হাফিজুল ইসলাম চৌধুরী :
‘কাজল অত্যন্ত ভদ্র ছিলেন। কারও সাথে কখনো বেয়াদবি করেছে এমন প্রমান পাওয়া যাবে না। কিন্তু তাঁর জীবনটা ছিলো অত্যন্ত দাপুটে।’ কান্নাজড়িত কণ্ঠে কথাগুলো বলছিলেন- চট্টগ্রাম মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের সহকারি কলেজ পরিদর্শক আবুল কাশেম মোহাম্মদ ফজলুল হক।

‘খুব কম বয়সেই কাজল মারা গেলেন। এই মৃত্যু কি মেনে নেওয়া যায়? বলতে বলতে এক ভদ্রলোক জনারণ্যে মিশে গেছেন।

একদিন সবাইকে চলে যেতে হবে। কিন্তু কক্সবাজারের রামুর গর্জনিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সৈয়দ নজরুল ইসলামের ছোট ভাই, সৈয়দ ফখরুল ইসলাম কাজলের (৩৮) এমন মৃত্যু কাঁদিয়েছে সবাইকে।

বুধবার (২৬ জুন) সরেজমিনে দেখা যায়- বাবার লাশ গ্রামের বাড়িতে পৌঁছার পর থেকেই ‘হাও’ ‘মাও’ করে অবিরত কান্না করছে চতুর্থ শ্রেণি পড়ুয়া একমাত্র সন্তান সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল (০৯)।

বাবার লাশ দেখতে যাওয়া রামু উপজেলা পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান সোহেল সরওয়ার কাজল ও সদ্য সাবেক উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান রিয়াজ উল আলমকে কদমবুচি করে বুকে জড়িয়ে অঝোরে কাঁদছিলেন আলাল। এসময় তাঁরা পরম মমতায় আলালকে সান্তনা দিয়ে বাবার জন্য দোয়া করতে বলেন।

বুধবার (২৬ জুন) বাদ আসর স্থানীয় জুমছড়ি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে কাজলের জানাজা নামাজ অনুষ্ঠিত হয়। পরে পারিবারিক কবরস্থানে মরদেহ দাফন করা হয়। জানাজা নামাজে সর্বস্থরের মানুষের ঢল নামে।

নামাজের আগে আজিজ মওলার পরিচালনায় সংক্ষিপ্ত বক্তব্য দেন- রামু উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান সোহেল সরওয়ার কাজল, সাবেক উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান রিয়াজ উল আলম, সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান ফজলুল্লাহ মোহাম্মদ হাসান, মরহুমের একমাত্র বড় ভাই গর্জনিয়া ইউপি চেয়ারম্যান সৈয়দ নজরুল ইসলাম, শিল্পপতি আব্দুল মাজেদ সিকদার, আওয়ামী লীগ নেতা ফরিদ আহমদ চৌধুরী, কচ্ছপিয়া ইউপি চেয়ারম্যান আবু ইসমাঈল মো. নোমান, ঈদগড় ইউপি চেয়ারম্যান ফিরোজ আহমদ ভূট্টো, চাকমারকুল ইউপি চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম সিকদার, কাউয়ারখোপ ইউপি চেয়ারম্যান মোস্তাক আহমদ, চট্টগ্রাম মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের সহকারি কলেজ পরিদর্শক আবুল কাশেম মো.ফজলুল হক প্রমূখ।

জানাজা নামাজ শেষে শোকসন্তপ্ত পরিবারবর্গকে গভীর সমবেদনা জানান- রামু উপজেলা যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক সাংবাদিক নীতিশ বড়ুয়া, রামু উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক নুরুল হক চৌধুরী, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান সালাহ উদ্দিন, নারী ভাইস চেয়ারম্যান আফসানা জেসমিন পপি, গর্জনিয়ার সমাজসেবক ইস্কান্দর মির্জা, যুবলীগ নেতা নবিউল হক আরকান, মাসুদুর রহমান, গর্জনিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি মোহাম্মদ ইউছুফ, ইউনিয়ন পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান নুরুল আলম, ইউনিয়ন যুবলীগ সভাপতি হাফেজ আহমদ, ইউপি সদস্য আব্দুল জব্বার, স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা সরওয়ার কামাল প্রমূখ।

এদিকে, সৈয়দ ফখরুল ইসলাম কাজলের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন- গর্জনিয়া ইউনিয়ন পরিষদের পাঁচ বারের নির্বাচিত সাবেক চেয়ারম্যান তৈয়ব উল্লাহ চৌধুরী, গর্জনিয়ার আমেরিকা প্রবাসি মো.সাইফুল্লাহ চৌধুরী লেবু, পালর্স বাংলাদেশের নির্বাহী পরিচালক মো.সাইফুল ইসলাম চৌধুরী কলিম প্রমূখ।

সিস্টেমিক লুপাস ইরিথেমেটোসাস বা এসএলই নামক অটোইমিউন রোগে আক্রান্ত সৈয়দ ফখরুল ইসলাম ওরফে কাজল (৩৮) মঙ্গলবার (২৫ জুন) দিবাগত রাত পৌনে তিনটার দিকে ঢাকার গ্রীন লাইফ হসপিটালের আইসিইউ বা ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিটে (নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্র) চিকিসাধীন অবস্থায় মারা যান। একই রাতে সংকটাপন্ন অবস্থায় আইসিইউ-তে কাজলকে তাঁকে দেখতে যান কক্সবাজার ৩ (সদর-রামু) আসনের সংসদ সদস্য সাইমুম সরওয়ার কমল। কাজল এক সন্তানের জনক।

সংবাদকর্মী মো.নিজাম উদ্দিন ও গর্জনিয়া ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টারের উদ্যোক্তা তানজীদ রায়হান জানান- সৈয়দ ফখরুল ইসলাম কাজল গত একসপ্তাহ আগে অসুস্থ অবস্থায় সৌদিআরব থেকে চিকিৎসা করতে দেশে আসেন। চিকিৎসার জন্য তাঁকে ঢাকায় নেয়া হয়। চিকিৎসার এক সপ্তাহ হতে না হতেই সবাইকে শোকের সাগরে ভাসিয়ে তিনি না ফেরার দেশে চলে গেলেন।

চিকিৎসকেরা জানিয়েছেন-সিস্টেমিক লুপাস ইরিথেমেটোসাস বা এসএলই নামক অটোইমিউন রোগে (শরীরের অ্যান্টিবডি দেহের কোষগুলোকে নিজের শরীরই ধ্বংস করে) রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা অনেক কমে যায়। এই রোগে গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গপ্রত্যঙ্গ ক্ষতিগ্রস্ত হয়। এসএলই দীর্ঘস্থায়ী স্বত:প্রতিরোধী রোগ যা শরীরের বিভিন্ন অঙ্গপ্রত্যঙ্গ বিশেষ করে চর্ম, গিরা, রক্ত, কিডনি এবং কেন্দ্রীয় স্নায়ু সিস্টেমকে আক্রান্ত করে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •