রাঙামাটির সুবলংয়ে জেএসএস’র দু’গ্রুপে গুলি বিনিময় ॥ গুলিবিদ্ধ সংস্কারপন্থী নেতা নিখোঁজ

আলমগীর মানিক,রাঙামাটি :

পাহাড়ের আঞ্চলিক দুই সংগঠনের মধ্যে গোলাগুলিতে গুলিবিদ্ধ জেএসএস এমএন লামরাগ্র“পের এক নেতা কাপ্তাই হ্রদের পানিতে তলিয়ে নিখোঁজ হয়েছে বলে জানাগেছে। বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে নয়টার সময় রাঙামাটির সুবলং ইউনিয়নের কাচালং দোর এলাকায় এই ঘটনা সংগঠিত হয়েছে। পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি জেএসএস ও তাদের অন্যতম প্রধান শত্র“ সংস্কারপন্থী জেএসএস এর মধ্যে এই গোলাগুলির ঘটনা সংগঠিত হয়েছে। এসময় গুলিবিদ্ধ হয়ে কোকো চাকমা নামে সংস্থারপন্থীদলের এক ব্যক্তি কাপ্তাই হ্রদের পানিতে তলিয়ে যায়। সংস্কারপন্থী জেএসএস এমএন লারমা গ্রপের নেতা কোকো চাকমা নিজে সুবলংয়ে সহকারী সংগঠকের দায়িত্বে ছিলেন এবং তিনি জেএসএস এমএন লারমা গ্র“পের প্রধান নেতা পেলে বাবুর আপন ভাতিজা বলে জানিয়েছে দলটির দায়িত্বশীল সূত্র। তার বাড়ি খাগড়াছড়ি জেলার দীঘিনালা উপজেলাধীন কামুক্যাছড়া এলাকায়। কোকো চাকমা সুবলং এলাকায় জেএসএস এমএন লারমা দলের সহকারি সংগঠক বলে জানিয়েছে দলটির একাধিক সূত্র। বরকল থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ মফজল আহমেদ খান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত।

স্থানীয় বাসিন্দা ও পুলিশ সূত্রে পাওয়া তথ্যে জানাগেছে, বৃহস্পতিবার সকালে রাঙামাটি থেকে ইট বোঝাই ২টি ট্রলার বোট নিয়ে লংগদুর উদ্দেশ্য সুবলং বাজার ক্রস করে যাচ্ছিল। এ সময় চাঁদার জন্য সুবলং বাজারের মাজারের ঘাটে ভিড়ানোর লক্ষ্যে বোটগুলিকে সিগন্যাল দেয় জেএসএস এমএন লারমার সংস্কারপন্থীর কর্মীরা। কিন্তু মাল বোঝাই বোটগুলো ঘাটে না ভিড়িয়ে চলে যাচ্ছিলো। এসময় জেএসএস সংস্কারপন্থীরা তাদের কাছে থাকা ষ্পীড বোট নিয়ে ওই মালামাল বোঝাই দুটি বোট কে ধাওয়া করে। এক পর্যায়ে ওই দু’টি ট্রলার বোটকে লক্ষ্য করে গুলি করে সংস্কারপন্থীরা। এসময় গুলি করতে করতে নিজেদের নিয়ন্ত্রিত এলাকার সীমানা ত্যাগ করে প্রতিপক্ষের সীমানায় চলে এলে আমবাগান নামক এলাকায় ওৎপেতে থাকা জেএসএস এর মুল দলের সশস্ত্রকর্মীরা সংস্কারপন্থীদের দেখেই ব্যাপকহারে গুলি চালাতে থাকে। এসময় সংস্থারপন্থীরাও পাল্টা গুলি ছুড়ে। এতে এমএন লারমার সংস্কারপন্থীদের ষ্পীড বোটের ড্রাইভার কোকো চাকমা (২৮) গুলিবিদ্ধ হয়ে পানিতে পড়ে যায় বলে সংবাদ মাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন বরকল থানার ওসি মফজল আহম্মদ খান জানিয়েছেন। স্থানীয়রা জানিয়েছে এসময় উভয় পক্ষের মধ্যে ৫০ রাউন্ডের অধিক গুলি বিনিময় হয়েছে। নিখোঁজ কোকো সংস্কারপন্থী জেএসএস এমএন লারমা গ্রপের প্রধান নেতা পেলে বাবুর আপন ভাতিজা এবং তিনি সুবলংয়ে দলটির সহকারী সংগঠকের দায়িত্বে ছিলেন বলে নিশ্চিত করেছে দলটির দায়িত্বশীল সূত্র। তার বাড়ি খাগড়াছড়ি জেলার দীঘিনালা উপজেলাধীন কামুক্যাছড়া এলাকায়।

সর্বশেষ সংবাদ

হিন্দু কলেজ ছাত্রীকে কোরান বিলির নির্দেশ ভারতের আদালতের

মিন্নির পাশে কেউ নেই! পুলিশ সুপারের ভূমিকা প্রশ্নবিদ্ধ

রুবেল মিয়ার মেজ ভাইয়ের মৃত্যুতে সদর ছাত্রদলের শোক প্রকাশ

হালদা দূষণের অপরাধে বিদ্যুৎকেন্দ্র বন্ধ রাখার নির্দেশ : জরিমানা ২০ লাখ টাকা

তরুণ সাংবাদিক হাফিজের শুভ জন্মদিন আজ

চকরিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান সাঈদী’র বরাদ্দ থেকে ১৫০০ পরিবারে চাউল বিতরণ

কলেজ আমার কাছে দ্বিতীয় পরিবার

রামু উপজেলা ছাত্রদল যুগ্ম আহবায়ক সানাউল্লাহ সেলিম কে শোকজ

No more than 2500 Easy Bikes in the city, Acting D.c Ashraf

An awaiting repatriation

25 elites relate to Yaba, SP Masud Hussain

উদ্বিগ্ন হওয়ার কারণ নেই : সড়ক বিভাগের জমিতেই নান্দনিক ৪ লেন সড়ক

কক্সবাজারে এইচএসসিতে পাসের হার ৫৪.৩৯%

নিজেকে চেয়ারম্যান ঘোষণা করতে পারেন কাদের

ফল পুনঃনিরীক্ষার আবেদন করবেন যেভাবে

নিমিষেই এনআইডি যাচাই করবে ‘পরিচয়’

মনের শক্তিতে জিপিএ-৫ পেলো পটিয়ার সাইফুদ্দিন রাফি

হজে এবার ৮০০ কোটির ওপরে আয় করবে বিমান

ধর্মীয় নেতাদের উসকানিমূলক বক্তব্য নিয়ন্ত্রণের প্রস্তাব ডিসি সম্মেলনে

ওসি খায়েরের চ্যালেঞ্জ ছিল রোহিঙ্গা, মনসুরের চ্যালেঞ্জ ইয়াবা