুরিকাঘাত করে নাড়ি-ভূঁড়ি বের করে ফেলে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •