সংবাদদাতাঃ
কক্সবাজার বাসটার্মিনাল সংলগ্ন ইসলামাবাদ লারপাড়ার রমজান আলী নামের এক ব্যক্তিকে পুলিশ পরিচয়ে সাদা পোশাকধারীরা বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ উঠেছে। তিনি ওই এলাকার মৃত নুরুল ইসলামের ছেলে।
রমজান আলীর স্ত্রী রোজিনা আক্তার সাংবাদিকদের অভিযোগ করে জানান, বুধবার দিবাগত রাত ২টার দিকে একদল সাদা পোশাকধারী লোক তার স্বামীকে মারতে মারতে একটি মাহিদ্রা গাড়িতে তুলে নিয়ে যায়। সাদা পোশাকধারীদের সঙ্গে কয়েকজন পুলিশ সদস্যও উপস্থিত ছিল। তবে, তাদের কাউকে চিনতে পারেন নি রোজিনা।
তার দাবি, পুলিশই তার স্বামী রমজান আলীকে গ্রেফতার করেছে। ২৪ ঘন্টা পরেও আদালতে না তুলায় স্বজনেরা উৎকন্ঠায় রয়েছে। অবুঝ শিশুদের কান্নায় আকাশ-বাতাস ভারী হয়ে উঠেছে।
রোজিনা আক্তার জানান, সারাদিন সদর মডেল থানাসহ বিভিন্ন স্থানে খোঁজ নিতে গেলে কেউ তার স্বামীর গ্রেফতারের কথা স্বীকার করছেনা। জিডি করতে গেলেও থানা কর্তৃপক্ষ জিডি নেয়নি।
কক্সবাজার মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ ফরিদ উদ্দীন খন্দকার রমজান নামে কাউকে গ্রেফতার করা হয়নি বলে জানান।
জিডির না নেয়ার বিষয়ে ওসি জানান, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর নামে না জেনে ডিজি নেয়ার নিয়ম নেই। তবু, তিনি বিষয়টি খোঁজখবর নিয়ে দেখবেন বলে আশ্বস্ত করেন।
এদিকে, রমজান আলীকে না পেয়ে চরম অনিশ্চিতা ও উৎকন্ঠায় রয়েছে পরিবারের সদস্যরা।
আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও সরকারের কাছে রমজানের সন্ধান চেয়ে আকুতি জানিয়েছে রমজান আলীর ছোট ভাই জাফর আলম।
তিনি জানান, তার ভাইয়ের যদি কোন দোষ থাকলে তাকে যেন আদালতের মাধ্যমে জেলে পাঠানো হয়। নিখোঁজ ভাইকে খুঁজে বের করতে সরকার ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সহযোগিতা চেয়েছেন ভাই জাফর আলম।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •