প্রেস বিজ্ঞপ্তি :
মৎস্যজীবি শ্রমিকদের অধিকার আদায়ের পক্ষে কথা বলার লক্ষ্যে কক্সবাজার জেলা মৎস্যজীবি শ্রমিকলীগের কমিটি গঠন করা হয়েছে। গতকাল বুধবার (২৬ জুন) এই কমিটি গঠন উপলক্ষ্যে এক আলোচনা সভা জেলা আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়।

শ্রমিক নেতা খোরশেদ আলমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উক্ত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন- কক্সবাজার জেলা শ্রমিকলীগের সভাপতি জহিরুল ইসলাম সিকদার। প্রধান বক্তা ছিলেন- জেলা শ্রমিকলীগের সাধারণ সম্পাদক শফিউল্লাহ আনসারী। বিশেষ অতিথি ছিলেন দপ্তর সম্পাদক এম. ওসমান গণি ও সদস্য গিয়াস উদ্দীন। উপস্থিত ছিলেন- আবদুল করিম, মোঃ বশির, মনু ড্রাইভার, মোঃ মাসুদ, মোঃ আলতাজ, নূরুল আলম, ছৈয়দ আলম ও শেফাল জলদাশসহ অন্যান্যরা।

আলোচনা সভায় বক্তারা বলেন- ‘মৎস্যখাতের উন্নয়নের জন্য সরকার ঘোষিত মাছধরার নিষিদ্ধ সময়ে তৃণমূলের মৎস্যজীবিদের জন্য বরাদ্দ সরকারি অনুদান অসাধুরা আত্মসাৎ করে। এতে মৎস্যজীবিরা পরিবার নিয়ে মারাত্মক অর্থাভাবে দিন কাটায়। তাদের এই দুদর্শা লাঘব ও লুটপাটকারীদের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানোর লক্ষ্যে তৃণমূল সাধারণ শ্রমিকদের সুসংগঠিত হতে হবে।’

এসময় আরো বলেন- রোহিঙ্গা আমাদের জেলে পেশায় ঢুকে মাদক চোরাচালান, ডাকাতিসহ নানা অপরাধকর্মে জড়িয়ে যাচ্ছে। একই সাথে জেলে পেশাসহ অন্যান্য ক্ষেত্রে ঢুকে পড়ছে রোহিঙ্গারা। ইতিমধ্যে জেলাজুড়ে রোহিঙ্গা শ্রমিকদের দৌরাত্ম্য বেড়েছে। নেতৃবৃন্দ ট্রলার মালিক ও মালিক সমিতির নেতৃবৃন্দের প্রতি আহবান জানান, জাতীয় পরিচয়পত্রবিহীন লোকজন ও রোহিঙ্গাদের যেন জেলে শ্রমিক হিসেবে নিয়োগ না দেওয়া হয়।

পরে সাধারণ জেলে শ্রমিকদের সুসংগঠিত করার লক্ষ্যে সবার মতামত নিয়ে মোঃ খোরশেদ আলমকে সভাপতি, মোঃ আবু বক্কর ছিদ্দিক (মনু মিয়া) ও মোঃ তাহেরকে সাংগঠনিক সম্পাদক করে ২১ সদস্য বিশিষ্ট এই জেলা কমিটি আগামী এক বছরের জন্য অনুমোদন দেয়া হয়।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •